দিনাজপুর ও শোলাকিয়ায় ঈদের জামাত: গোর-এ শহীদ বড় ময়দানে ৪ লাখ মুসল্লির নামাজ

  কিশোরগঞ্জ ব্যুরো ও দিনাজপুর প্রতিনিধি ১৫ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ঈদের জামাত

দিনাজপুরের গোর-এ শহীদ বড় ময়দানে দেশের সবচেয়ে বড় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। এছাড়া কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়ায় উৎসব আমেজে ১৯২তম পবিত্র ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় লাখো মুসল্লি দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি এবং মুসলিম উম্মাহর শান্তির পাশাপাশি ডেঙ্গুর হাত থেকে মুক্তি কামনায় মহান আল্লাহর কাছে দোয়া করেন।

আয়তনে দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় ঈদগাহ দিনাজপুরের গোর-এ শহীদ বড় ময়দান। প্রতিকূল আবহাওয়া উপেক্ষা করে এবার ৬ষ্ঠ বারের মতো আয়োজিত এই ঈদের জামাতে প্রায় ৪ লাখ মুসল্লি একসঙ্গে নামাজ আদায় করেন বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা।

সকাল সাড়ে ৮টায় অনুষ্ঠিত ঈদের জামাতে ইমামতি করেন মাওলানা শামসুল ইসলাম কাশেমী। ঈদের জামাতে সুপ্রিম কোর্ট বিভাগের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম, জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম, জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম, পুলিশ সুপার সৈয়দ আবু সায়েম, পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলমসহ জেলার পাশাপাশি বিভিন্ন স্থান থেকে আগত মুসল্লিরা অংশগ্রহণ করেন।

দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম বলেন, সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে ঈদের নামাজ আদায় হয়েছে। সবার সহযোগিতা পেলে এই ময়দানে সব সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করে ১০ লক্ষাধিক লোকের সমাগম সম্ভব হবে। জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, গোড়-এ শহীদ বড় ময়দানের আয়তন প্রায় ২২ একর। ৫২ গম্বুজের ঈদগাহ মিনার তৈরিতে খরচ হয়েছে ৩ কোটি ৮০ লাখ টাকা।

এদিকে কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানেও সকাল সাড়ে ৮টায় জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইমামতি করেন শহরের মারকাস মসজিদের খতিব হাফেজ মাওলানা হিফজুর রহমান খান। ১৭৫০ সালে প্রতিষ্ঠিত এই ঈদগাহর ঐতিহ্য অনুযায়ী মুসল্লিদের প্রস্তুতির জন্য জামাত শুরুর ১৫ মিনিট আগে তিনটি, ১০ মিনিট আগে তিনটি এবং ৫ মিনিট আগে তিনটি শটগানের গুলি ছুড়ে জামাতের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়।

এবারও ঈদ জামাতকে কেন্দ্র করে নেয়া হয়েছিল কঠোর নজরদারি আর চার স্তরের নিরাপত্তা। পুরো মাঠ নজরদারির জন্য ড্রোন উড়ে শোলাকিয়ায়। বসানো হয়েছিল আর্চওয়ে, ওয়াচটাওয়ার ও তল্লাশি চৌকি। মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে মুসল্লিদের দেহ তল্লাশি করে ঈদগাহে ঢুকতে দেয়া হয়। জামাত শুরুর আগে ঈদগাহ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী মুসল্লিদের ঈদের শুভেচ্ছা জানান।

অন্যদের মধ্যে পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার), পৌর মেয়র মাহমুদ পারভেজ এবং ঈদগাহ কমিটির সদস্য সচিব সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল কাদির মিয়া বক্তব্য রাখেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×