ড্রেনেজ ব্যবস্থা অচল

বর্ষায় আবারও ডুবতে পারে বরিশাল নগরী

  বরিশাল ব্যুরো ০৫ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

এবারের বর্ষায় আবারও ডুবতে পারে বরিশাল। এমনই শঙ্কায় দিন কাটাচ্ছেন এ নগরবাসী। এখানকার নদী, খাল, পুকুর, জলাশয় ও ড্রেন ভরাট করার কারণে এ শঙ্কার সৃষ্টি হয়েছে। পাশাপাশি অপরিকল্পিত ড্রেন ব্যবস্থা ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন না রাখার কারণে এ অবস্থার সৃষ্টি করেছে। যদিও প্রতিবারের মতো প্রশাসন এ বছরও বলছে নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনের লক্ষ্যে তারা নানা প্রকল্প গ্রহণ করেছে। তবে তার বাস্তব চিত্র দেখতে পান না এ নগরীর বাসিন্দারা। ২০১৩ সালের সিটি করপোরেশন নির্বাচনের আগে বর্তমান মেয়র আহসান হাবীব কামাল প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, এ জলাবদ্ধতা থেকে নগরবাসীকে রেহাই দেবেন। তবে তার নির্বাচনী সময় পার হতে চললেও প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে পারেননি তিনি। বিসিসি সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪-১৫ অর্থবছরের বাজেটে জেল খাল, সাগরদী খালসহ বেশ কয়েকটি খাল পুনরুদ্ধার ও পুনঃখনন বাবদ ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছিল। অবশ্য এখনও খাল উদ্ধার আর করা যায়নি। পরের অর্থবছরে বাজেটে খাল পুনরুদ্ধার ও পুনঃখননের জন্য ৩৫ কোটি টাকার একটি প্রকল্প হাতে নেয়া হলেও প্রকল্পটি আলোর মুখ দেখেনি। গত ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরের বাজেটে বিসিসির রাস্তা, ড্রেন, ব্রিজ, কালভার্ট নির্মাণেও ৫ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছিল। তবে তাও বরিশালবাসীর নজরে পড়েনি। তাই এসবের উন্নয়ন না ঘটায় জলাবদ্ধতা রয়েই গেছে। মানবাধিকার কমিশনের বরিশাল মহানগর সাধারণ সম্পাদক আবু মাসুম ফয়সাল জানান, সামান্য বৃষ্টিতেই বরিশাল নগরীর সড়কে সড়কে হাঁটুপানি জমে যায়। কেবল সড়ক নয়, অলিগলির বাসাবাড়িতেও বৃষ্টির পানি ঢুকে পড়ে। সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন বরিশাল জেলার সাধারণ সম্পাদক কাজী এনায়েত হোসেন শিবলু বলেন, এ নগরীর অধিকাংশ উন্নয়ন হচ্ছে পরিকল্পনার বাইরে। নগরীর ফুটপাত, ড্রেন তৈরি হচ্ছে অপরিকল্পিতভাবে। বরিশালের ২৭টি সংগঠনের জোট সাংস্কৃতিক সংগঠন সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মিন্টু কুমার কর বলেন, এ বছরও বরিশালবাসী পানিতে ভাসবে। কারণ এখনও নগরীর ড্রেনগুলো পরিষ্কার করার বা উন্নয়নের কোনো কাজ শুরু করেনি। এ ব্যাপারে বিসিসির সচিব ও দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন যুগান্তরকে জানান, বিষয়টি প্রকৌশলী শাখা ভালো বলতে পারবে। তবে নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে অনেকগুলো প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এগুলো বাস্তবায়ন হলে সমস্যা দূর হবে।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter