এসএসসি পরীক্ষায় নকলে বাধা

রৌমারীতে ইউএনওর গাড়িসহ পরীক্ষা কেন্দ্রে ভাংচুর

  কুড়িগ্রাম ও রৌমারী প্রতিনিধি ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কুড়িগ্রামের রৌমারীতে এসএসসি পরীক্ষায় নকল প্রতিরোধ করায় বহিরাগতসহ বিক্ষুব্ধ পরীক্ষার্থীরা কেন্দ্রে তাণ্ডব চালিয়ে ইউএনওকে দেড় ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রাখে। শনিবার উপজেলার জাদুরচর উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে গণিত পরীক্ষা শেষে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ইউএনওর গাড়ি, শিক্ষকদের মোটরসাইকেল, সিসি ক্যামেরা, বিদ্যালয়ের নিরাপত্তা দেয়াল, দরজা-জানালা ও চেয়ার-টেবিল ভাংচুর করা হয়। বিক্ষুুব্ধ শিক্ষার্থীদের রোষানল থেকে বাঁচাতে শিক্ষকরা ইউএনওকে বিদ্যালয়ের দোতলায় নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেন। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় এক পুলিশ সদস্যসহ ১০-১২ জন আহত হন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন পরীক্ষার্থী অভিযোগ করেন, রৌমারী ইউএনও অন্য কোনো কেন্দ্রে না গিয়ে শুধু জাদুরচর উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে কর্তব্য পালন করেন। পরীক্ষা চলাকালে কোনো কারণ ছাড়াই পরীক্ষার্থীদের নানাভাবে হয়রানির অভিযোগ এনে পরীক্ষার্থীরা বিক্ষুব্ধ হয়।

রৌমারীর ইউএনও দীপংকর রায় জানান, পরীক্ষা শুরু হওয়ার ১০ মিনিট পর আমি কেন্দ্রে উপস্থিত হই। পরীক্ষা শেষে বাচ্চারা মূলত হট্টগোল করে। এ সময় তারা আমার গাড়ি, শিক্ষকদের ১৩টি মোটরসাইকেলসহ বিদ্যালয়ে লাগানো ১৫টি সিসি ক্যামেরা ভাংচুর করে। ভেঙে ফেলা হয় দেড়শ ফিট বিদ্যালয়ের নিরাপত্তা দেয়াল, পরীক্ষা কেন্দ্রের দরজা-জানালা। তাদের তাণ্ডবে স্থানীয়রাও অংশ নেন।

রৌমারী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মজিবর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে বিকাল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত ইউএিনও দীপংকর রায়, সার্কেল এএসপি সিরাজুল ইসলাম, ওসি জাহাঙ্গীর আলমসহ উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক নেতাদের নিয়ে আলোচনা হয়েছে একটা সুষ্ঠু সমাধানের জন্য। মূলত ভুল বোঝাবুঝির কারণে রৌমারী সিজি জামান উচ্চবিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীরা এ হামলার করে।

রৌমারী অঞ্চলের দায়িত্বপ্রাপ্ত সার্কেল এএসপি সিরাজুল ইসলাম জানান, সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। এসব ভিডিও দেখে প্রকৃত অপরাধীদের চিহ্নিত করা হবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

E-mail: [email protected], [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter