কুলাউড়ায় চার ইউপিতে বিল বকেয়া ১৫ লক্ষাধিক টাকা
jugantor
কুলাউড়ায় চার ইউপিতে বিল বকেয়া ১৫ লক্ষাধিক টাকা
বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন

  কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি  

২৫ জুন ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কুলাউড়া উপজেলার ৪ ইউনিয়ন পরিষদে বকেয়া বিদ্যুৎ বিলের কারণে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে বিদ্যুৎ বিভাগ। মঙ্গলবার থেকে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। কুলাউড়া বিদ্যুৎ অফিস সূত্রে জানা যায়, কুলাউড়া সদর ইউনিয়ন, কর্মধা ইউনিয়ন, কাদিপুর ইউনিয়ন ও ভুকশিমইল ইউনিয়নে বিদ্যুৎ বিভাগের বকেয়া বিল ১৫ লাখ ৭২ হাজার টাকা। এর মধ্যে কুলাউড়া সদর ও কর্মধা ইউনিয়নের সাড়ে ৫ লাখ টাকা করে মোট ১১ লাখ টাকা এবং কাদিপুর ইউনিয়নে সাড়ে ৩ লাখ টাকা ও ভুকশিমইল ইউনিয়নে ১ লাখা ২২ হাজার টাকা বকেয়া। বকেয়া বিল পরিশোধের জন্য কুলাউড়া বিদ্যুৎ সরবরাহ কেন্দ্র থেকে নোটিশ করা হয়। কিন্তু নির্ধারিত সময় অতিবাহিত করার পর গত ২২ জুন মঙ্গলবার ৪টি ইউনিয়নে একযোগে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

কর্মধা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এমএ রহমান আতিক জানান, আগের চেয়ারম্যান ১৮ বছরের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল রেখে যান। তখন বকেয়া ছিল আড়াই লাখ। তিনি আর কোনো বিল পরিশোধ করেননি। তবে ৪ লাখ ৪২ হাজার টাকা বকেয়া পরিশোধ করার শর্তে তিনি সংযোগটি চালু রেখেছেন।

কুলাউড়ায় চার ইউপিতে বিল বকেয়া ১৫ লক্ষাধিক টাকা

বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন
 কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি 
২৫ জুন ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কুলাউড়া উপজেলার ৪ ইউনিয়ন পরিষদে বকেয়া বিদ্যুৎ বিলের কারণে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে বিদ্যুৎ বিভাগ। মঙ্গলবার থেকে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। কুলাউড়া বিদ্যুৎ অফিস সূত্রে জানা যায়, কুলাউড়া সদর ইউনিয়ন, কর্মধা ইউনিয়ন, কাদিপুর ইউনিয়ন ও ভুকশিমইল ইউনিয়নে বিদ্যুৎ বিভাগের বকেয়া বিল ১৫ লাখ ৭২ হাজার টাকা। এর মধ্যে কুলাউড়া সদর ও কর্মধা ইউনিয়নের সাড়ে ৫ লাখ টাকা করে মোট ১১ লাখ টাকা এবং কাদিপুর ইউনিয়নে সাড়ে ৩ লাখ টাকা ও ভুকশিমইল ইউনিয়নে ১ লাখা ২২ হাজার টাকা বকেয়া। বকেয়া বিল পরিশোধের জন্য কুলাউড়া বিদ্যুৎ সরবরাহ কেন্দ্র থেকে নোটিশ করা হয়। কিন্তু নির্ধারিত সময় অতিবাহিত করার পর গত ২২ জুন মঙ্গলবার ৪টি ইউনিয়নে একযোগে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

কর্মধা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এমএ রহমান আতিক জানান, আগের চেয়ারম্যান ১৮ বছরের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল রেখে যান। তখন বকেয়া ছিল আড়াই লাখ। তিনি আর কোনো বিল পরিশোধ করেননি। তবে ৪ লাখ ৪২ হাজার টাকা বকেয়া পরিশোধ করার শর্তে তিনি সংযোগটি চালু রেখেছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন