দৌলতপুরে ভিজিএফ’র চাল নেতাকর্মীদের বাড়িতে

কার্ডধারীরা পেয়েছে ৮ কেজি করে

  দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি ০৪ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে দরিদ্র অসচ্ছল ব্যক্তিদের মাঝে ভিজিএফের চাল বিতরণে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। দরিদ্র অসচ্ছল ব্যক্তিদের জন্য বরাদ্দের এ চাল আওয়ামী লীগ দলীয় নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি পাঠানো হয়েছে। আর ভিজিএফ কার্ডধারী ব্যক্তিদের মাঝে মাত্র ৭-৮ কেজি করে চাল বিতরণ করা হয়েছে। এতে ভিজিএফ কার্ডধারীসহ সাধারণ জনমনে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দৌলতপুরে এ বছর জনপ্রতি ১৫ কেজি করে ১১ হাজার ২৭৭ জনের মাঝে ১৭৯.১৫৫ টন চাল বরাদ্দ হয়। সে লক্ষ্যে উপজেলার ১৪ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নিজ নিজ ইউনিয়নের চাল উত্তোলন করে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে নিয়ে যান। চাল বিতরণকালে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা তাদের শতকরা ৩০ ভাগ চালের কোটা দাবি করে। ইউনিয়ন চেয়ারম্যানরা দলীয় কোটার ৫০ টন ভিজিএফের চাল আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিয়ে বাকি চাল ৭-৮ কেজি করে দরিদ্র অসচ্ছল ভিজিএফ কার্ডধারীদের মাঝে বিতরণ করেন। এ নিয়ে ইউনিয়ন চেয়ারম্যানদের মধ্যেও চরম অসন্তোষ দেখা দেয়। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বলেন, আমরাও আওয়ামী লীগ দলীয় চেয়ারম্যান। তারপরও ভিজিএফের চাল ৩০% দলীয় নেতাকর্মীদের দিয়ে বাকি চাল দরিদ্র কার্ডধারীদের মাঝে বিতরণ করছি। এদিকে সোমবার ও গত রোববার সকালে উপজেলা বাজার এলাকা দিয়ে ৪-৫টি ভ্যান ভর্তি হয়ে ভিজিএফের চাল স্থানীয় আওয়ামী লীগ দলীয় নেতাকর্মীদের বাড়িতে যেতে দেখা গেছে।

মোট বরাদ্দ থেকে ৫০.০৭ টন চাল দলীয় নেতাকর্মীদের জন্য অবৈধভাবে জোর করে বরাদ্দ নেয়ার কারণে ভিজিএফ কার্ডধারীদের প্রাপ্ত বরাদ্দ কমে যায়। ফলে তাদের মাঝে ৭ কেজি থেকে ৮ কেজি করে চাল বিতরণ করা হয়। রিফায়েতপুর ইউনিয়নের লক্ষ্মীখোলা গ্রামের রমেজান নামে এক বৃদ্ধার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ থেকে তাকে ৭ কেজি চাল দিয়েছে। একই অভিযোগ গোয়ালগ্রামের দাউদ হোসেন নামে এক ভিজিএফ কার্ডধারীর।

এ বিষয়ে রিফায়েতপুর ইউপি চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবু বলেন, চালের বরাদ্দের তুলনায় জনসংখ্যা বেশি হওয়ায় কিছু লোককে ১০ কেজি করে চাল দিয়ে বেশি মানুষকে কাভার করা হয়েছে।

ভিজিএফের চাল বিতরণে অনিয়মের বিষয়ে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার বলেন, চাল কম দেয়া হচ্ছে আমার কাছে এমন অভিযোগ এসেছিল। অভিযোগ পাওয়ার পর রোববার রিফায়েতপুর ইউনিয়নের অ্যাসিল্যান্ডকে পাঠিয়ে ভিজিএফ কার্ডধারীদের মাঝে ১৫ কেজি করে চাল বিতরণ করা হয়েছে। আর আওয়ামী লীগ দলীয় কোটার ৩০% চালের বিষয় সঠিক নয় বলে তিনি মন্তব্য করেন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×