নওগাঁয় ব্যবহারিক ক্লাসে দ্রবণের বিস্ফোরণে ছয় ছাত্র আহত
jugantor
নওগাঁয় ব্যবহারিক ক্লাসে দ্রবণের বিস্ফোরণে ছয় ছাত্র আহত

  নওগাঁ প্রতিনিধি  

০২ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নওগাঁ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট ল্যাবে ব্যবহারিক পরীক্ষার সময় দ্রবণের বিস্ফোরণে ছয় ছাত্র আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে তিনজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রামেক) পাঠানো হয়েছে। রোববার বিকেল ৪টার দিকে নওগাঁ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট ল্যাবে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হল কম্পিউটার বিভাগের ছাত্র টুটুল, নিয়ামুল, রাকিব, আতিকুর, শাহরিয়ার ও সাফি। এদের সবার বয়স ১৭ থেকে ১৮ বছরের মধ্যে।

কলেজ সূত্রে জানা যায়, দ্বিতীয় শিফটের কম্পিউটার বিভাগের ৪১ জন শিক্ষার্থী কলেজের তৃতীয়তলায় ল্যাবে প্যাকটিক্যাল ক্লাস করছিল। এ সময় সেখানে একটি গ্রুপে লবণ ও এসিড পরীক্ষার সময় হঠাৎ বিকারটি বিস্ফোরণে দ্রবণ ছড়িয়ে পড়ে। এতে ওই গ্রুপে থাকা ছয় ছাত্রের গায়ে দ্রবণ ছড়িয়ে পড়ায় আহত হয়।

নওগাঁ সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. মুনির আলী আকন্দ বলেন, ছয়জনের মধ্যে তিনজনের অবস্থা একটু বেশি খারাপ হওয়ায় তাদের রামেকে পাঠানো হয়েছে। ওই তিনজনের শরীর ৩০ শতাংশ পুড়ে গেছে। আর বাকি তিনজন আশঙ্কামুক্ত। নওগাঁ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের অধ্যক্ষ ফজলুল হক বলেন, ল্যাবে পরীক্ষার সময় বিকার বিস্ফোরণে ছয় ছাত্র আহত হয়েছে। তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। আমাদের শিক্ষকরা তাদের সঙ্গে আছেন। কী কারণে বিস্ফোরণ হয়েছে তা খতিয়ে দেখা হবে।

নওগাঁয় ব্যবহারিক ক্লাসে দ্রবণের বিস্ফোরণে ছয় ছাত্র আহত

 নওগাঁ প্রতিনিধি 
০২ ডিসেম্বর ২০১৯, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নওগাঁ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট ল্যাবে ব্যবহারিক পরীক্ষার সময় দ্রবণের বিস্ফোরণে ছয় ছাত্র আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে তিনজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রামেক) পাঠানো হয়েছে। রোববার বিকেল ৪টার দিকে নওগাঁ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট ল্যাবে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হল কম্পিউটার বিভাগের ছাত্র টুটুল, নিয়ামুল, রাকিব, আতিকুর, শাহরিয়ার ও সাফি। এদের সবার বয়স ১৭ থেকে ১৮ বছরের মধ্যে।

কলেজ সূত্রে জানা যায়, দ্বিতীয় শিফটের কম্পিউটার বিভাগের ৪১ জন শিক্ষার্থী কলেজের তৃতীয়তলায় ল্যাবে প্যাকটিক্যাল ক্লাস করছিল। এ সময় সেখানে একটি গ্রুপে লবণ ও এসিড পরীক্ষার সময় হঠাৎ বিকারটি বিস্ফোরণে দ্রবণ ছড়িয়ে পড়ে। এতে ওই গ্রুপে থাকা ছয় ছাত্রের গায়ে দ্রবণ ছড়িয়ে পড়ায় আহত হয়।

নওগাঁ সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. মুনির আলী আকন্দ বলেন, ছয়জনের মধ্যে তিনজনের অবস্থা একটু বেশি খারাপ হওয়ায় তাদের রামেকে পাঠানো হয়েছে। ওই তিনজনের শরীর ৩০ শতাংশ পুড়ে গেছে। আর বাকি তিনজন আশঙ্কামুক্ত। নওগাঁ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের অধ্যক্ষ ফজলুল হক বলেন, ল্যাবে পরীক্ষার সময় বিকার বিস্ফোরণে ছয় ছাত্র আহত হয়েছে। তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। আমাদের শিক্ষকরা তাদের সঙ্গে আছেন। কী কারণে বিস্ফোরণ হয়েছে তা খতিয়ে দেখা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন