ধামরাইয়ে সংঘর্ষে আহত ৩০
jugantor
খাস জমির দখল নিয়ে পালটাপালটি মামলা
ধামরাইয়ে সংঘর্ষে আহত ৩০

  ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি  

০৩ আগস্ট ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকার ধামরাইয়ে সরকারি খাস জমির দখল ও পালটা দখলকে কেন্দ্র করে বিবদমান দু’পক্ষের মধ্যে ভয়াবহ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৩০ জন। এদের মধ্যে অন্তত ১২ জন হয়েছেন মারাত্মকভাবে রক্তাক্ত জখম। প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের কোপে একজনের কান কেটে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। একজনকে সাভার এনাম মেডিকেল কলেজের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার বিকালে ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বনেরচর এলাকায়। দু’পক্ষের পালটাপালটি মামলা হওয়ায় গ্রেফতার আতঙ্কে গ্রাম একদম পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে বলে জানা গেছে। রোববার রাতে সংঘর্ষের এ ঘটনায় ধামরাই থানায় পালটাপালটি দুটি মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। সোমবার সকালে মামলার নথিপত্র পাঠানো হয়েছে আদালতে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আসামি ছাড়াও মামলার এজাহারভুক্ত অন্য আসামিরা বীরদর্পে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ তাদের গ্রেফতার করছে না বলে ভুক্তভোগীদের অভিযোগ। অবশ্য এ ব্যাপারে পুলিশ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছে, আসামিদের গ্রেফতারের সবধরনের চেষ্টা করা হচ্ছে। জানা যায়, উপজেলার বনেরচর এলাকায় বংশী নদীর অববাহিকায় কয়েক একর খাস জমি রয়েছে। বংশানুক্রমে গ্রামবাসী নিজ নিজ হিস্যানুযায়ী ভোগদখল করে আসছেন। সম্প্রতি মো. আলতাফ হোসেনের ছেলে মো. মনির হোসেনের নেতৃত্বাধীন স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল পেশিশক্তির বলে গ্রামবাসীর ভোগদখলীয় সরকারি খাস জমি দখলের জন্য বারবার চেষ্টা করে আসছেন।

খাস জমির দখল নিয়ে পালটাপালটি মামলা

ধামরাইয়ে সংঘর্ষে আহত ৩০

 ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি 
০৩ আগস্ট ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকার ধামরাইয়ে সরকারি খাস জমির দখল ও পালটা দখলকে কেন্দ্র করে বিবদমান দু’পক্ষের মধ্যে ভয়াবহ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৩০ জন। এদের মধ্যে অন্তত ১২ জন হয়েছেন মারাত্মকভাবে রক্তাক্ত জখম। প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের কোপে একজনের কান কেটে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। একজনকে সাভার এনাম মেডিকেল কলেজের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার বিকালে ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বনেরচর এলাকায়। দু’পক্ষের পালটাপালটি মামলা হওয়ায় গ্রেফতার আতঙ্কে গ্রাম একদম পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে বলে জানা গেছে। রোববার রাতে সংঘর্ষের এ ঘটনায় ধামরাই থানায় পালটাপালটি দুটি মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। সোমবার সকালে মামলার নথিপত্র পাঠানো হয়েছে আদালতে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আসামি ছাড়াও মামলার এজাহারভুক্ত অন্য আসামিরা বীরদর্পে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ তাদের গ্রেফতার করছে না বলে ভুক্তভোগীদের অভিযোগ। অবশ্য এ ব্যাপারে পুলিশ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছে, আসামিদের গ্রেফতারের সবধরনের চেষ্টা করা হচ্ছে। জানা যায়, উপজেলার বনেরচর এলাকায় বংশী নদীর অববাহিকায় কয়েক একর খাস জমি রয়েছে। বংশানুক্রমে গ্রামবাসী নিজ নিজ হিস্যানুযায়ী ভোগদখল করে আসছেন। সম্প্রতি মো. আলতাফ হোসেনের ছেলে মো. মনির হোসেনের নেতৃত্বাধীন স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল পেশিশক্তির বলে গ্রামবাসীর ভোগদখলীয় সরকারি খাস জমি দখলের জন্য বারবার চেষ্টা করে আসছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন