নাটোরে শিশুর জন্ম নিবন্ধনে বাবা-মা পাচ্ছেন উপহার
jugantor
নাটোরে শিশুর জন্ম নিবন্ধনে বাবা-মা পাচ্ছেন উপহার

  যুগান্তর প্রতিবেদন, নাটোর  

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

শিশু জন্ম নেওয়ার দুই-একদিনের মধ্যে ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) জন্ম নিবন্ধন করলেই বাবা-মাকে দেওয়া হচ্ছে কম্বল বা চাদর ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাস্ক, সাবানসহ নানা উপহার। সঠিক সময়ে সন্তানের জন্ম নিবন্ধনে উৎসাহিত করতেই এমন উদ্যোগ নিয়েছেন নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার এক নম্বর ব্রহ্মপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. হাফিজুর রহমান বাবু। শিশুদের জন্ম নিবন্ধন করতে উৎসাহিত হচ্ছেন অভিভাবকরা। তাই সন্তান ভূমিষ্ঠ হওয়ার দুই-একদিনের মধ্যেই জন্ম নিবন্ধনের জন্য ইউনিয়ন পরিষদে আসছেন বাবা-মায়েরা। চেয়ারম্যান মো. হাফিজুর রহমান বাবু বলেন, শিশু ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর অনেক বাবা-মা তাদের সন্তানের জন্ম নিবন্ধনে আগ্রহী হন না। অনেকেই বিষয়টি নিয়ে গাফিলতি করেন। অথচ জন্ম নিবন্ধন একটি শিশুর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তাই বিষয়টি মাথায় রেখে এবং শিশুদের বাবা-মাকে তাদের সন্তানের সঠিক সময়ে জন্মনিবন্ধনে উৎসাহিত করতে এমন উদ্যোগ নিয়েছি। এদিকে, ব্রহ্মপুর ইউনিয়ন পরিষদের এক নম্বর ওয়ার্ডের ভ্যানচালক মো. গোলাম মোস্তফা জানান, দুদিনের নবজাতকের জন্ম নিবন্ধন করায় চেয়ারম্যান তাকে একটি কম্বল ও করোনার সুরক্ষা সামগ্রী উপহার দিয়েছেন। এতে তিনি খুব খুশি। উপহার পেয়েছেন সাত নম্বর ওয়ার্ডের হলুদঘর গ্রামের ভ্যানচালক জালালও। তিনি বলেন, আমিও চারদিনের বাচ্চার জন্ম নিবন্ধন করতে ইউনিয়ন পরিষদে গিয়েছিলাম। সঠিক সময়ে নিবন্ধন করায় চেয়ারম্যান আমাকে একটি চাদর ও বিভিন্ন সুরক্ষা সামগ্রী উপহার দিয়েছেন।

নাটোরে শিশুর জন্ম নিবন্ধনে বাবা-মা পাচ্ছেন উপহার

 যুগান্তর প্রতিবেদন, নাটোর 
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

শিশু জন্ম নেওয়ার দুই-একদিনের মধ্যে ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) জন্ম নিবন্ধন করলেই বাবা-মাকে দেওয়া হচ্ছে কম্বল বা চাদর ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাস্ক, সাবানসহ নানা উপহার। সঠিক সময়ে সন্তানের জন্ম নিবন্ধনে উৎসাহিত করতেই এমন উদ্যোগ নিয়েছেন নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার এক নম্বর ব্রহ্মপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. হাফিজুর রহমান বাবু। শিশুদের জন্ম নিবন্ধন করতে উৎসাহিত হচ্ছেন অভিভাবকরা। তাই সন্তান ভূমিষ্ঠ হওয়ার দুই-একদিনের মধ্যেই জন্ম নিবন্ধনের জন্য ইউনিয়ন পরিষদে আসছেন বাবা-মায়েরা। চেয়ারম্যান মো. হাফিজুর রহমান বাবু বলেন, শিশু ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর অনেক বাবা-মা তাদের সন্তানের জন্ম নিবন্ধনে আগ্রহী হন না। অনেকেই বিষয়টি নিয়ে গাফিলতি করেন। অথচ জন্ম নিবন্ধন একটি শিশুর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তাই বিষয়টি মাথায় রেখে এবং শিশুদের বাবা-মাকে তাদের সন্তানের সঠিক সময়ে জন্মনিবন্ধনে উৎসাহিত করতে এমন উদ্যোগ নিয়েছি। এদিকে, ব্রহ্মপুর ইউনিয়ন পরিষদের এক নম্বর ওয়ার্ডের ভ্যানচালক মো. গোলাম মোস্তফা জানান, দুদিনের নবজাতকের জন্ম নিবন্ধন করায় চেয়ারম্যান তাকে একটি কম্বল ও করোনার সুরক্ষা সামগ্রী উপহার দিয়েছেন। এতে তিনি খুব খুশি। উপহার পেয়েছেন সাত নম্বর ওয়ার্ডের হলুদঘর গ্রামের ভ্যানচালক জালালও। তিনি বলেন, আমিও চারদিনের বাচ্চার জন্ম নিবন্ধন করতে ইউনিয়ন পরিষদে গিয়েছিলাম। সঠিক সময়ে নিবন্ধন করায় চেয়ারম্যান আমাকে একটি চাদর ও বিভিন্ন সুরক্ষা সামগ্রী উপহার দিয়েছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন