আলমডাঙ্গায় সাপ আতঙ্ক

তিন দিনে কামড়েছে ২৫ জনকে

  চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি ০৫ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

জেলার আলমডাঙ্গার বলেশ্বরপুর গ্রামে রীতিমতো সাপ আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। গ্রামের সাধারণ মানুষ রাতে নিশ্চিন্তে ঘুমাতে পারছে না। দিনের বেলায়ও চলছে তারা ভয়-ভীতির মধ্যে। গত তিনদিনে এই গ্রামের স্কুলপাড়া ২৫ জন সাপের কামড়ের শিকার হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে শিশু-নারীসহ সব বয়সী মানুষ। গ্রামে দিনরাত চলছে সাপুড়ে আর কবিরাজদের ঝাড়ফুঁক। কোনো কোনো কবিরাজ গুজব ছড়িয়ে ফায়দা লুটছে বলে অভিযোগ গ্রামের সচেতন লোকজনের। গ্রামবাসীরা জানান, মঙ্গলবার রিপা নামের এক স্কুলছাত্রীকে সাপে কামড়ালে তাকে কবিরাজের কাছে এবং পরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। পরদিন থেকে মাত্র তিনদিনের ব্যবধানে ২৫ জন সাপের কামড়ের শিকার হয়। গ্রামের অনেকেই দাবি করেছেন, কবিরাজের কাছে নিয়ে ঝাড়ফুঁক করলেই ভালো হয়ে যাচ্ছে। এ সুযোগে জিনসাপের গুজব ছড়াচ্ছেন কবিরাজরা। উপজেলার বেলগাছি গ্রামের কালু শেখের স্ত্রী কবিরাজ সুফিয়া কামাল গ্রামে উপস্থিত হয়ে হাতচালান দিয়ে বলেছেন, এসব জিনরূপী সাপের কাণ্ড। গ্রামবাসীর কাছ থেকে জানা গেছে, গত তিনদিনে সাপের কামড়ের শিকার হয়েছে বলেশ্বরপুর গ্রামের শহিদুল্লাহর মেয়ে রিপা খাতুন, জালালের স্ত্রী রোজিনা, ছেলে সুমন, শিমুলের স্ত্রী রূপমনি, মেয়ে সামিয়া, ছেলে তামিম, মহিবুল্লাহার মেয়ে মুক্তা, মনোয়ারের ছেলে মামুন, সিরাজুলের ছেলে বায়েজিদ ও সাজিত, মৃত জিনারুলের স্ত্রী সাহানাজ, মৃত মওলা বক্সের ছেলে মোস্তাফা, দুখুর ছেলে রকিবুল, রবগুলের মেয়ে রুনা, শামসুলের স্ত্রী বিজরী, মেয়ে মিম, জকিরের স্ত্রী জিনজিরা, ছেলে চন্দন, শহীদ মল্লিকের ছেলে আতিয়ার, মোস্তাফার ছেলে মকলেচ, মামুনের স্ত্রী মিনি, আবু বাক্কার ছেলে দবির, মহিবুল্লাহের নাতনি রিনা, দুখু মিয়ার মেয়ে রুমিয়া ও জালালের স্ত্রী নার্গিস।

pran
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
bestelectronics

mans-world

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.