রৌমারী ও রাজিবপুরে নিলাম ছাড়াই গাছ কর্তন

থানায় মামলা না নেয়ায় বিক্ষোভ মিছিল

  রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি ২৫ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

রৌমারী ও রাজিবপুর উপজেলার ডিসি সড়কের দু’ধারে নিলামবিহীন গাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে। কয়েকটি গাছের গুঁড়ি জব্দ করে থানায় নিলেও অজানা কারণে মামলা নিচ্ছে না পুলিশ। প্রতিবাদে সোমবার রাজিবপুরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকাবাসী। এদিকে নিলামবিহীন গাছ কাটার অভিযোগ পেয়ে জেলা পরিষদ থেকে ৫ সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ওই কমিটি বর্তমানে রাজিবপুরে অবস্থান করছে। কমিটির প্রধান জেলা পরিষদের সহকারী প্রকৌশলী মামুনুর রশিদ বলেন, অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ের জন্য ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। প্রতিবেদন দাখিলের পর সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নেবেন। জানা গেছে, ডিসি সড়ক প্রশস্তকরণের লক্ষ্যে কুড়িগ্রাম জেলা পরিষদ থেকে বিভিন্ন জাতের প্রায় ৩ হাজার পরিপক্ক গাছ নিলামে দেয়া হয়। রৌমারী উপজেলার দাঁতভাঙা থেকে রাজিবপুরের শেষ সীমানা পর্যন্ত খণ্ড খণ্ড করে ৩০টি লড এ ভাগ করা হয়। নিলাম কার্যক্রম এখনও অসমাপ্ত থাকায় টাকার অঙ্ক জানাতে পারেনি জেলা পরিষদ। এর মধ্যেই তালিকার বাইরে গাছ কাটছেন নিলামকারীরা। বুধবার খোদ জেলা পরিষদ সদস্য রাজিয়া সুলতানা রেনুর বিরুদ্ধেই নিলামের বাইরের ৫টি গাছ কেটে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে স্থানীয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আশরাফুল ইসলাম বাবু বাদী হয়ে মামলার উদ্দেশ্যে একটি লিখিত অভিযোগ দেন। ৫ দিনেও মামলা না হওয়ায় সোমবার সকালে বিক্ষোভ মিছিল করেন এলাকাবাসী। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে থানা মোড়ে এক পথসভায় মিলিত হয়। সভায় বক্তব্য দেন আজিবর রহমান মাস্টার, আশরাফুল ইসলাম বাবু, জুয়েল আহমেদ, মুরাদ হোসেন, সাইদুর রহমান সাঈদ, আতিয়ার রহমান সোহাগ প্রমুখ। এ ব্যাপারে জেলা পরিষদের সদস্য রাজিয়া সুলতানা রেনুর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি একটি গাছ কাটার কথা স্বীকার করেন। মামলা না নেয়ার ব্যাপারে রাজিবপুর থানার ওসি রবিউল ইসলাম বলেন, গাছ কাটার বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটি প্রতিবেদন দিলেই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×