আজমিরীগঞ্জে সংঘর্ষে নিহত ১ আটক ১২
jugantor
আজমিরীগঞ্জে সংঘর্ষে নিহত ১ আটক ১২

  হবিগঞ্জ প্রতিনিধি  

১২ মে ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আজমিরীগঞ্জে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধের জের ধরে দুপক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে আহত হন অন্তত আরও ৩০ জন। উপজেলার কাকাইলছেও ইউনিয়নের রাহেলা গ্রামে মঙ্গলবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে নিহত কামাল মিয়া (৫০) গ্রামের ইয়াকুল আলীর ছেলে। এ ঘটনায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ অন্তত ১২ জনকে আটক করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে রাহেলা গ্রামের বর্তমান ইউপি সদস্য শের আলী এবং আনু মিয়ার মধ্যে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ্ব চলে আসছে। কাকাইলছেও বাজারে সোমবার বিকালে ভূঁইয়া মার্কেট এলাকায় শের আলী এবং কামাল মিয়ার মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে মঙ্গলবার সকালে উভয় গোষ্ঠীর লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে কামাল মিয়া ঘটনাস্থলেই নিহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। সংঘর্ষে গুরুতর আহত উসমান মিয়া (৬০), মোখলেছ মিয়া (৩৫), আলফাত (৩০), জহির (৩৫), ইয়াহিয়া (৪০), কাজলকে (৪০) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

ঘটনাস্থল থেকে আজমিরীগঞ্জ থানার দারোগা মুর্শেদ আলম জানান, গোষ্ঠীগত দ্বন্দ্বের জের ধরে এ সংঘর্ষ হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত আছে। অভিযান চলছে। এখন পর্যন্ত সংঘর্ষে লিপ্ত থাকার অভিযোগে অন্তত ১২ জনকে আটক করা হয়েছে।

আজমিরীগঞ্জে সংঘর্ষে নিহত ১ আটক ১২

 হবিগঞ্জ প্রতিনিধি 
১২ মে ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আজমিরীগঞ্জে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধের জের ধরে দুপক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে আহত হন অন্তত আরও ৩০ জন। উপজেলার কাকাইলছেও ইউনিয়নের রাহেলা গ্রামে মঙ্গলবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে নিহত কামাল মিয়া (৫০) গ্রামের ইয়াকুল আলীর ছেলে। এ ঘটনায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ অন্তত ১২ জনকে আটক করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে রাহেলা গ্রামের বর্তমান ইউপি সদস্য শের আলী এবং আনু মিয়ার মধ্যে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ্ব চলে আসছে। কাকাইলছেও বাজারে সোমবার বিকালে ভূঁইয়া মার্কেট এলাকায় শের আলী এবং কামাল মিয়ার মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে মঙ্গলবার সকালে উভয় গোষ্ঠীর লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে কামাল মিয়া ঘটনাস্থলেই নিহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। সংঘর্ষে গুরুতর আহত উসমান মিয়া (৬০), মোখলেছ মিয়া (৩৫), আলফাত (৩০), জহির (৩৫), ইয়াহিয়া (৪০), কাজলকে (৪০) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

ঘটনাস্থল থেকে আজমিরীগঞ্জ থানার দারোগা মুর্শেদ আলম জানান, গোষ্ঠীগত দ্বন্দ্বের জের ধরে এ সংঘর্ষ হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত আছে। অভিযান চলছে। এখন পর্যন্ত সংঘর্ষে লিপ্ত থাকার অভিযোগে অন্তত ১২ জনকে আটক করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন