পত্নীতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

খাবার সরবরাহে অনিয়ম

  পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি ০৪ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

পত্নীতলায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগীদের খাবার সরবরাহে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। নির্ধারিত মেন্যু ও মান অনুযায়ী রোগীদের খাবার সরবরাহ না করে পচা কলা ও বাসি পাউরুটি সরবরাহ করার অভিযোগ রয়েছে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারের বিরুদ্ধে। রোগী বা তাদের স্বজনরা এ বিষয়ে অভিযোগ করলে তাদের হাসপাতালের নার্স ও কর্মকর্তারা নানাভাবে হয়রানি করারও অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে রোগী ও তাদের স্বজনদের মধ্যে বিরাজ করছে চাপা ক্ষোভ। বিষয়টি ওপেন সিক্রেট হলেও সবাই না জানার ভান করছেন। সরেজমিন সোমবার সকালে পত্নীতলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে গিয়ে দেখা গেছে, সেখানে ২০ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন। ভর্তি থাকা রোগী শরিফুল, ফাতেমা বেগম, মতিবুল ইসলাম, আরশেদুল, মোবারক, শরিফা বানুসহ কয়েকজন রোগীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সকালে নাস্তা হিসেবে পচা কলা ও বাসি রুটি দেয়া হয়, যা খাওয়া যায় না। দুপুরের ভাত দেয়া হয় বিকাল ৩টায়। ভাতের চাল এতই নিম্নমানের যা মুখে দেয়া যায় না। অনেক সময় ভাতের মধ্যে পোকাও পাওয়া যায়। তরকারি হিসেবে সরবরাহ করা হয় সিলভার কার্প মাছ বা মাংসের ছোট ছোট টুকরা। দুপুর ও রাতে একই ধরনের খাবার দেয়া হয়। এসব মানহীন খাবার তারা নিতে না চাইলেও ঠিকাদারের লোকজন জোর করে দিয়ে যান। কিছু বললে তারা বলেন, খেতে না পারলে ফেলে দেন। সব রোগ ও সব বয়সীদের জন্য একই ধরনের খাবার দেয়া হয়। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি থাকা একজন রোগীর জন্য খাবার বাবদ প্রতিদিন ২০০ টাকা বরাদ্দ রয়েছে। এ টাকা দিয়ে রোগীকে সকালের নাস্তা এবং রাত ও দুপুরে ভাত সরবরাহ করার কথা। নাস্তায় কলার সঙ্গে ১০০ গ্রাম ওজনের একটি পাউরুটি দিতে হবে। দুপুরের ও রাতের খাবারের সঙ্গে তরকারি হিসেবে রুই মাছ বা ২৫০ গ্রাম পরিমাণ মাংস সরবরাহ করার কথা। সপ্তাহের রোব, মঙ্গল, বৃহস্পতি ও শুক্রবার রোগীদের মাংস সরবরাহ করার কথা রয়েছে। এক যুগ ধরে বিপ্র টেডার্স নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান স্বাস্থ্য কেন্দ্রে রোগীদের খাবার সরবরাহ করছে। এ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে নিম্নমানের খাবার সরবরাহ করার অভিযোগ রয়েছে। এ বিষয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের খাবার মনিটরিংয়ের দায়িত্বে থাকা আরএমও ডা. খালিদ সাইফুল্লাহ বলেন, এ বিষয়ে ঠিকাদারকে ডেকে সতর্ক করা হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তৌফিক আহম্মেদ বলেন, খাবারের বিষয়টি সিভিল সার্জনকে জানিয়েছি। নওগাঁর সিভিল সার্জন ডা. মোমিনুল ইসলাম জানান, নিম্নমানের খাবারের বিষয়টি জানতে পেরেছি। ঠিকাদারের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিম্নমানের খাবার সরবরাহের ঠিকাদার বিমান কুমারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমি কোনো খারাপ খাবার পরিবেশন করি না। মেন্যু অনুযায়ী রোগীদের খাবার পরিবেশন করা হয়। যারা অভিযোগ করছেন তারা মিথ্যা অভিযোগ করেছেন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×