স্কুল পরিচালকসহ ৪ লাশ উদ্ধার
jugantor
স্কুল পরিচালকসহ ৪ লাশ উদ্ধার

  যুগান্তর ডেস্ক  

০১ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

উলিপুরে স্কুল পরিচালক, কমলগঞ্জে কিশোর, মোংলার ভারতের নাগরিক ও মঠবাড়িয়ায় গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। যুগান্তর প্রতিনিধিরা জানান-

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) : প্যারগণ প্রি-ক্যাডেট স্কুলের শ্রেণিকক্ষ থেকে মঙ্গলবার প্রতিষ্ঠান পরিচালক এসএম রওশন সরদারের (৫৭) ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। লাশের পাশ থেকে পুলিশ একটি চিরকুট উদ্ধার করে। রশিতে ঝুলে আত্মহত্যা করলেও তার পা কক্ষের মেঝেতে স্পর্শ করা ছিল। এসএম রওশন সরদার বজরা ইউনিয়নের বজরা সাদুয়া দামার হাট সরদার পাড়া গ্রামের নুরুজ্জামান সরদারের ছেলে।

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) : কমলগঞ্জের সীমান্তবর্তী ইসলামপুর ইউনিয়নের কুরমা চা বাগান ডেম্প (ডোবা) থেকে সচীন নায়েক (১৬) নামের এক কিশোরের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সে কুরমা চা বাগানের মুক্তিযোদ্ধা মোকেশ নায়েকের ছোট ছেলে। রোববার বিকাল থেকে সে নিখোঁজ হলে সোমবার সন্ধ্যা ৬টায় ডেম্প থেকে ভাসমান অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করেন এলাকাবাসী।

মোংলা (বাগেরহাট) : মোংলার কানাইনগর গ্রামে গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় স্বপন মণ্ডল নামে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই ব্যক্তি ভারতের নাগরিক বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। স্থানীয়রা জানান, স্বপন মণ্ডল প্রায় ৩ মাস আগে মোংলায় পৈতৃক বাড়িতে বেড়াতে এসে করোনার লকডাউনে আটকে পড়েন। আর দীর্ঘ সময় আত্মীয় স্বজনদের বাড়িতে অবস্থানকালে ছোট ভাই অশোক ও চাচা করুন মণ্ডলের সঙ্গে জমি বিক্রয় নিয়ে বিরোধে জড়িয়ে পড়েন। এ নিয়ে কয়েক দফায় সালিশ বৈঠকও বসে এলাকায়। এ অবস্থায় সোমবার দিনগত গভীর রাতে মামা জীতেন গোস্বামীর বাড়ি থেকে নিখোঁজ হওয়ার পর সকালে কানাইনগর কালীমন্দির সংলগ্ন সুরেশ বিশ্বাসের বাড়ির আঙ্গীনায় একটি গাছের সঙ্গে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন স্থানীয়রা।

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) : মঠবাড়িয়ায় সোমবার রাতে সাকিলা বেগম নামে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সাকিলা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড মিরুখালী রোড এলাকার মন্নান বিডিআরের ছেলে মো. হাসান ঘরামীর স্ত্রী। তিনি পার্শ্ববর্তী উপজেলার হরিণপালা গ্রামের কাইয়ুম হাওলাদারের মেয়ে। ওই দম্পত্তির ৮ মাসের একটি কন্যাসন্তান রয়েছে। সাকিলার ভাই লোকমান হোসেন বলেন, আমার বোনের স্বামী সৌদি ফেরত হাসান মাদকাসক্ত হওয়ায় আমার বোনের সঙ্গে এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে প্রায়ই কলহ বেধে থাকত। আমাদের ধারণা, হাসান আমার বোনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে।

স্কুল পরিচালকসহ ৪ লাশ উদ্ধার

 যুগান্তর ডেস্ক 
০১ জুলাই ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

উলিপুরে স্কুল পরিচালক, কমলগঞ্জে কিশোর, মোংলার ভারতের নাগরিক ও মঠবাড়িয়ায় গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। যুগান্তর প্রতিনিধিরা জানান-

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) : প্যারগণ প্রি-ক্যাডেট স্কুলের শ্রেণিকক্ষ থেকে মঙ্গলবার প্রতিষ্ঠান পরিচালক এসএম রওশন সরদারের (৫৭) ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। লাশের পাশ থেকে পুলিশ একটি চিরকুট উদ্ধার করে। রশিতে ঝুলে আত্মহত্যা করলেও তার পা কক্ষের মেঝেতে স্পর্শ করা ছিল। এসএম রওশন সরদার বজরা ইউনিয়নের বজরা সাদুয়া দামার হাট সরদার পাড়া গ্রামের নুরুজ্জামান সরদারের ছেলে।

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) : কমলগঞ্জের সীমান্তবর্তী ইসলামপুর ইউনিয়নের কুরমা চা বাগান ডেম্প (ডোবা) থেকে সচীন নায়েক (১৬) নামের এক কিশোরের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সে কুরমা চা বাগানের মুক্তিযোদ্ধা মোকেশ নায়েকের ছোট ছেলে। রোববার বিকাল থেকে সে নিখোঁজ হলে সোমবার সন্ধ্যা ৬টায় ডেম্প থেকে ভাসমান অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করেন এলাকাবাসী।

মোংলা (বাগেরহাট) : মোংলার কানাইনগর গ্রামে গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় স্বপন মণ্ডল নামে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই ব্যক্তি ভারতের নাগরিক বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। স্থানীয়রা জানান, স্বপন মণ্ডল প্রায় ৩ মাস আগে মোংলায় পৈতৃক বাড়িতে বেড়াতে এসে করোনার লকডাউনে আটকে পড়েন। আর দীর্ঘ সময় আত্মীয় স্বজনদের বাড়িতে অবস্থানকালে ছোট ভাই অশোক ও চাচা করুন মণ্ডলের সঙ্গে জমি বিক্রয় নিয়ে বিরোধে জড়িয়ে পড়েন। এ নিয়ে কয়েক দফায় সালিশ বৈঠকও বসে এলাকায়। এ অবস্থায় সোমবার দিনগত গভীর রাতে মামা জীতেন গোস্বামীর বাড়ি থেকে নিখোঁজ হওয়ার পর সকালে কানাইনগর কালীমন্দির সংলগ্ন সুরেশ বিশ্বাসের বাড়ির আঙ্গীনায় একটি গাছের সঙ্গে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন স্থানীয়রা।

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) : মঠবাড়িয়ায় সোমবার রাতে সাকিলা বেগম নামে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সাকিলা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড মিরুখালী রোড এলাকার মন্নান বিডিআরের ছেলে মো. হাসান ঘরামীর স্ত্রী। তিনি পার্শ্ববর্তী উপজেলার হরিণপালা গ্রামের কাইয়ুম হাওলাদারের মেয়ে। ওই দম্পত্তির ৮ মাসের একটি কন্যাসন্তান রয়েছে। সাকিলার ভাই লোকমান হোসেন বলেন, আমার বোনের স্বামী সৌদি ফেরত হাসান মাদকাসক্ত হওয়ায় আমার বোনের সঙ্গে এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে প্রায়ই কলহ বেধে থাকত। আমাদের ধারণা, হাসান আমার বোনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন