চরফ্যাশনে ছাত্রী ও ধোবাউড়ায় কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগ

  চরফ্যাশন (দক্ষিণ) ও ধোবাউড়া প্রতিনিধি ২৫ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

চরফ্যাশন দুলারহাট থানার নীলকমল রহমানিয়া দাখিল মাদ্রাসাসংলগ্ন ওয়াহেদিয়া হাফিজিয়া নূরানী মাদ্রাসা ও ইয়াতিমখানায়, রহমানিয়া দাখিল মাদ্রাসার সপ্তম শ্রেণী ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় রোববার রাতে ওই মাদ্রাসা ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে দুলারহাট থানায় ধর্ষণ মামলা করেন। পুলিশ ও মাদ্রাসাছাত্রীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ১৮ জুন মঙ্গলবার ওই ছাত্রী প্রতিদিনের মতো সকাল ৭টায় কোরআন শিক্ষার জন্য ওয়াহেদিয়া হাফিজিয়া নূরানী মাদ্রাসায় হাফেজ মো. নূর আলমের কাছে যায়। পরে হাফেজের কু-নজর পড়ে ১৪ বছরের মাদ্রাসার ছাত্রীর দিকে। সকাল ৮টায় সব ছাত্র-ছাত্রীদের ছুটি দিয়ে মাদ্রাসা ঘড়টি ঝাড়– দেয়ার কথা বলে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতে বলে। পরে মাদ্রাসা ঘড়টির দরজা বন্ধ করে দেন হাফেজ নূর আলম মেয়েটিকে ধর্ষণ করে।

এদিকে ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় বিয়ের প্রলোভনে এক কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। উপজেলার লাঙ্গলজোড়া গ্রামের মোশারফ হোসেন চারুয়াপাড়া গ্রামের এক কিশোরীকে ধর্ষণ করে আসছে। এ ঘটনায় ধোবাউড়া থানায় মামলা হয়েছে। জানা যায়, উপজেলার দক্ষিণ মাইজপাড়া ইউনিয়নের চারুয়াপাড়া গ্রামের ওই কিশোরীর সাথে লাঙ্গলজোড়া গ্রামের মোশারফের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। প্রেমের সম্পর্ক একপর্যায়ে দৈহিক সম্পর্কে রূপ নেয়। এভাবে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই কিশোরীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে মোশারফ। পরে মেয়ের পরিবার থেকে বিয়ের চাপ দিলে তালবাহানা শুরু করে মোশারফ হোসেন। ওই কিশোরী রোববার রাতে ধোবাউড়া থানায় মামলা করে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×