দক্ষিণ সুনামগঞ্জে পারিবারিক বিরোধে চাচা-ভাতিজা নিহত
jugantor
দক্ষিণ সুনামগঞ্জে পারিবারিক বিরোধে চাচা-ভাতিজা নিহত
ভোলা, গলাচিপা ও আগৈলঝাড়ায় আহত ১৮

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৯ এপ্রিল ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় জমি নিয়ে পারিবারিক বিরোধে সংঘর্ষে চাচা-ভাতিজা নিহত হয়েছেন। এছাড়া ভোলা, পটুয়াখালীর গলাচিপা ও বরিশালের আগৈলঝাড়ায় আহত হয়েছেন ১৮ জন। যুগান্তর প্রতিবেদন ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

সুনামগঞ্জ : দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার ডুংরিয়া গ্রামে জমি নিয়ে পারিবারিক বিরোধে সংঘর্ষে চাচা-ভাতিজা নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরও দুজন। নিহতরা হলেন আব্দুল তাহিদ ও রিপন মিয়া। জানা যায়, উপজেলার ডুংরিয়া গ্রামে জমিজমা নিয়ে ওসমান মিয়ার ছেলে আব্দুল তাহিদের সঙ্গে তার ভাই রাফিদ মিয়ার ছেলে রিপন মিয়ার বিরোধ ছিল। এ বিরোধের জের ধরে বৃহস্পতিবার সকালে চাচা-ভাতিজার মধ্যে ঝগড়ার এক পর্যায়ে উভয় পরিবারের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে আব্দুল তাহিদ ও রিপন মিয়া গুরুতর আহত হন। পরে তাদের সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুজনকেই মৃত ঘোষণা করেন।

ভোলা : সদর উপজেলার রতনপুর গ্রামে তুচ্ছ ঘটনায় মো. শাজাহান নামে এক বৃদ্ধকে পিটিয়ে হাত ভেঙে দিয়েছে প্রতিপক্ষ। এছাড়া প্রতিপক্ষের হামলায় ওই বৃদ্ধের পুত্রবধূ আঁখি বেগমসহ আরও চারজন গুরুতর আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকালে আহত বৃদ্ধ শাজাহান অভিযোগ করে বলেন, একই বাড়ির ফারজানা বেগমের সঙ্গে তার পুত্রবধূর দেড় বছরের শিশুর খেলাধুলাকে কেন্দ্র করে রোববার কথাকাটাকাটি হয়। পরদিন সোমবার সকালে তিনি তার মুদি দোকান খুলে বসার পর স্থানীয় মাইনউদ্দিনের নেতৃত্বে কাজল, শামিম, মহসিন আবদুল্লাহ ও আকবর তার দোকানে হামলা চালিয়ে তাকে পিটিয়ে আহত করে হাত ভেঙে দোকানের নগদ ৯৫ হাজার টাকা ও মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এ সময় তার পুত্রবধূসহ পরিবারের কয়েকজন বাধা দিতে এলে তাদেরও পিটিয়ে আহত করা হয়।

গলাচিপা (পটুয়াখালী) : গলাচিপায় সংঘর্ষে পাঁচজন আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন মো. অপু কাজী, মহাসিন হাওলাদার, আল-আমিন কাজী, সালমা বেগম ও খোকন মৃধা। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার গ্রামর্দ্দন গ্রামে। জানা যায়, মাদক সেবন ও পূর্বশত্রুতার জের ধরে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এ ব্যাপারে আহত মহসিন হাওলাদার বলেন, মঙ্গলবার রাতে তার দোকানের সামনে প্রতিপক্ষের রাব্বি ও রুবেল নেশাদ্রব্য সেবন করলে তাতে বাধা দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের মারধর করে।

আগৈলঝাড়া (বরিশাল) : আগৈলঝাড়ায় জমি নিয়ে বিরোধে হামলা সংঘর্ষে আটজন আহত হয়েছেন। জানা গেছে, উপজেলার মাগুরা গ্রামে মনির মোল্লার সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বাড়ির জায়গা নিয়ে বিরোধ চলছে একই এলাকার হালিম সরদারের। বৃহস্পতিবার সকালে ওই জমির মালিকানা

দাবি করে মনির মোল্লা গাছের ডাল কাটতে গেলে প্রতিপক্ষ হালিম সরদার বাধা দেন। এ নিয়ে উভয়পক্ষে সংঘর্ষে

আনিচ মিয়া, হালিম সরদার, মনির মোল্লা, হামিদা বেগম, মরিয়ম খানমসহ আটজন আহত হন।

দক্ষিণ সুনামগঞ্জে পারিবারিক বিরোধে চাচা-ভাতিজা নিহত

ভোলা, গলাচিপা ও আগৈলঝাড়ায় আহত ১৮
 যুগান্তর ডেস্ক 
০৯ এপ্রিল ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় জমি নিয়ে পারিবারিক বিরোধে সংঘর্ষে চাচা-ভাতিজা নিহত হয়েছেন। এছাড়া ভোলা, পটুয়াখালীর গলাচিপা ও বরিশালের আগৈলঝাড়ায় আহত হয়েছেন ১৮ জন। যুগান্তর প্রতিবেদন ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

সুনামগঞ্জ : দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার ডুংরিয়া গ্রামে জমি নিয়ে পারিবারিক বিরোধে সংঘর্ষে চাচা-ভাতিজা নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরও দুজন। নিহতরা হলেন আব্দুল তাহিদ ও রিপন মিয়া। জানা যায়, উপজেলার ডুংরিয়া গ্রামে জমিজমা নিয়ে ওসমান মিয়ার ছেলে আব্দুল তাহিদের সঙ্গে তার ভাই রাফিদ মিয়ার ছেলে রিপন মিয়ার বিরোধ ছিল। এ বিরোধের জের ধরে বৃহস্পতিবার সকালে চাচা-ভাতিজার মধ্যে ঝগড়ার এক পর্যায়ে উভয় পরিবারের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে আব্দুল তাহিদ ও রিপন মিয়া গুরুতর আহত হন। পরে তাদের সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুজনকেই মৃত ঘোষণা করেন।

ভোলা : সদর উপজেলার রতনপুর গ্রামে তুচ্ছ ঘটনায় মো. শাজাহান নামে এক বৃদ্ধকে পিটিয়ে হাত ভেঙে দিয়েছে প্রতিপক্ষ। এছাড়া প্রতিপক্ষের হামলায় ওই বৃদ্ধের পুত্রবধূ আঁখি বেগমসহ আরও চারজন গুরুতর আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকালে আহত বৃদ্ধ শাজাহান অভিযোগ করে বলেন, একই বাড়ির ফারজানা বেগমের সঙ্গে তার পুত্রবধূর দেড় বছরের শিশুর খেলাধুলাকে কেন্দ্র করে রোববার কথাকাটাকাটি হয়। পরদিন সোমবার সকালে তিনি তার মুদি দোকান খুলে বসার পর স্থানীয় মাইনউদ্দিনের নেতৃত্বে কাজল, শামিম, মহসিন আবদুল্লাহ ও আকবর তার দোকানে হামলা চালিয়ে তাকে পিটিয়ে আহত করে হাত ভেঙে দোকানের নগদ ৯৫ হাজার টাকা ও মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এ সময় তার পুত্রবধূসহ পরিবারের কয়েকজন বাধা দিতে এলে তাদেরও পিটিয়ে আহত করা হয়।

গলাচিপা (পটুয়াখালী) : গলাচিপায় সংঘর্ষে পাঁচজন আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন মো. অপু কাজী, মহাসিন হাওলাদার, আল-আমিন কাজী, সালমা বেগম ও খোকন মৃধা। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার গ্রামর্দ্দন গ্রামে। জানা যায়, মাদক সেবন ও পূর্বশত্রুতার জের ধরে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এ ব্যাপারে আহত মহসিন হাওলাদার বলেন, মঙ্গলবার রাতে তার দোকানের সামনে প্রতিপক্ষের রাব্বি ও রুবেল নেশাদ্রব্য সেবন করলে তাতে বাধা দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের মারধর করে।

আগৈলঝাড়া (বরিশাল) : আগৈলঝাড়ায় জমি নিয়ে বিরোধে হামলা সংঘর্ষে আটজন আহত হয়েছেন। জানা গেছে, উপজেলার মাগুরা গ্রামে মনির মোল্লার সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বাড়ির জায়গা নিয়ে বিরোধ চলছে একই এলাকার হালিম সরদারের। বৃহস্পতিবার সকালে ওই জমির মালিকানা

দাবি করে মনির মোল্লা গাছের ডাল কাটতে গেলে প্রতিপক্ষ হালিম সরদার বাধা দেন। এ নিয়ে উভয়পক্ষে সংঘর্ষে

আনিচ মিয়া, হালিম সরদার, মনির মোল্লা, হামিদা বেগম, মরিয়ম খানমসহ আটজন আহত হন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন