নবীগঞ্জে ভিজিএফের টাকা ছিনতাই ৩ ঘণ্টা পর উদ্ধার
jugantor
নবীগঞ্জে ভিজিএফের টাকা ছিনতাই ৩ ঘণ্টা পর উদ্ধার

  নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১২ মে ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ভিজিএফের প্রায় দুই লাখ টাকা ব্যাগসহ ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় ছিনতাইকারীর কবল থেকে প্রায় ৩ ঘণ্টা পর ছিনতাইকৃত টাকা উদ্ধার করে। তবে ছিনতাইকারী মনির রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত রয়েছে অধরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সারা দেশের মতো প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ভিজিএফের নগদ অর্থ উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নে বরাদ্দ দেওয়া হয়। বরাদ্দের টাকা ৫ এপ্রিল নবীগঞ্জ সোনালী ব্যাংক থেকে উত্তোলন করেন চেয়ারম্যান ছাইম উদ্দিন। ৬ ও ৮ এপ্রিল ৬টি (১, ২, ৩, ৪, ৫ ও ৭) ওয়ার্ডে ভিজিএফ কার্ডধারীদের মাঝে নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়। ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়ে সোমবার সকাল থেকে ওই ইউনিয়নের ৬/৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের কার্ডধারীদের মাঝে ভিজিএফের টাকা বিতরণ করেন। কিন্তু প্রায় ৪১৮ জন কার্ডধারী অনুপস্থিত থাকার কারণে এক লাখ ৮৭ হাজার ৮০০ টাকা বিতরণ করা হয়নি। ভিজিএফ প্রাপ্ত তালিকাভুক্তির অনুপস্থিত লোকজনের প্রায় এক লাখ ৮৭ হাজার আটশ টাকা চেয়ারম্যান ছাইম উদ্দিনের ব্যক্তিগত সেক্রেটারি করগাঁও গ্রামের সবুজ মিয়া ব্যাগে করে সংরক্ষণ করার সময় ছোট শাখোয়া গ্রামের হাজী রহিম উল্লার ছেলে মনির মিয়া প্রকাশ্যে টাকা ভর্তি ব্যাগ ছিনতাই করে পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানার এসআই অমিতাভের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ছিনতাইকারী ও ছিনতাইকৃত টাকা উদ্ধারের চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে ঘটনার প্রায় ৩ ঘণ্টার মাথায় স্থানীয়দের সহযোগিতায় পুলিশ উল্লিখিত ছিনতাইকৃত উদ্ধার করেন।

এ ঘটনায় ওই এলাকায় জনমনে ক্ষোভ বিরাজ করছে। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও ছিনতাইকারীকে গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছেন স্থানীয়রা।

নবীগঞ্জে ভিজিএফের টাকা ছিনতাই ৩ ঘণ্টা পর উদ্ধার

 নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১২ মে ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ভিজিএফের প্রায় দুই লাখ টাকা ব্যাগসহ ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় ছিনতাইকারীর কবল থেকে প্রায় ৩ ঘণ্টা পর ছিনতাইকৃত টাকা উদ্ধার করে। তবে ছিনতাইকারী মনির রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত রয়েছে অধরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সারা দেশের মতো প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ভিজিএফের নগদ অর্থ উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নে বরাদ্দ দেওয়া হয়। বরাদ্দের টাকা ৫ এপ্রিল নবীগঞ্জ সোনালী ব্যাংক থেকে উত্তোলন করেন চেয়ারম্যান ছাইম উদ্দিন। ৬ ও ৮ এপ্রিল ৬টি (১, ২, ৩, ৪, ৫ ও ৭) ওয়ার্ডে ভিজিএফ কার্ডধারীদের মাঝে নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়। ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়ে সোমবার সকাল থেকে ওই ইউনিয়নের ৬/৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের কার্ডধারীদের মাঝে ভিজিএফের টাকা বিতরণ করেন। কিন্তু প্রায় ৪১৮ জন কার্ডধারী অনুপস্থিত থাকার কারণে এক লাখ ৮৭ হাজার ৮০০ টাকা বিতরণ করা হয়নি। ভিজিএফ প্রাপ্ত তালিকাভুক্তির অনুপস্থিত লোকজনের প্রায় এক লাখ ৮৭ হাজার আটশ টাকা চেয়ারম্যান ছাইম উদ্দিনের ব্যক্তিগত সেক্রেটারি করগাঁও গ্রামের সবুজ মিয়া ব্যাগে করে সংরক্ষণ করার সময় ছোট শাখোয়া গ্রামের হাজী রহিম উল্লার ছেলে মনির মিয়া প্রকাশ্যে টাকা ভর্তি ব্যাগ ছিনতাই করে পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানার এসআই অমিতাভের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ছিনতাইকারী ও ছিনতাইকৃত টাকা উদ্ধারের চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে ঘটনার প্রায় ৩ ঘণ্টার মাথায় স্থানীয়দের সহযোগিতায় পুলিশ উল্লিখিত ছিনতাইকৃত উদ্ধার করেন।

এ ঘটনায় ওই এলাকায় জনমনে ক্ষোভ বিরাজ করছে। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও ছিনতাইকারীকে গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছেন স্থানীয়রা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন