বোয়ালমারীতে ভাতা দেয়ার নামে টাকা আদায়

ইউপি সদস্যদের বিরুদ্ধে অভিযোগ

  বোয়ালমারী (ফরিদপুর) প্রতিনিধি ১৯ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

উপজেলার ঘোষপুর ইউনিয়নের ৩ ইউপি সদস্যর বিরুদ্ধে প্রতিবন্ধী ভাতার টাকা আত্মসাৎ ও বয়স্ক ভাতা দেয়ার নামে অর্থ আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘোষপুর গ্রামের বাকপ্রতিবন্ধী মিরাজ হোসেনের স্ত্রী ফরিদা বেগম জানান, ৪নং ওয়ার্ডের সদস্য কামরুল প্রতিবন্ধী ভাতার বই করে দেয়ার কথা বলে দুই বছর আগে ২ হাজার টাকা নেয়। এখন পর্যন্ত ভাতার বই বা টাকা কোনোটাই পাইনি। ৯নং ওয়ার্ডের লংকারচর গ্রামের শারীরিক প্রতিবন্ধী দীপক গোলদারের বাবা দিলীপ গোলদার জানান, বছরখানেক আগে ৩ নম্বর সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য অপু সরকার প্রতিবন্ধী ভাতার বই করে দেয়ার কথা বলে অফিস খরচ বাবদ দুই ধাপে সাড়ে ৪ হাজার টাকা নেয়। গত ৯ জুন আমার ছেলে দীপককে সঙ্গে নিয়ে আমার মা বোয়ালমারী সোনালী ব্যাংক শাখা থেকে ভাতার টাকা উত্তোলনের জন্য যায়। অপু সরকার আমার মাকে ব্যাংকের গেটে বসিয়ে রেখে দীপককে ভেতরে নিয়ে গিয়ে টিপসই রেখে ভাতার ৪ হাজার ২শ’ টাকা উত্তোলন করে। অপু সরকার আমার ছেলের হাতে মাত্র ১শ’ টাকা ধরিয়ে দিয়ে মার সঙ্গে তাকে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। গোহাইলবাড়ী গ্রামের নৃপেন চন্দ্র বিশ্বাসের স্ত্রী শংকরী বিশ্বাস অভিযোগ করেন তার স্বামীর বয়স্ক ভাতা দেয়ার কথা বলে ৭ নম্বর ইউপি সদস্য ইউনুচ মোল্যা ৪ হাজার টাকা নিয়েছে। এছাড়া তিনি আরও অভিযোগ করেন আমাদের সময়মতো ভাতার বইও দেয়া হয়নি।

এ সব অভিযোগের ব্যাপারে ইউপি সদস্য কামরুল ইসলাম বলেন, প্রতিবন্ধীদের তালিকা জমা দেয়া হয়েছিল। শুনেছি ভাতার বই চেয়ারম্যানের কাছ সমাজসেবা অফিস হস্তান্তর করেছে। ভাতার বই করে দেয়ার কথা বলে টাকা নেয়ার বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন। মহিলা ইউপি সদস্য অপু সরকার বলেন, ভাতার বই করার জন্য কারও কাছ থেকে কোন টাকা নেয়া হয়নি। ইউপি সদস্য ইউনুচ মোল্যা মোবাইলে বলেন, কারো কাছ থেকে টাকা নেয়ার প্রশ্নই আসে না। ভাতার বই ঠিক সময় পৌঁছে না দেয়ার ব্যাপারে বলেন, চেয়ারম্যান ফারুক হোসেনের সঙ্গে আমার সম্পর্ক ভালো না থাকায় ভাতার বই বিতরণের জন্য আনতে যায়নি। চেয়ারম্যান এসএম ফারুক হোসেন বলেন, কিছু বিষয়ে অভিযোগ আমার কানে এসেছে। কোনো সদস্য অর্থ আদায় বা আত্মসাৎ করে থাকলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। উপজেলা সমাজসেবা অফিসার প্রকাশ কুমার বিশ্বাস বলেন, ভাতা নিয়ে কোনো অনিয়ম দুর্নীতির সুযোগ নেই।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×