লেকসিটি হাউজিং

৯২ গ্রাহকের জায়গা কম বিপাকে চসিক

  মিজানুল ইসলাম, চট্টগ্রাম ব্যুরো ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক) লেকসিটি হাউজিং প্রকল্পে ৯২ গ্রাহকের জায়গা কম। ফলে প্রকল্প এলাকায় ৯২ গ্রাহককে প্লট বরাদ্দ দেয়া সম্ভব হবে কিনা তা নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। এ নিয়ে বিপাকে পড়েছে সিটি কর্পোরেশন। কারণ প্রকল্প এলাকার প্রয়োজনীয় পরিমাণ জায়গা পাওয়ার সম্ভাবনা তেমন নেই। তবে চসিকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা ওই জায়গা সংস্থানের চেষ্টা করছেন।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সহকারী এস্টেট অফিসার এখলাছুর রহমান জানান, লেকসিটি হাউজিং এস্টেট ৩০ একর জায়গা নিয়ে কথা থাকলেও পরবর্তীতে জমির মালিক কিছু জায়গার রেজিস্ট্রি করে দেননি। ফলে বর্তমানে প্রকল্প এলাকায় সিটি কর্পোরেশনে জায়গা রয়েছে ২৭ একর।

এ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন যুগান্তরকে বলেন, বিষয়টি এতদিন আমার জানা ছিল না। সম্প্রতি প্রকল্পের পরিচালক আমাকে প্রকল্প এলাকায় পর্যাপ্ত জায়গা নেই বলে জানিয়েছেন। এতে ৯২টি প্লটের জায়গা কম পড়বে। প্রকল্পটি দীর্ঘদিন আগের হলেও যেহেতু আমি দায়িত্বে আছি এসব সমস্যা সমাধানের দায়িত্বও আমার। তাই আমি সেই চেষ্টাই করছি। প্রকল্প এলাকার আশপাশে জায়গা পাওয়া না গেলে সুবিধাজনক অন্য কোথাও জায়গার ব্যবস্থা করা হবে।

২০০৬ সালে ফয়স’লেক কৈবল্যধাম সংলগ্ন পাহাড়ি এলাকায় ৩৫ কোটি টাকায় ৩০ একর জমি কিনে এ প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়েছিল চসিক। লেকসিটি নামের এ আবাসন প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেন তৎকালীন মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী। কিন্তু এক যুগের প্লট গ্রহীতারা এসব প্লটের মালিকানা পাননি। ফলে তাদের মধ্যে হতাশা দেখা দেয়। আশঙ্কা তৈরি হয় এ প্রকল্পের বাস্তবায়ন ও প্লটের মালিকানা প্রাপ্তি নিয়ে।

এ ব্যাপারে প্রকল্পের পরিচালক চসিকের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, প্রকল্প এলাকায় কিছু প্লটের জায়গা কম। বিভিন্নভাবে চেষ্টা চলছে ওই জায়গা সংস্থানের। বর্তমান প্রেক্ষাপটে ওই জায়গার সংস্থান করা খুব একটা সহজ কাজ নয়। তবুও আমরা চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি সব গ্রহিতাকে প্লট হস্তান্তর করতে। বিষয়টি মেয়রকে জানানো হয়েছে। পরে মেয়র যেভাবে সিদ্ধান্ত দেন সেভাবে কাজ করা হবে। লেকসিটি হাউজিং সোসাইটি মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আফাজ উল্লাহ বলেন, বর্তমান মেয়র দায়িত্ব নেয়ার পর লেকসিটির ‘এ’ ব্লকের রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হয়েছে। প্রকল্পের কিছু কাজের অগ্রগতি হয়েছে।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
bestelectronics

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.