বিশেষজ্ঞ সংকটে অপারেশন বন্ধ
jugantor
ভূঞাপুর ও কিশোরগঞ্জের উপজেলা হাসপাতাল
বিশেষজ্ঞ সংকটে অপারেশন বন্ধ

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৭ জুলাই ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অস্ত্রোপচার কক্ষ থাকলেও সার্জারি ও অ্যানেস্থেসিয়া বিশেষজ্ঞ না থাকায় কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। যুগান্তর প্রতিনিধি কিশোরগঞ্জ থেকে এটিএম নিজাম, কটিয়াদী থেকে ফজলুল হক জোয়ারদার আলমগীর, হোসেনপুর থেকে মসিউর রহমান সুমন, টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর থেকে আসাদুল ইসলাম বাবুলের পাঠানো খবর-

কিশোরগঞ্জ ব্যুরো : কিশোরগঞ্জের মিটামইন, নিকলী ও করিমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রসূতি মায়েদের অস্ত্রোপচার বন্ধ রয়েছে। অনুসন্ধানে জানা যায়, ২০০২ সালের দিকে উল্লিখিত তিন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা ব্যয়ে অস্ত্রোপচার কক্ষ ও ভবন তৈরিসহ সংশ্লিষ্ট যন্ত্রপাতি সরবরাহ করা হয়। এরপর অস্ত্রোপচার শুরু হলেও টেকনিশিয়ান থাকায় আবারও কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়।

কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ) : কটিয়াদী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সার্জারি ও অ্যানেস্থেসিয়া বিশেষজ্ঞের পদ শূন্য থাকায় চালু করা যাচ্ছে না অস্ত্রোপচার কক্ষ। উন্নতমানের এক্স-রে মেশিনটি রয়েছে বাক্সবন্ধি অবস্থায়।

ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) : ভূঞাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অস্ত্রোপচার কক্ষ থাকলেও সার্জারি ও অ্যানেস্থেসিয়া বিশেষজ্ঞ না থাকায় কার্যক্রম বন্ধ। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক্স-রে মেশিনটিও অকেজো।

হোসেনপুর (কিশোরগঞ্জ) : হোসেনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৯ বছরেও চালু করা সম্ভব হয়নি অপারেশন থিয়েটার। তালাবন্দি ঘরে নষ্ট হচ্ছে মূল্যবান যন্ত্রপাতি।

ভূঞাপুর ও কিশোরগঞ্জের উপজেলা হাসপাতাল

বিশেষজ্ঞ সংকটে অপারেশন বন্ধ

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৭ জুলাই ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অস্ত্রোপচার কক্ষ থাকলেও সার্জারি ও অ্যানেস্থেসিয়া বিশেষজ্ঞ না থাকায় কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। যুগান্তর প্রতিনিধি কিশোরগঞ্জ থেকে এটিএম নিজাম, কটিয়াদী থেকে ফজলুল হক জোয়ারদার আলমগীর, হোসেনপুর থেকে মসিউর রহমান সুমন, টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর থেকে আসাদুল ইসলাম বাবুলের পাঠানো খবর-

কিশোরগঞ্জ ব্যুরো : কিশোরগঞ্জের মিটামইন, নিকলী ও করিমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রসূতি মায়েদের অস্ত্রোপচার বন্ধ রয়েছে। অনুসন্ধানে জানা যায়, ২০০২ সালের দিকে উল্লিখিত তিন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা ব্যয়ে অস্ত্রোপচার কক্ষ ও ভবন তৈরিসহ সংশ্লিষ্ট যন্ত্রপাতি সরবরাহ করা হয়। এরপর অস্ত্রোপচার শুরু হলেও টেকনিশিয়ান থাকায় আবারও কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়।

কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ) : কটিয়াদী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সার্জারি ও অ্যানেস্থেসিয়া বিশেষজ্ঞের পদ শূন্য থাকায় চালু করা যাচ্ছে না অস্ত্রোপচার কক্ষ। উন্নতমানের এক্স-রে মেশিনটি রয়েছে বাক্সবন্ধি অবস্থায়।

ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) : ভূঞাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অস্ত্রোপচার কক্ষ থাকলেও সার্জারি ও অ্যানেস্থেসিয়া বিশেষজ্ঞ না থাকায় কার্যক্রম বন্ধ। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক্স-রে মেশিনটিও অকেজো।

হোসেনপুর (কিশোরগঞ্জ) : হোসেনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৯ বছরেও চালু করা সম্ভব হয়নি অপারেশন থিয়েটার। তালাবন্দি ঘরে নষ্ট হচ্ছে মূল্যবান যন্ত্রপাতি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : বেহাল স্বাস্থ্যসেবা