ক্ষুদে বিজ্ঞানীর স্বপ্নভঙ্গ

‘আমার ছেলের প্রতি অবিচার হয়েছে’

  চট্টগ্রাম ব্যুরো ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

এসএসসি পরীক্ষায় রসায়ন বিজ্ঞানের প্রশ্নপত্রে দাগ দেয়ার কারণে তিন মেধাবী ছাত্রকে বহিষ্কার নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। তাদের পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ তিন ছাত্রকে লঘু পাপে গুরুদণ্ড দেয়া হয়েছে। মেধাবী তিন ছাত্রের একজন ক্ষুদে বিজ্ঞানী তারিক আমিন চৌধুরী। অন্য দু’জন হল ইমাম হোসেন ও সায়মা আক্তার। এ ঘটনা নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি জানান তাদের অভিভাবকরা। তারিকের আগামী মাসে আমেরিকা চলে যাওয়ার কথা রয়েছে বলে পরিবার সূত্রে জানা গেছে। তার পরিবারের সদস্যরা জানান, তারিক আমিন শিশুকাল থেকে প্রখর মেধাবী। চার পাঁচ মাস আগে বিএমসি সুপার স্মার্ট বাল্ব আবিষ্কার করে বেশ আলোচিত হয়। তার আগে প্রথমবারের মতো নজরে আসে মাইন্ড ওয়েব ডিভাইস নামক একটি ডিভাইস উদ্ভাবনের কারণে। এ ছাড়াও রোবোটিকসে ৯ বারের ন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন সেন্ট প্লাসিডস স্কুলের এই ছাত্র। তারিক চন্দনাইশ উপজেলার জোয়ারা ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান আমিন আহমদ চৌধুরী রোকনের ছেলে। নানা আজিম আলী ডায়মন্ড সিমেন্টের পরিচালক। তারিকের মামা চন্দনাইশের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম চৌধুরী। স্বপ্ন ছিল এসএসসি পরীক্ষার পর বিজ্ঞানে দেশকে আরও ভালো কিছু উপহার দেবে। দেশের জন্য কিছু করবে। কাজ করবে ন্যাশনাল অ্যারোনটিকস অ্যান্ড স্পেস এডমিনিস্ট্রেশনে (নাসা)। কিন্তু এসএসসি পরীক্ষায় লঘু দোষে বহিষ্কার হয়ে ভেঙে গেল এই ক্ষুদে বৈজ্ঞানিকের সব স্বপ্ন। তার শিক্ষাজীবনেই লেগে গেল দাগ । গত বছর বাংলাদেশ মেটেরিয়ালস অ্যান্ড কনস্ট্রাকশন কোম্পানির (বিএমসি) স্মার্ট বাল্ব নিয়ে গবেষণা করে এর বহুবিধ ব্যবহার উদ্ভাবন করে তারিক। তাকে সহায়তা করে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ত্বড়িৎ প্রকৌশল বিভাগের ছাত্র শান্তনু ভট্টাচার্য। ব্ল–-টুথ ও ওয়াইফাইয়ের মাধ্যমে নির্দিষ্ট অ্যাপ্লিকেশন দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে এই বাল্বকে। এর আগে ২০১৬ সালে তারিক উদ্ভাবন করে মাইন্ড ওয়েব ডিভাইস, যা মনের চিন্তাকে কাজে রূপান্তর করে। তারিকের এই উদ্ভাবনটি চট্টগ্রাম বিসিএসআইআর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলা ’২০১৫-এ প্রথম পুরস্কার লাভ করে। তারিক আমিন চৌধুরীর বাবা চন্দনাইশ উপজেলার জোয়ারা ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান আমিন আহমদ চৌধুরী রোকন যুগান্তরকে জানান, ‘আমার ছেলের প্রতি অবিচার করা হয়েছে। এখন সে দেশে থাকতে চাচ্ছে না। আগামী মাসেই আমেরিকা চলে যাওয়ার চিন্তাভাবনা করছে।’ চট্টগ্রাম মুসলিম হাইস্কুল কেন্দ্রে ১৫ ফেব্রুয়ারি এসএসসি পরীক্ষা চলাকালীন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রমিজ আলম তিন মেধাবী পরীক্ষার্থীকে নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নের ওপর কলমের দাগ পাওয়ায় বহিষ্কার করেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×