পিরোজপুর ও কেন্দুয়ায় আহত দু’জনের মৃত্যু

পূর্বধলা বাউফল ও আগৈলঝাড়ায় হামলায় আহত ২৪

  যুগান্তর ডেস্ক ০১ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

পিরোজপুর ও নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় হামলায় আহত দু’জন মারা গেছেন। এদিকে নেত্রকোনার পূর্বধলা, পটুয়াখালীর বাউফল ও বরিশালের আগৈলঝাড়ায় আহত হয়েছেন ২৪ জন। যুগান্তর প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

পিরোজপুর : শহরতলির খানাকুনিয়ারী এলাকায় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত মো. এনায়েত হোসেন মোল্লা চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার খুলনা হাসপাতালে মারা গেছেন। ওইদিন ভোর ৪টায় তিনি মারা যান। নিহত এনায়েত হোসেন পিরোজপুর পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের খানাকুনিয়ারী এলাকার মৃত আ. খালেক মোল্লার ছেলে। জানা যায়, এনায়েত মোল্লার সঙ্গে জমিজমা নিয়ে স্থানীয় খলিল মোল্লার বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে স্থানীয় সালিশ হলে তারা সে জমি পান। এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে রোববার খলিল মোল্লার জামাই জেলা হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্স ড্রাইভার মোতালেব শেখসহ খলিল মোল্লার ছেলে রাসেল মোল্লা, মোতালেব শেখের ছেলে শুভ শেখসহ তাদের সহযোগীরা বাড়িতে প্রবেশ করে এনায়েত মোল্লাকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। এ সময় তার স্ত্রী ও মেয়েকেও আহত করে ঘরের মালামাল ভাংচুর ও লুটপাট চালায়।

নেত্রকোনা : জেলার পূর্বধলার শাহবাজপুর গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধ ও সদর উপজেলার চুচুয়া গ্রামে গৃহবধূকে উত্ত্যক্ত করার জের ধরে সোমবার সন্ধ্যায় পৃথক হামলা-সংঘর্ষে ১৫ জন আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত ফেরদৌস ফকির, নিশিত খান, লাখ মিয়া, আবদুর রশিদ ফকির ও লাল মিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় খোকন মিয়া, শফিক ও কালা চানকে আটক করেছে পূর্বধলা থানা পুলিশ।

কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) : কেন্দুয়ায় ছাগলে শিম গাছ খাওয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত দিলোয়ারা খাতুন মঙ্গলবার মারা গেছেন। নিহত নারী উপজেলার আশুজিয়া ইউনিয়নের স্বল্পনন্দীগাঁয়ের হুমায়ুন কবীরের স্ত্রী। জানা যায়, ২২ জুন হুমায়ুন কবীরের ছাগল একই গ্রামের জাকির মিয়ার শিমগাছের পাতা খেয়ে ফেলে। এ নিয়ে ঝগড়ার একপর্যায়ে জাকির মিয়া ও তার লোকজন হুমায়ুনের বাড়িঘরে হামলা করে। হামলায় হুমায়ুন, তার স্ত্রী দিলোয়ারা, মা আছিয়া ও ছেলে মিজান গুরুতর আহত হন। পরে আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিষয়টি সামাজিকভাবে মীমাংসার জন্য প্রক্রিয়া শুরু হলে আহতরা হাসপাতাল থেকে বৃহস্পতিবার বাড়িতে চলে আসেন। সোমবার রাতে দিলোয়ারা খাতুনের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

বাউফল (পটুয়াখালী) : আধিপত্য নিয়ে বিরোধের জেরে বাউফল সদর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি মোমিনুল হক ও তার বোন শারমিন নাহারকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে বাউফল সদর ইউনিয়নের পশ্চিম বিলবিলাশ গ্রামের গাজীবাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে। মোমিনুলকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও শারমিনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। জানা যায়, বাউফল সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের শ্রমবিষয়ক সম্পাদক জাহিদ হোসেন কালার সঙ্গে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মোমিনুলের আধিপত্য নিয়ে বিরোধ চলছে। মঙ্গলবার সকালে একটি সালিশে উপস্থিত হওয়ার জন্য মোমিনুল সোমবার স্থানীয় বাজারে যাওয়ার পথে জাহিদ হোসেন কালার নেতৃত্বে ৬-৭ জনের একটি দল ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এ খবর পেয়ে বোন শারমিন নাহার ভাইকে বাঁচাতে এগিয়ে এলে তাকেও পিটিয়ে জখম করে তারা। হামলার পর মোমিনুলের ভাতিজা শাহরিয়ার শরীফ চাচাকে উদ্ধার করে নেয়ার জন্য ঘটনাস্থলে গেলে তার মোটরসাইকেলটি আগুনে পুড়িয়ে ফেলা হয়।

আগৈলঝাড়া (বরিশাল) : পুকুরের জায়গা নিয়ে আগৈলঝাড়ায় হামলায় সাতজন আহত হয়েছেন। জানা গেছে, উপজেলার দত্তেরাবাদ গ্রামের হাসান সরদারের সঙ্গে পুকুরের জায়গা নিয়ে আলাম মোল্লার দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। মঙ্গলবার দুপুরে হাসান সরদার ওই বিরোধীয় পুকুরে মাছ ধরতে গেলে বাধা দেন আলাম মোল্লা। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে বাকবিতণ্ডার একপর্যায় সংঘর্ষে হাসান সরদার, শাহ আলম, আলাম মোল্লা, আসমা বেগম ও হাসিনা খানমসহ সাতজন আহত হন।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত