সরঞ্জাম আছে সেবা নেই
jugantor
সরঞ্জাম আছে সেবা নেই

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৮ জুন ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

হাসপাতালে টেকনিশিয়ান সংকটে ব্যাহত হচ্ছে স্বাস্থ্যসেবা। প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরঞ্জাম থাকলেও সেগুলো চালু করা যাচ্ছে না। পড়ে থেকে নষ্ট হচ্ছে এক্সরে, আলট্র্রাসনোগ্রাফি মেশিনসহ কোটি কোটি টাকার বিভিন্ন চিকিৎসা সরঞ্জাম। নেত্রকোনার কেন্দুয়া থেকে মামুনুর রশিদ মামুন, আটপাড়া থেকে মো. এনামূল হক, ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ থেকে আবুল কালাম আজাদ ও নান্দাইল থেকে এনামুল হক বাবুল জানান-

কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) : নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জনবল সংকটে ব্যাহত হচ্ছে স্বাস্থ্যসেবা। ডিজিটাল এক্স-রে মেশিন থাকলেও ফিল্মের অভাবে বিকল হয়ে পড়ে আছে। আলট্রাসনোগ্রাফি পরীক্ষাও বাইরে থেকে করতে হয় রোগীদের। করোনা পরীক্ষার কোনো মেশিন নেই। প্রয়োজনীয় ভবন ও সরঞ্জামাদি থাকার পরও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক না থাকায় এক যুগেও চালু করা যায়নি সিজারিয়ান কার্যক্রম। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এবাদুর রহমান বলেন, চিকিৎসক ও কর্মচারী সংকট রয়েছে।

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) : ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টেকনিশিয়ান সংকটে মূল্যবান চিকিৎসা যন্ত্রপাতি দীর্ঘদিন গোডাইনে বস্তাবন্দি অবস্থায় পড়ে আছে। এতে ৫০ শয্যার এ হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে।

আটপাড়া (নেত্রকোনা) : আটপাড়া উপজেলা হাসপাতালে নতুন এক্স-রে মেশিনটি বরাদ্দ পেলেও সেটি স্থাপন করা হয়নি। এটি পরিচালানায় নেই কোনো টেকনিশিয়ান। এ ছাড়া আলট্র্রাসনোগ্রাম মেশিনটিও কাজে আসছে না।

নান্দাইল (ময়মনসিংহ) : নান্দাইল উপজেলা সদর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রয়োজনীয় জনবল সংকটের কারণে রোগীদের যথাযথ চিকিৎসাসেবা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। এ ছাড়া এক্সরে মেশিন প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম ও বিদ্যুৎ সমস্যার কারণে বন্ধ রয়েছে। হাসপাতালের নিজস্ব জেনারেটর বসানো হলেও তা নষ্ট অবস্থায় পড়ে আছে। রোগীদের ইসিজি করার মেশিন নেই।

সরঞ্জাম আছে সেবা নেই

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৮ জুন ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

হাসপাতালে টেকনিশিয়ান সংকটে ব্যাহত হচ্ছে স্বাস্থ্যসেবা। প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরঞ্জাম থাকলেও সেগুলো চালু করা যাচ্ছে না। পড়ে থেকে নষ্ট হচ্ছে এক্সরে, আলট্র্রাসনোগ্রাফি মেশিনসহ কোটি কোটি টাকার বিভিন্ন চিকিৎসা সরঞ্জাম। নেত্রকোনার কেন্দুয়া থেকে মামুনুর রশিদ মামুন, আটপাড়া থেকে মো. এনামূল হক, ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ থেকে আবুল কালাম আজাদ ও নান্দাইল থেকে এনামুল হক বাবুল জানান-

কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) : নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জনবল সংকটে ব্যাহত হচ্ছে স্বাস্থ্যসেবা। ডিজিটাল এক্স-রে মেশিন থাকলেও ফিল্মের অভাবে বিকল হয়ে পড়ে আছে। আলট্রাসনোগ্রাফি পরীক্ষাও বাইরে থেকে করতে হয় রোগীদের। করোনা পরীক্ষার কোনো মেশিন নেই। প্রয়োজনীয় ভবন ও সরঞ্জামাদি থাকার পরও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক না থাকায় এক যুগেও চালু করা যায়নি সিজারিয়ান কার্যক্রম। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এবাদুর রহমান বলেন, চিকিৎসক ও কর্মচারী সংকট রয়েছে।

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) : ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টেকনিশিয়ান সংকটে মূল্যবান চিকিৎসা যন্ত্রপাতি দীর্ঘদিন গোডাইনে বস্তাবন্দি অবস্থায় পড়ে আছে। এতে ৫০ শয্যার এ হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে।

আটপাড়া (নেত্রকোনা) : আটপাড়া উপজেলা হাসপাতালে নতুন এক্স-রে মেশিনটি বরাদ্দ পেলেও সেটি স্থাপন করা হয়নি। এটি পরিচালানায় নেই কোনো টেকনিশিয়ান। এ ছাড়া আলট্র্রাসনোগ্রাম মেশিনটিও কাজে আসছে না।

নান্দাইল (ময়মনসিংহ) : নান্দাইল উপজেলা সদর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রয়োজনীয় জনবল সংকটের কারণে রোগীদের যথাযথ চিকিৎসাসেবা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। এ ছাড়া এক্সরে মেশিন প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম ও বিদ্যুৎ সমস্যার কারণে বন্ধ রয়েছে। হাসপাতালের নিজস্ব জেনারেটর বসানো হলেও তা নষ্ট অবস্থায় পড়ে আছে। রোগীদের ইসিজি করার মেশিন নেই।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : বেহাল স্বাস্থ্যসেবা