বিলুপ্তপ্রায় পাহাড়ি ধুমকল

  খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ০৫ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

পাহাড়ি ধুমকল বা মেরুন রঙা পালকের ধুমকল প্রায় বিরল। এটি মূলত বুনো কবুতর গোত্রের। পাকা ফলে খেতে এরা লোকালয়ে আসে। শিকারিদের উৎপাতের কারণে বিলুপ্তির পথে এই ধুমকল। তাছাড়া নিয়মিত বন উজাড় বা পাহাড় পোড়ানোর কারণে এদের আবাসস্থল নষ্ট হয়েছে। ধুমকল চিরসবুজ বনের বাসিন্দা। পাখিটির ইংরেজি নাম সড়ঁহঃধরহ রসঢ়বৎরধষ ঢ়রমবড়হ। ধুমকল পড়ষঁসনরফধব পরিবারের অন্তর্ভুক্ত, এর বৈজ্ঞানিক নাম উঁপঁষধ নধফরধ । বাংলাদেশ ছাড়াও পুরো দক্ষিণ এশিয়াজুড়ে ধুমকলের বিচরণ। সম্প্রতি খাগড়াছড়ির দীঘিনালার কামুক্ক্যাছড়া এলাকার একটি বিহারের ধুমকলের দেখা মিলে। বিহারের উঁচু মেহগনি গাছের ডালে এর সহজ বিচরণ। বিহার এলাকায় পাখি শিকার নিষিদ্ধ হওয়ায় এখানে এরা বেশ নিরাপদ। পাহাড়ের পার্শ্ববর্তী লোকালয়ে এদের বেশি চোখে পড়ে। সাধারণত বট, ডুমুর কিংবা অশ্বথের ডালের এদের দেখা মিলে। পাকা ফল খেতেই গাছের শাখায় শাখায় এদের বিচরণ। এক সময় ঝাঁকে ঝাঁকে ধুমকল দেখা গেলেও বর্তমানে কালেভদ্রে এদের দেখা যায়। ধুমকল দৈর্ঘ্যে বেশ লম্বা। একটি ধুমকল ঠোঁট থেকে লেজ পর্যন্ত লম্বার ৪৩-৫১ সে.মি (১৭-২১ ইঞ্চি) পর্যন্ত লম্বা হয়। এদের লেজ লম্বা। ধুমকলের মাথা, গলার অংশ ছাইরঙা ধূসর হয়। গলার নিচ থেকে বুকটা উজ্জ্বল মেরুন। অত্যন্ত শান্ত স্বভাবের প্রায় বিপন্ন ধুমকল মাটিতে খুব কমই নামে। এরা সোজা ও ক্ষিপ্র গতিতে উড়ে যেতে পারে। ধুমকলের প্রজনন কাল মার্চ থেকে আগস্ট পর্যন্ত। ধুমকলের বাসা সাধারণত মাটি থেকে ২৫ থেকে ৩০ ফুট উঁচু ডালে বাসা বাঁধে। একটির বেশি ডিম দেয় না, কদাচিৎ দুটি ডিম দেয়। পুরুষ ও স্ত্রী ধুমকল উভয়ই ডিমে তা দেয়। ধুমকল দলবদ্ধভাবে ঘুরে বেড়ায়। দীঘিনালা পরিবেশ সুরক্ষা আন্দোলনে সম্পাদক পলাশ বড়–য় জানান, ‘একসময় ধুমকল বেশ দেখা যেত। বাণিজ্যিক উদ্দেশে পাখি শিকারিদের কারণে দিন দিন এদের সংখ্যা কমছে’।

দীঘিনালা ইউএনও শেখ শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘লোকাল গভর্মেন্ট সাপোর্ট প্রোগ্রামের আওতায় উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সচেতনতামূলক কার্যক্রম চালানো হয়েছে। এই বছরও উপজেলার বাবুছড়াসহ নানা জায়গায় পাখি শিকার বন্ধের জন্য সচেতনতামূলক বিলবোর্ড দেয়া হবে। এর মাধ্যমে আগে তুলনায় অনেকটা কমছে পাখি শিকার ও বিপণন।’

 

 

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.