মহম্মদপুরে গ্রেফতার আতঙ্কে পুরুষশূন্য গ্রাম
jugantor
পুলিশের সাবেক সদস্য হত্যা
মহম্মদপুরে গ্রেফতার আতঙ্কে পুরুষশূন্য গ্রাম

  মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি  

০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পুলিশের সাবেক এক সদস্য হত্যার ঘটনায় মহম্মদপুর উপজেলার বালিদিয়া গ্রাম এখন আতঙ্কের জনপদ। একদিকে একাধিক মামলায় গ্রেফতার আতঙ্কে পুরুষশূন্য বালিদিয়া গ্রাম, অন্যদিকে প্রতিপক্ষের হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের ভয়ে প্রতিদিনই বাড়ি ছাড়ছে কোনো না কোনো পরিবার। ভয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের অনেকে আশ্রয় নিয়েছে স্বজনবাড়ি। মাঠে কাজ করতে না পারায় বহু ফসলি জমি পরিত্যক্ত পড়ে আছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, বালিদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজ মিনা এবং বালিদিয়া গ্রামের ইউনুস শিকদারের মধ্যে গ্রাম্য দলাদলি ও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ্ব রয়েছে। ওই দ্বন্দ্বের জেরে ইউনুস শিকদার সমর্থক বালিদিয়া গ্রামের পুলিশের সাবেক সদস্য আবু সাঈদ মোল্যা ১৩ জানুয়ারি প্রতিপক্ষের হামলায় জখম হন। পরে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনার পর বাড়িঘর, পাটকাঠি ও খড়ের গাদায় অগ্নিসংযোগ, ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। এসব হামলা-ভাংচুরের ঘটনায় মহম্মদপুর থানায় তিনটি মামলা হয়েছে বলে পুলিশ জানায়। যার আসামি রয়েছে সাড়ে ৩০০ জন। থানার ওসি তারক বিশ্বাস জানান, এলাকার পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে। বালিদিয়ায় হত্যা, ভাংচুর এবং পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় এ পর্যন্ত ২২ জনকে আটক করা হয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশের সাবেক সদস্য হত্যা

মহম্মদপুরে গ্রেফতার আতঙ্কে পুরুষশূন্য গ্রাম

 মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি 
০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পুলিশের সাবেক এক সদস্য হত্যার ঘটনায় মহম্মদপুর উপজেলার বালিদিয়া গ্রাম এখন আতঙ্কের জনপদ। একদিকে একাধিক মামলায় গ্রেফতার আতঙ্কে পুরুষশূন্য বালিদিয়া গ্রাম, অন্যদিকে প্রতিপক্ষের হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের ভয়ে প্রতিদিনই বাড়ি ছাড়ছে কোনো না কোনো পরিবার। ভয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের অনেকে আশ্রয় নিয়েছে স্বজনবাড়ি। মাঠে কাজ করতে না পারায় বহু ফসলি জমি পরিত্যক্ত পড়ে আছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, বালিদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজ মিনা এবং বালিদিয়া গ্রামের ইউনুস শিকদারের মধ্যে গ্রাম্য দলাদলি ও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ্ব রয়েছে। ওই দ্বন্দ্বের জেরে ইউনুস শিকদার সমর্থক বালিদিয়া গ্রামের পুলিশের সাবেক সদস্য আবু সাঈদ মোল্যা ১৩ জানুয়ারি প্রতিপক্ষের হামলায় জখম হন। পরে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনার পর বাড়িঘর, পাটকাঠি ও খড়ের গাদায় অগ্নিসংযোগ, ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। এসব হামলা-ভাংচুরের ঘটনায় মহম্মদপুর থানায় তিনটি মামলা হয়েছে বলে পুলিশ জানায়। যার আসামি রয়েছে সাড়ে ৩০০ জন। থানার ওসি তারক বিশ্বাস জানান, এলাকার পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে। বালিদিয়ায় হত্যা, ভাংচুর এবং পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় এ পর্যন্ত ২২ জনকে আটক করা হয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন