কসবায় অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে নারী গ্রেফতার

  কসবা (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় পুলিশের কনস্টেবল পদে চাকরি দেয়ার নামে ২ লাখ ১৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। আরও টাকা নিতে এলে ফুরকান নাহার (৪২) নামের এক নারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রোববার রাতে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। গ্রেফতার হওয়া ফুরকান নাহার ময়মনসিংহের ফুলপুর থানার চরবাহাদুর গ্রামের অধিবাসী। তিনি ঢাকার ইব্রাহিমপুর এলাকায় বসবাস করেন। সোমবার সকালে তাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিচারিক হাকিমের আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। আদালত তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে; কসবা উপজেলার খাড়েরা ইউনিয়নের দেলী গ্রামের জহিরুল ইসলামের চাচাত ভাই জামসিদ খানের সঙ্গে ফুরকান নাহার নামের ওই নারীর পূর্ব থেকেই পরিচয় ছিল। ফুরকান নাহার জামসিদ খানকে জানিয়েছেন তিনি সরকারের উচ্চ পদস্থ বিভিন্ন কর্মকর্তার সঙ্গে তার সম্পর্ক রয়েছে। পুলিশের কনস্টেবল পদে টাকা দিয়ে লোক ভর্তি করতে পারবেন। আগামী ৬ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের কনস্টেবল পদে লোক নিয়োগ করা হবে। ওই নিয়োগে জহিরুল ইসলামের ছেলে মুন্না খানকে ভর্তি করিয়ে দেয়ার জন্য জামসেদ খান ফুরকান নাহারকে জানিয়েছেন। তবে ফুরহান নাহার জানান, ভর্তি হতে ৫ লাখ টাকা লাগবে। সেই হিসাবে গত বছরের ১৫ জুন ২ লাখ ১৫ হাজার টাকা নিয়ে যান। গত রোববার টাকা নিতে এসে আরো একটি ১ লাখ ৭০ হাজার টাকার একটি চেক নেন। তবে অগ্রিম টাকার জামানত হিসেবে দুটি একশ’ টাকার স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর করেন ফুরকান নাহার। বিষয়টি নিয়ে সন্দেহ হলে পুলিশকে অবগত করেন জহিরুল ইসলাম খান। খবর পেয়ে কসবা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ফুরকান নাহারকে গ্রেফতার করতে পারলেও জামসেদ খান পালিয়ে যান।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter