রাজশাহীতে যুবলীগের সেই নেতার নেতৃত্বে দুর্নীতিবিরোধী র‌্যালি!
jugantor
রাজশাহীতে যুবলীগের সেই নেতার নেতৃত্বে দুর্নীতিবিরোধী র‌্যালি!

  রাজশাহী ব্যুরো  

১০ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের টেন্ডারবাজি করে হাতিয়েছেন কোটি কোটি টাকা। রয়েছেন প্রশাসনের নজরদারিতে। তিনিই বুধবার রাজশাহী নগরীতে করেছেন দুর্নীতিবিরোধী র‌্যালি। স্থানীয় কিছু লোক সংগ্রহ করে এনে বুধবার সকালে ওই র‌্যালি করেন রাজশাহী মহানগর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফ বাবু। যদিও দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গের কারণে গত কয়েক দিন আগে তাকে শোকজ করাও হয়েছে। বুধবার আশরাফ বাবুর নেতৃত্বে নগরীর শিরোইল কলোনি এলাকা থেকে দুর্নীতি ও মাদকবিরোধী একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে কলোনি এলাকায় গিয়ে শেষ হয়। এই কলোনিতেই আশরাফ বাবুর বাড়ি। পরে সেখানে করা হয় সমাবেশ। নিজের অপকর্ম আড়াল করতে হঠাৎ করেই দুর্নীতিবিরোধী এই র‌্যালি করেন আশরাফ বাবু। এ কারণে তার এই র‌্যালিতে নগর আওয়ামী লীগ বা যুবলীগের অন্য কোনো নেতাদের দেখা যায়নি। কর্মীরাও ছিল না। সূত্রমতে, বিতর্কিত এই নেতা যেন দেশ ছেড়ে পালাতে না পারে, সেজন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে সতর্ক করা হয়েছে। আশরাফ বাবু বলেন, আমি কোনো অনিয়ম করে টাকা কামাই করিনি। দলের নাম ভাঙিয়ে চলি না। বরং মহানগর যুবলীগের সভাপতিসহ যারা নানা অপকর্মে জড়িতদের বিরুদ্ধেই আমার অবস্থান।

রাজশাহীতে যুবলীগের সেই নেতার নেতৃত্বে দুর্নীতিবিরোধী র‌্যালি!

 রাজশাহী ব্যুরো 
১০ অক্টোবর ২০১৯, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের টেন্ডারবাজি করে হাতিয়েছেন কোটি কোটি টাকা। রয়েছেন প্রশাসনের নজরদারিতে। তিনিই বুধবার রাজশাহী নগরীতে করেছেন দুর্নীতিবিরোধী র‌্যালি। স্থানীয় কিছু লোক সংগ্রহ করে এনে বুধবার সকালে ওই র‌্যালি করেন রাজশাহী মহানগর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফ বাবু। যদিও দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গের কারণে গত কয়েক দিন আগে তাকে শোকজ করাও হয়েছে। বুধবার আশরাফ বাবুর নেতৃত্বে নগরীর শিরোইল কলোনি এলাকা থেকে দুর্নীতি ও মাদকবিরোধী একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে কলোনি এলাকায় গিয়ে শেষ হয়। এই কলোনিতেই আশরাফ বাবুর বাড়ি। পরে সেখানে করা হয় সমাবেশ। নিজের অপকর্ম আড়াল করতে হঠাৎ করেই দুর্নীতিবিরোধী এই র‌্যালি করেন আশরাফ বাবু। এ কারণে তার এই র‌্যালিতে নগর আওয়ামী লীগ বা যুবলীগের অন্য কোনো নেতাদের দেখা যায়নি। কর্মীরাও ছিল না। সূত্রমতে, বিতর্কিত এই নেতা যেন দেশ ছেড়ে পালাতে না পারে, সেজন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে সতর্ক করা হয়েছে। আশরাফ বাবু বলেন, আমি কোনো অনিয়ম করে টাকা কামাই করিনি। দলের নাম ভাঙিয়ে চলি না। বরং মহানগর যুবলীগের সভাপতিসহ যারা নানা অপকর্মে জড়িতদের বিরুদ্ধেই আমার অবস্থান।