বাঁশখালীতে তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা : ঘাতক আটক
jugantor
বাঁশখালীতে তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা : ঘাতক আটক

  বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি  

০৯ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাঁশখালী উপজেলার পূর্ব বৈলছড়ি এলাকায় ছেনুয়ারা বেগম (৩২) নামে তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় সাবেক স্বামী আবদুর রশিদকে আটক করেছে পুলিশ। ৩ জুলাই সংঘটিত এ ঘটনায় ৬ জুলাই নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে বাঁশখালী থানায় মামলা করা হয়। জানা গেছে, উপজেলার পূর্ব বৈলছড়ি ৩নং ওয়ার্ড এলাকার মৃত ছাবের আহমদের ছেলে আবদুর রশিদের সঙ্গে দীর্ঘ ১৪ বছর আগে বিয়ে হয় একই এলাকার ছালেহ আহমদের মেয়ে ছেনুয়ারা বেগমের। তাদের সংসারে ২ ছেলে ও ২ মেয়ে রয়েছে। এরই মধ্যে পারিবারিক মনোমালিন্যের জের ধরে ১ বছর আগে ছেনুয়ারা বেগমকে তালাক দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেয় তার স্বামী আবদুর রশিদ। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার সালিশি বৈঠক হলেও আবদুর রশিদ দেনমোহরের বকেয়া টাকা পরিশোধ না করে হুমকি-ধমকি দেয় ছেনুয়ারা বেগমকে। বকেয়া দেনমোহরের টাকা দাবি করায় ৩ জুলাই ছেনুয়ারা বেগমের বাড়িতে এসে তাকে দা দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে গুরুতর জখমপ্রাপ্ত করে আবদুর রশিদ। এ সময় ছেনুয়ারা বেগমকে উদ্ধার করতে এসে হামলার শিকার হয় তার ছেলে জাহাঙ্গীর। গুরুতর আহত ছেনোয়ারা বেগমকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করলেও বৃহস্পতিবার দুপুরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এ ঘটনায় ছেনোয়ারা বেগমের ছোট ভাই রেজাউল করিম বাদী হয়ে আবদুর রশিদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করলে তাৎক্ষণিকভাবে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে পুলিশ।

বাঁশখালীতে তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা : ঘাতক আটক

 বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 
০৯ আগস্ট ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাঁশখালী উপজেলার পূর্ব বৈলছড়ি এলাকায় ছেনুয়ারা বেগম (৩২) নামে তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় সাবেক স্বামী আবদুর রশিদকে আটক করেছে পুলিশ। ৩ জুলাই সংঘটিত এ ঘটনায় ৬ জুলাই নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে বাঁশখালী থানায় মামলা করা হয়। জানা গেছে, উপজেলার পূর্ব বৈলছড়ি ৩নং ওয়ার্ড এলাকার মৃত ছাবের আহমদের ছেলে আবদুর রশিদের সঙ্গে দীর্ঘ ১৪ বছর আগে বিয়ে হয় একই এলাকার ছালেহ আহমদের মেয়ে ছেনুয়ারা বেগমের। তাদের সংসারে ২ ছেলে ও ২ মেয়ে রয়েছে। এরই মধ্যে পারিবারিক মনোমালিন্যের জের ধরে ১ বছর আগে ছেনুয়ারা বেগমকে তালাক দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেয় তার স্বামী আবদুর রশিদ। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার সালিশি বৈঠক হলেও আবদুর রশিদ দেনমোহরের বকেয়া টাকা পরিশোধ না করে হুমকি-ধমকি দেয় ছেনুয়ারা বেগমকে। বকেয়া দেনমোহরের টাকা দাবি করায় ৩ জুলাই ছেনুয়ারা বেগমের বাড়িতে এসে তাকে দা দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে গুরুতর জখমপ্রাপ্ত করে আবদুর রশিদ। এ সময় ছেনুয়ারা বেগমকে উদ্ধার করতে এসে হামলার শিকার হয় তার ছেলে জাহাঙ্গীর। গুরুতর আহত ছেনোয়ারা বেগমকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করলেও বৃহস্পতিবার দুপুরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এ ঘটনায় ছেনোয়ারা বেগমের ছোট ভাই রেজাউল করিম বাদী হয়ে আবদুর রশিদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করলে তাৎক্ষণিকভাবে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে পুলিশ।