বেনাপোল এখন ধুলার নগরী

দুর্ভোগের শিকার কয়েক লাখ মানুষ

  বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বন্দর নগরী বেনাপোল এখন ধুলার নগরী। ধুলার কারণে ঘর থেকে বের হচ্ছে না মানুষ। অনেকেই অসুস্থ হয়ে শরণাপন্ন হচ্ছে চিকিৎসকের। বেনাপোল সড়কটি নতুনভাবে তৈরির জন্য কোথাও রাস্তা খুঁড়ে রাখা হয়েছে, আবার কোথাও প্রাথমিকভাবে পাথর ফেলে রোলার দিয়ে রেখে দেয়া হয়েছে। এক মাস ধরে রাস্তার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মোজাহার অ্যান্ড কোং রাস্তার কাজ শেষ না করেই এভাবে ফেলে রাখায় দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন কয়েক লাখ মানুষ।

বেনাপোল বন্দর দিয়ে প্রতিদিন ৫০০ পণ্যবোঝাই ট্রাক আমদানি হয়ে আসে ভারতে থেকে এবং বাংলাদেশ থেকে ২০০ ট্রাক পণ্য রফতানি হয় ভারতে। সেই সঙ্গে প্রতিদিন ৮ হাজার পাসপোর্র্ট যাত্রী আসা-যাওয়া করছে ভারত-বাংলাদেশে। বেনাপোল টু যশোর সড়কের উন্নয়ন কাজ শুরু হয়েছে প্রায় এক বছর। সব রাস্তা খুঁড়ে নতুন করে নির্মাণ কাজের জন্য বালি, মাটি, খোয়া, পাথর ফেলে রখা হয়েছে রাস্তাজুড়ে। আর এ রাস্তায় যান চলাচল করলে ধুলায় আচ্ছন্ন হচ্ছে গোটা বেনাপোল নগর। সুস্থ-সবল মানুষও কাশতে কাশতে অসুস্থ হয়ে পড়ছে। বেনাপোল শহরের রাস্তার দু’ধারের অফিস, আদালত, দোকানপাটসহ ঘরবাড়ি ধুলায় আচ্ছন্ন হয়ে পড়ছে।

বেনাপোলের চিকিৎসক আমজাদ হোসেন জানান, এ ধুলাবালির কারণে প্রতিটি নিঃশ্বাস মানুষের দেহে শত শত রোগের জীবাণু প্রবেশ করছে। আর যারা অ্যাজমা বা অ্যালার্জি রোগে আক্রান্ত তাদের জন্য ভয়াবহ পরিবেশ তৈরি হয়েছে। রাস্তার উন্নয়ন কাজ যত দিন শেষ না হয় ততদিন সকাল-বিকাল পানি দিয়ে ভিজিয়ে রেখে চলাচলের উপযোগী করা জরুরি।

মোজাহার অ্যান্ড কোং ঠিকাদারের প্রতিনিধি আ. রহিম জানান, রাস্তার কাজ দ্রুত শেষ করার জন্য রাতদিন কাজ করা হচ্ছে। প্রতিদিন ধুলা বন্ধ করতে বেনাপোল শহরে রাস্তায় একাধিক ট্যাঙ্কারের সাহায্যে পানি দিয়ে রাস্তা ভেজানো হচ্ছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×