দৌলতদিয়ার আঁধার জীবন থেকে ৯৭ যুব পাচ্ছেন আলোর দিশা
jugantor
দৌলতদিয়ার আঁধার জীবন থেকে ৯৭ যুব পাচ্ছেন আলোর দিশা

  গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি  

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দেশের সর্ববৃহৎ যৌনপল্লী অবস্থিত রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়ায়। এনজিওর সহায়তায় কিছু ব্যতিক্রম ছাড়া এখানকার মেয়ে শিশুরা সাধারণত মায়েদের পেশায় যুক্ত হয়। ছেলে শিশুরা বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড ও ছোটখাটো কাজ করে জীবিকানির্বাহ করে থাকে। এ ধারা থেকে বের করে এবার পল্লীর যুবক ও যুব মহিলাদের সুন্দর জীবন দানে এগিয়ে এসেছে সরকারি বিভিন্ন সংস্থা। ইতোমধ্যে পল্লীর ১৬ থেকে ৩৫ বছর বয়সি ৯৭ জন যুবক ও যুব মহিলা প্রশিক্ষণ গ্রহণের জন্য নাম নিবন্ধন করেছেন। আশা করি প্রশিক্ষণ গ্রহণ শেষে তারা একটি সুন্দর জীবন লাভে সমর্থ হবেন। তাদের প্রচেষ্টার অংশ হিসাবে শনিবার যৌনপল্লীর শতাধিক যুবক ও যুব মহিলাকে বিভিন্ন সরকারি প্রশিক্ষণ গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করতে বিশেষ কর্মশালার আয়োজন করা হয়। সকাল ১০টায় স্থানীয় কেকেএস শিশু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এ কর্মশালার আয়োজন করে গোয়ালন্দ উপজেলা প্রশাসন। কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম। গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আজিজুল হক খান মামুন কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন। সঞ্চালনা করেন গোয়ালন্দ উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা দেওয়ান তোফায়েল হোসেন। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজবাড়ী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আব্দুল জব্বার, রাজবাড়ীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. মাহবুবুর রহমান শেখ, গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোস্তফা মুন্সী, জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপপরিচালক গৌতম চন্দ্র দে, রাজবাড়ী সরকারি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ ফাতেমা নার্গিস, জেলা মহিলা অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. আজমীর হোসেন, জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা রুবায়েত মো. ফেরদৌস, দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান মণ্ডল, যৌনপল্লীর নারী ও শিশুদের উন্নয়নে কর্মরত বেসরকারি সংগঠন মুক্তি মহিলা সমিতির নির্বাহী পরিচালক মর্জিনা বেগম প্রমুখ। যৌনপল্লীর শিশুদের সংগঠন চাইল্ড ক্লাবের সহসভাপতি বিজয় খান জানায়, সরকারিভাবে এ ধরনের প্রশিক্ষণের আয়োজন আমাদের জন্য এক বিরাট সুযোগ।

দৌলতদিয়ার আঁধার জীবন থেকে ৯৭ যুব পাচ্ছেন আলোর দিশা

 গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দেশের সর্ববৃহৎ যৌনপল্লী অবস্থিত রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়ায়। এনজিওর সহায়তায় কিছু ব্যতিক্রম ছাড়া এখানকার মেয়ে শিশুরা সাধারণত মায়েদের পেশায় যুক্ত হয়। ছেলে শিশুরা বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড ও ছোটখাটো কাজ করে জীবিকানির্বাহ করে থাকে। এ ধারা থেকে বের করে এবার পল্লীর যুবক ও যুব মহিলাদের সুন্দর জীবন দানে এগিয়ে এসেছে সরকারি বিভিন্ন সংস্থা। ইতোমধ্যে পল্লীর ১৬ থেকে ৩৫ বছর বয়সি ৯৭ জন যুবক ও যুব মহিলা প্রশিক্ষণ গ্রহণের জন্য নাম নিবন্ধন করেছেন। আশা করি প্রশিক্ষণ গ্রহণ শেষে তারা একটি সুন্দর জীবন লাভে সমর্থ হবেন। তাদের প্রচেষ্টার অংশ হিসাবে শনিবার যৌনপল্লীর শতাধিক যুবক ও যুব মহিলাকে বিভিন্ন সরকারি প্রশিক্ষণ গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করতে বিশেষ কর্মশালার আয়োজন করা হয়। সকাল ১০টায় স্থানীয় কেকেএস শিশু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এ কর্মশালার আয়োজন করে গোয়ালন্দ উপজেলা প্রশাসন। কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম। গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আজিজুল হক খান মামুন কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন। সঞ্চালনা করেন গোয়ালন্দ উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা দেওয়ান তোফায়েল হোসেন। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজবাড়ী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আব্দুল জব্বার, রাজবাড়ীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. মাহবুবুর রহমান শেখ, গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোস্তফা মুন্সী, জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপপরিচালক গৌতম চন্দ্র দে, রাজবাড়ী সরকারি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ ফাতেমা নার্গিস, জেলা মহিলা অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. আজমীর হোসেন, জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা রুবায়েত মো. ফেরদৌস, দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান মণ্ডল, যৌনপল্লীর নারী ও শিশুদের উন্নয়নে কর্মরত বেসরকারি সংগঠন মুক্তি মহিলা সমিতির নির্বাহী পরিচালক মর্জিনা বেগম প্রমুখ। যৌনপল্লীর শিশুদের সংগঠন চাইল্ড ক্লাবের সহসভাপতি বিজয় খান জানায়, সরকারিভাবে এ ধরনের প্রশিক্ষণের আয়োজন আমাদের জন্য এক বিরাট সুযোগ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন