দশমিনায় ২০ বছরেও নির্মিত হয়নি সেতু
jugantor
দশমিনায় ২০ বছরেও নির্মিত হয়নি সেতু

  দশমিনা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি  

১১ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দশমিনা উপজেলার আলীপুর ইউনিয়নের সুতাবাড়িয়া নদীতে ২০ বছর আগে সেতু নির্মাণ কাজ শুরু হলেও অজ্ঞাত কারণে তা বন্ধ হয়ে যায়। কিন্তু সেতুটি এখনও নির্মাণ না হওয়ায় এলাকার অন্তত ৩০ হাজার মানুষকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। গুরুত্বপূর্ণ এ সেতুটি নির্মাণের দাবিতে এলাকাবাসী মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। জানা গেছে, সাবেক বস্ত্র প্রতিমন্ত্রী কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন পটুয়াখালী-৩ (দশমিনা-গলাচিপা) আসনে এমপি থাকাকালীন ২০০০ সালের ৯ অক্টোবর সেতুটি নির্মাণের জন্য ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের পর দ্রুত কাজ শুরু হয়। কিন্তু রাজনৈতিক পটপরিবর্তনের পর বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার ক্ষমতায় এলে হঠাৎ বন্ধ হয়ে যায় সেতুর নির্মাণ কাজ। তখনকার আওয়ামী লীগ সরকার এক কোটি ৬০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয় সেতুটি নির্মাণের জন্য। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার ক্ষমতায় এসে সেতুর অর্থ বরাদ্দ বন্ধ করে দেয়। এর আগে সেতুর কিছু কাজ সম্পন্ন করে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান প্রায় ৩৫ লাখ টাকা রানিং বিল করে তুলে নেয়। ২০১৮ সালের ২০ জুন তৎকালীন সংসদ সদস্য আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন এবং এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ দ্বিতীয় দফায় ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের মাধ্যমে সেতুটির নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন। কিন্তু প্রায় দু’বছর অতিবাহিত হয়ে গেলেও এখনও এ সেতুটির নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়নি। দীর্ঘ ২০ বছর সেতুর কাজ বন্ধ থাকায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এলাকার প্রায় ৩০ হাজার মানুষকে। এছাড়া দশমিনা-গলাচিপার সংযোগ সড়কের জন্য সেতুটির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। দীর্ঘ ২০ বছরেও সেতুর কাজ শেষ না হওয়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হলে তারা সেতুটি নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধনসহ আন্দোলন সংগ্রাম অব্যাহত রাখেন। গুরুত্বপূর্ণ এ সেতুটির কাজ বন্ধ থাকায় নদীর দু’পারের পূর্ব আলীপুর ও পশ্চিম আলীপুর এলাকার হাজার হাজার মানুষকে প্রতিদিন নৌকায় করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সুতাবাড়িয়া নদী পারাপার হতে হচ্ছে। সেতুর অভাবে স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। আলীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাদশা ফয়সাল জানান, শুধু রাজনৈতিক পালাবদলের কারণে গুরুত্বপূর্ণ এ সেতুর কাজ বন্ধ করে দেয় তৎকালীন বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার। এলজিইডির দশমিনা উপজেলা প্রকৌশলী মো. জাহাঙ্গীর আলমের কাছে জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেন না বলে জানান।

দশমিনায় ২০ বছরেও নির্মিত হয়নি সেতু

 দশমিনা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি 
১১ জুলাই ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দশমিনা উপজেলার আলীপুর ইউনিয়নের সুতাবাড়িয়া নদীতে ২০ বছর আগে সেতু নির্মাণ কাজ শুরু হলেও অজ্ঞাত কারণে তা বন্ধ হয়ে যায়। কিন্তু সেতুটি এখনও নির্মাণ না হওয়ায় এলাকার অন্তত ৩০ হাজার মানুষকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। গুরুত্বপূর্ণ এ সেতুটি নির্মাণের দাবিতে এলাকাবাসী মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। জানা গেছে, সাবেক বস্ত্র প্রতিমন্ত্রী কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন পটুয়াখালী-৩ (দশমিনা-গলাচিপা) আসনে এমপি থাকাকালীন ২০০০ সালের ৯ অক্টোবর সেতুটি নির্মাণের জন্য ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের পর দ্রুত কাজ শুরু হয়। কিন্তু রাজনৈতিক পটপরিবর্তনের পর বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার ক্ষমতায় এলে হঠাৎ বন্ধ হয়ে যায় সেতুর নির্মাণ কাজ। তখনকার আওয়ামী লীগ সরকার এক কোটি ৬০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয় সেতুটি নির্মাণের জন্য। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার ক্ষমতায় এসে সেতুর অর্থ বরাদ্দ বন্ধ করে দেয়। এর আগে সেতুর কিছু কাজ সম্পন্ন করে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান প্রায় ৩৫ লাখ টাকা রানিং বিল করে তুলে নেয়। ২০১৮ সালের ২০ জুন তৎকালীন সংসদ সদস্য আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন এবং এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ দ্বিতীয় দফায় ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের মাধ্যমে সেতুটির নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন। কিন্তু প্রায় দু’বছর অতিবাহিত হয়ে গেলেও এখনও এ সেতুটির নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়নি। দীর্ঘ ২০ বছর সেতুর কাজ বন্ধ থাকায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এলাকার প্রায় ৩০ হাজার মানুষকে। এছাড়া দশমিনা-গলাচিপার সংযোগ সড়কের জন্য সেতুটির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। দীর্ঘ ২০ বছরেও সেতুর কাজ শেষ না হওয়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হলে তারা সেতুটি নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধনসহ আন্দোলন সংগ্রাম অব্যাহত রাখেন। গুরুত্বপূর্ণ এ সেতুটির কাজ বন্ধ থাকায় নদীর দু’পারের পূর্ব আলীপুর ও পশ্চিম আলীপুর এলাকার হাজার হাজার মানুষকে প্রতিদিন নৌকায় করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সুতাবাড়িয়া নদী পারাপার হতে হচ্ছে। সেতুর অভাবে স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। আলীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাদশা ফয়সাল জানান, শুধু রাজনৈতিক পালাবদলের কারণে গুরুত্বপূর্ণ এ সেতুর কাজ বন্ধ করে দেয় তৎকালীন বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার। এলজিইডির দশমিনা উপজেলা প্রকৌশলী মো. জাহাঙ্গীর আলমের কাছে জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেন না বলে জানান।