বাকেরগঞ্জে ফের মেয়র হতে চান লোকমান হোসেন
jugantor
বাকেরগঞ্জে ফের মেয়র হতে চান লোকমান হোসেন

  যুগান্তর রিপোর্ট, বাকেরগঞ্জ  

২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

লোকমান হোসেন

বাকেরগঞ্জ আওয়ামী লীগের দুঃসময়ের কাণ্ডারি মেয়র লোকমান হোসেনকে আবারও মেয়র হিসেবে দেখতে চান তৃণমূলের নেতাকর্মীরা।

সুখী সমৃদ্ধিশালী আধুনিক বাকেরগঞ্জ উপজেলা গড়ার স্বপ্নপুরুষ তিনি- এমন দাবি তার সমর্থকদের। দলীয় সূত্র জানায়, জাতির পিতার আদর্শিক রাজনীতিতে অনুপ্রাণিত হয়ে তিনি ছাত্রলীগে যোগ দেন।

১৯৮৪ সালে তিনি বাকেরগঞ্জ জেএসইউ মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি হন। ১৯৯২ সালে সরকারি বাকেরগঞ্জ কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি নির্বাচিত হন। পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাসুদ আকন বলেন, ২০০১ সালের পরে বাকেরগঞ্জে আওয়ামী লীগের অভিভাবকের ভূমিকায় লোকমান হোসেন। কর্মীদের সমস্যায় ছুটে যান তিনি।

২০১১ সালে প্রথম মেয়র নির্বাচিত হন। ২০১২ সালে বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেয়া হয়। অবহেলিত পৌরসভাকে দ্বিতিয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হয়ে বি-গ্রেড থেকে এ-গ্রেডে উন্নীত করেছেন।

শুধু পৌরসভাই নয় এখন পুরো উপজেলা জুড়েই তৈরি হয়েছে লোকমান হোসেন ডাকুয়ার রাজনৈতিক শক্তবলয়। ২০১৯ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো দলের উপজেলা সম্পাদক হন। জানা যায়, ১৯৮৯ সালে স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে দীর্ঘদিন কারাবরণ ও ১৯৯২ সালে বিএনপি-জামায়াতের রোষানলে পড়ে দীর্ঘদিন বিশেষ ক্ষমতা আইনে (ডিটেনশনে) ছিলেন।

বাকেরগঞ্জে ফের মেয়র হতে চান লোকমান হোসেন

 যুগান্তর রিপোর্ট, বাকেরগঞ্জ 
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
লোকমান হোসেন
বাকেরগঞ্জের মেয়র লোকমান হোসেন

বাকেরগঞ্জ আওয়ামী লীগের দুঃসময়ের কাণ্ডারি মেয়র লোকমান হোসেনকে আবারও মেয়র হিসেবে দেখতে চান তৃণমূলের নেতাকর্মীরা।

সুখী সমৃদ্ধিশালী আধুনিক বাকেরগঞ্জ উপজেলা গড়ার স্বপ্নপুরুষ তিনি- এমন দাবি তার সমর্থকদের। দলীয় সূত্র জানায়, জাতির পিতার আদর্শিক রাজনীতিতে অনুপ্রাণিত হয়ে তিনি ছাত্রলীগে যোগ দেন।

১৯৮৪ সালে তিনি বাকেরগঞ্জ জেএসইউ মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি হন। ১৯৯২ সালে সরকারি বাকেরগঞ্জ কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি নির্বাচিত হন। পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাসুদ আকন বলেন, ২০০১ সালের পরে বাকেরগঞ্জে আওয়ামী লীগের অভিভাবকের ভূমিকায় লোকমান হোসেন। কর্মীদের সমস্যায় ছুটে যান তিনি।

২০১১ সালে প্রথম মেয়র নির্বাচিত হন। ২০১২ সালে বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেয়া হয়। অবহেলিত পৌরসভাকে দ্বিতিয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হয়ে বি-গ্রেড থেকে এ-গ্রেডে উন্নীত করেছেন।

শুধু পৌরসভাই নয় এখন পুরো উপজেলা জুড়েই তৈরি হয়েছে লোকমান হোসেন ডাকুয়ার রাজনৈতিক শক্তবলয়। ২০১৯ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো দলের উপজেলা সম্পাদক হন। জানা যায়, ১৯৮৯ সালে স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে দীর্ঘদিন কারাবরণ ও ১৯৯২ সালে বিএনপি-জামায়াতের রোষানলে পড়ে দীর্ঘদিন বিশেষ ক্ষমতা আইনে (ডিটেনশনে) ছিলেন।