মাধবপুরে গাছে বেঁধে নির্যাতন : গ্রেফতার ১
jugantor
মাধবপুরে গাছে বেঁধে নির্যাতন : গ্রেফতার ১

  মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি  

২৪ জুলাই ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

হবিগঞ্জের মাধবপুরে এক আদম ব্যবসায়ীকে গাছে বেঁধে নির্যাতন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ উদ্ধার করে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

বুধবার রাতে উপজেলার চৌমুহনী ইউনিয়নের হরিণখোলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত শিশু মিয়া জানান, বুধবার রাতে শাহজালালপুর গ্রামের মজিদ মিয়ার ছেলে মাসুক মিয়া ও তার ভাই, ভাতিজা তার বাড়িতে গিয়ে তাকে জোরপূর্বক শাহজালালপুর গ্রামে নিয়ে যায়। সেখানে একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে রেখে নির্যাতন করে। পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে।

তবে, মাসুক মিয়া বলেন, শিশু মিয়া একজন আদম ব্যবসায়ী। আমার ছেলেকে বিদেশে পাঠানোর কথা বলে সাড়ে ৩ লাখ টাকা নিয়েছে। টাকা নেওয়ার সময় কাগজে স্বাক্ষর ও চেক দিয়ে যায়। কিন্তু আমার ছেলেকে সে বিদেশ পাঠাতে পারেনি। এ কারণে তার বিরুদ্ধে মামলাও করা হয়েছে। নির্যাতনের বিষয়ে জানতে চাইলে মাসুক মিয়া বলেন, তিনি বাড়িতে ছিলেন না। হয়তো তার ছেলে এ ঘটনা করেছে।

কাশিমনগর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই দেবাশীষ তালুকদার জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশু মিয়াকে উদ্ধার করা হয়েছে। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নির্যাতনের ঘটনায় মৌলা মিয়া জাবের (২১) নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে।

মাধবপুরে গাছে বেঁধে নির্যাতন : গ্রেফতার ১

 মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি 
২৪ জুলাই ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

হবিগঞ্জের মাধবপুরে এক আদম ব্যবসায়ীকে গাছে বেঁধে নির্যাতন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ উদ্ধার করে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

বুধবার রাতে উপজেলার চৌমুহনী ইউনিয়নের হরিণখোলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত শিশু মিয়া জানান, বুধবার রাতে শাহজালালপুর গ্রামের মজিদ মিয়ার ছেলে মাসুক মিয়া ও তার ভাই, ভাতিজা তার বাড়িতে গিয়ে তাকে জোরপূর্বক শাহজালালপুর গ্রামে নিয়ে যায়। সেখানে একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে রেখে নির্যাতন করে। পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে।

তবে, মাসুক মিয়া বলেন, শিশু মিয়া একজন আদম ব্যবসায়ী। আমার ছেলেকে বিদেশে পাঠানোর কথা বলে সাড়ে ৩ লাখ টাকা নিয়েছে। টাকা নেওয়ার সময় কাগজে স্বাক্ষর ও চেক দিয়ে যায়। কিন্তু আমার ছেলেকে সে বিদেশ পাঠাতে পারেনি। এ কারণে তার বিরুদ্ধে মামলাও করা হয়েছে। নির্যাতনের বিষয়ে জানতে চাইলে মাসুক মিয়া বলেন, তিনি বাড়িতে ছিলেন না। হয়তো তার ছেলে এ ঘটনা করেছে।

কাশিমনগর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই দেবাশীষ তালুকদার জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশু মিয়াকে উদ্ধার করা হয়েছে। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নির্যাতনের ঘটনায় মৌলা মিয়া জাবের (২১) নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন