মদনে সরকারি বিলের মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়
jugantor
মদনে সরকারি বিলের মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়

  মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি  

০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মদনে সরকারি বিলের মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়

জরিমানা করার পরেও নেত্রকোনার মদন উপজেলার নায়েকপুর ইউনিয়নের আখাশ্রী গ্রামের সামনে এরন বিলের মাটি অবৈধভাবে উত্তোলন করে ইটভাটায় নিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে এলাকার জনসাধারণের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

জানা যায়, আখাশ্রী গ্রামের সরকারি এরন বিল থেকে অবৈধভাবে মাটি উত্তোলন করায় বালু মহাল ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ১৫ (১) ধারায় ৬ জানুয়ারি, বুধবার ভ্রাম্যমাণ আদালতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহেদ ব্রিকসকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

জরিমানা করায় কিছুদিন মাটি উত্তোলন বন্ধ থাকলেও পুনরায় বেপরোয়াভাবে মাটি উত্তোলন করে নিয়ে যাচ্ছে ওয়াহেদ ব্রিকস। এতে প্রভাবশালীরা সরকারি এরন বিল দখলে নেয়ার পাঁয়তারা চালাচ্ছে।

এমন অভিযোগের ভিত্তিতে মঙ্গলবার সরেজমিন গেলে দেখা যায়, এক্সকেভেটর দিয়ে মাটি কেটে গাড়ি বোঝাই করে মাটি নিয়ে যাচ্ছে ওয়াহেদ ব্রিকসে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ওয়াহেদ ব্রিকসের মালিক আব্দুল ওয়াহেদ জানান, আমি মাটি কাটার সর্দার মহিউদ্দিনের নিকট থেকে মাটি কিনেছি।

সে কোথা থেকে মাটি দিচ্ছে তা আমার জানার প্রয়োজন নাই। জরিমানার বিষয়ে জানতে চাইলে নতুন ইউএনও না বুঝে আমাকে জরিমানা করেছিল। মাটি দেয়ার সর্দার মহিউদ্দিন জানান, বাস্তা গ্রামের রুবেলের কাছ থেকে মাটি কিনে ওয়াহেদ ব্রিকসে দিচ্ছি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন এলাকাবাসী জানান, প্রভাবশালী ইটভাটার মালিক ওয়াহেদ মিয়া এলাকাবাসীর অভিযোগের পরও কাটাইল বাজার সংলগ্ন, স্কুল, মাদ্রাসা, মসজিদ ও মদন-তাড়াইল মূল সড়কের পাশে ইটভাটা বসিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করছেন।

কয়েকদিন আগে অবৈধভাবে এরন বিল থেকে মাটি উত্তোলন করায় প্রশাসন ৫০ হাজার টাকা এই ব্রিকসকে জরিমানা করেন। এর কয়েকদিন পর থেকে আবারও বেপরোয়াভাবে ওই স্থান থেকে ব্রিকসে মাটি আনা হচ্ছে। ইউএনও মো. বুলবুল আহমেদ জানান, ওয়াহেদ ব্রিকস যদি পুনরায় এরন বিল থেকে মাটি উত্তোলন করে তাহলে দ্রুত এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মদনে সরকারি বিলের মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়

 মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি 
০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
মদনে সরকারি বিলের মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়
ফাইল ছবি

জরিমানা করার পরেও নেত্রকোনার মদন উপজেলার নায়েকপুর ইউনিয়নের আখাশ্রী গ্রামের সামনে এরন বিলের মাটি অবৈধভাবে উত্তোলন করে ইটভাটায় নিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে এলাকার জনসাধারণের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

জানা যায়, আখাশ্রী গ্রামের সরকারি এরন বিল থেকে অবৈধভাবে মাটি উত্তোলন করায় বালু মহাল ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ১৫ (১) ধারায় ৬ জানুয়ারি, বুধবার ভ্রাম্যমাণ আদালতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহেদ ব্রিকসকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

জরিমানা করায় কিছুদিন মাটি উত্তোলন বন্ধ থাকলেও পুনরায় বেপরোয়াভাবে মাটি উত্তোলন করে নিয়ে যাচ্ছে ওয়াহেদ ব্রিকস। এতে প্রভাবশালীরা সরকারি এরন বিল দখলে নেয়ার পাঁয়তারা চালাচ্ছে।

এমন অভিযোগের ভিত্তিতে মঙ্গলবার সরেজমিন গেলে দেখা যায়, এক্সকেভেটর দিয়ে মাটি কেটে গাড়ি বোঝাই করে মাটি নিয়ে যাচ্ছে ওয়াহেদ ব্রিকসে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ওয়াহেদ ব্রিকসের মালিক আব্দুল ওয়াহেদ জানান, আমি মাটি কাটার সর্দার মহিউদ্দিনের নিকট থেকে মাটি কিনেছি।

সে কোথা থেকে মাটি দিচ্ছে তা আমার জানার প্রয়োজন নাই। জরিমানার বিষয়ে জানতে চাইলে নতুন ইউএনও না বুঝে আমাকে জরিমানা করেছিল। মাটি দেয়ার সর্দার মহিউদ্দিন জানান, বাস্তা গ্রামের রুবেলের কাছ থেকে মাটি কিনে ওয়াহেদ ব্রিকসে দিচ্ছি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন এলাকাবাসী জানান, প্রভাবশালী ইটভাটার মালিক ওয়াহেদ মিয়া এলাকাবাসীর অভিযোগের পরও কাটাইল বাজার সংলগ্ন, স্কুল, মাদ্রাসা, মসজিদ ও মদন-তাড়াইল মূল সড়কের পাশে ইটভাটা বসিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করছেন।

কয়েকদিন আগে অবৈধভাবে এরন বিল থেকে মাটি উত্তোলন করায় প্রশাসন ৫০ হাজার টাকা এই ব্রিকসকে জরিমানা করেন। এর কয়েকদিন পর থেকে আবারও বেপরোয়াভাবে ওই স্থান থেকে ব্রিকসে মাটি আনা হচ্ছে। ইউএনও মো. বুলবুল আহমেদ জানান, ওয়াহেদ ব্রিকস যদি পুনরায় এরন বিল থেকে মাটি উত্তোলন করে তাহলে দ্রুত এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন