আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিন পলিথিনে মোড়ানো
jugantor
আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিন পলিথিনে মোড়ানো
এক্স-রে পরীক্ষা নেই

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৫ জুলাই ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বান্দরবানের আলীকদম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পলিথিনে মুড়িয়ে রাখা হয়েছে আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিন। এ ছাড়া চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এক্স-রে পরীক্ষা বন্ধ রয়েছে। এতে এই দুই উপজেলার মানুষ সেবাবঞ্চিত হচ্ছেন। যুগান্তর প্রতিনিধি আলীকদমের জয়দেব রানা ও মতলবের ফারুক হোসেনের পাঠানো খবর-

আলীকদম (বান্দরবান) : আলীকদম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অযত্ন আর অবহেলায় বছরের পর বছর পড়ে থেকে নষ্ট হচ্ছে ইসিজি, আল্ট্র্রাসনোগ্রামের যন্ত্রপাতি। সূত্র জানায়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২০১৬ সালে একটি আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিন, ২০১৭ সালে একটি ইসিজি মেশিনসহ পুরাতন এক্স-রে মেশিনের পাশাপাশি নতুন এক্স-রে মেশিন বরাদ্দ দেওয়া হয়। কিন্তু এক্স-রে ছাড়া বাকিগুলোর চালানোর মতো দক্ষ কোনো টেকনিশিয়ান নেই। সম্প্রতি সরেজমিন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, একটি কক্ষে আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিনটি পলিথিন দিয়ে ঢেকে রাখা হয়েছে। এর পাশেই একটি দন্ত চেয়ার অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে আছে। ইসিজি ও এক্স-রে রুমে তালা দেওয়া এবং অস্ত্রোপচার কক্ষটি গুদামঘর হিসাবে ব্যবহার হচ্ছে।

মতলব (চাঁদপুর) : মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তিনশ’ এমএ (মিলিএমপিআর) শক্তির একটি উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন এক্স-রে মেশিন রয়েছে। এর কন্ট্রোল বক্সের ডিসপ্লে নষ্ট হয়ে যাওয়ায় ২০১৩ সাল থেকে মেশিনটি বন্ধ রয়েছে। এ ছাড়াও সহকারী ডেন্টাল সার্জন না থাকায় ডেন্টাল চেয়ারসহ চিকিৎসাসামগ্রী অযত্নে পড়ে আছে। এতে নষ্ট হচ্ছে সরকারের লাখ লাখ টাকার সম্পদ। আর সেবাবঞ্চিত হচ্ছে উপজেলার প্রায় পাঁচ লক্ষাধিক মানুষ। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নুসরাত জাহান মিথেন জানান, বিষয়টি লিখিতভাবে জানানো হয়েছে।

আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিন পলিথিনে মোড়ানো

এক্স-রে পরীক্ষা নেই
 যুগান্তর ডেস্ক 
০৫ জুলাই ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বান্দরবানের আলীকদম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পলিথিনে মুড়িয়ে রাখা হয়েছে আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিন। এ ছাড়া চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এক্স-রে পরীক্ষা বন্ধ রয়েছে। এতে এই দুই উপজেলার মানুষ সেবাবঞ্চিত হচ্ছেন। যুগান্তর প্রতিনিধি আলীকদমের জয়দেব রানা ও মতলবের ফারুক হোসেনের পাঠানো খবর-

আলীকদম (বান্দরবান) : আলীকদম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অযত্ন আর অবহেলায় বছরের পর বছর পড়ে থেকে নষ্ট হচ্ছে ইসিজি, আল্ট্র্রাসনোগ্রামের যন্ত্রপাতি। সূত্র জানায়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২০১৬ সালে একটি আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিন, ২০১৭ সালে একটি ইসিজি মেশিনসহ পুরাতন এক্স-রে মেশিনের পাশাপাশি নতুন এক্স-রে মেশিন বরাদ্দ দেওয়া হয়। কিন্তু এক্স-রে ছাড়া বাকিগুলোর চালানোর মতো দক্ষ কোনো টেকনিশিয়ান নেই। সম্প্রতি সরেজমিন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, একটি কক্ষে আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিনটি পলিথিন দিয়ে ঢেকে রাখা হয়েছে। এর পাশেই একটি দন্ত চেয়ার অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে আছে। ইসিজি ও এক্স-রে রুমে তালা দেওয়া এবং অস্ত্রোপচার কক্ষটি গুদামঘর হিসাবে ব্যবহার হচ্ছে।

মতলব (চাঁদপুর) : মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তিনশ’ এমএ (মিলিএমপিআর) শক্তির একটি উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন এক্স-রে মেশিন রয়েছে। এর কন্ট্রোল বক্সের ডিসপ্লে নষ্ট হয়ে যাওয়ায় ২০১৩ সাল থেকে মেশিনটি বন্ধ রয়েছে। এ ছাড়াও সহকারী ডেন্টাল সার্জন না থাকায় ডেন্টাল চেয়ারসহ চিকিৎসাসামগ্রী অযত্নে পড়ে আছে। এতে নষ্ট হচ্ছে সরকারের লাখ লাখ টাকার সম্পদ। আর সেবাবঞ্চিত হচ্ছে উপজেলার প্রায় পাঁচ লক্ষাধিক মানুষ। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নুসরাত জাহান মিথেন জানান, বিষয়টি লিখিতভাবে জানানো হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : বেহাল স্বাস্থ্যসেবা