মায়ের স্বপ্ন পূরণে শিক্ষক
jugantor
মায়ের স্বপ্ন পূরণে শিক্ষক

  পবিত্র তালুকদার, চাটমোহর (পাবনা)  

০৫ অক্টোবর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিশ্ববিদ্যালয় জীবন শেষ করে ইচ্ছা ছিল উচ্চপদস্থ কোনো কর্মকর্তা হয়ে শহরে জীবনযাপন করবেন। কিন্তু মায়ের ইচ্ছা ছিল গ্রামের নিরক্ষর ও হতদরিদ্র মানুষের মধ্যে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে ছেলে করবে শিক্ষকতা। শেষ পর্যন্ত মায়ের সেই স্বপ্ন পূরণ করতে এসএম শাহজাহান জাব্বারী বেছে নিয়েছিলেন শিক্ষকতা পেশা। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসাবে যোগদান করার পর কর্মজীবনে নিজ এলাকায় ছড়িয়েছেন শিক্ষার আলো। তার হাতে গড়া অনেক শিক্ষার্থীই আজ প্রতিষ্ঠিত। অবসরে গেলেও এলাকায় আজ তিনি ব্যাপক জনপ্রিয় একজন শিক্ষক। শুধু কী তাই, নিজের ছেলেমেয়েকে করেছেন উচ্চশিক্ষিত। এর মধ্যে বড় ছেলে কৃষিবিদ, একমাত্র মেয়ে শিক্ষক ও ছোট ছেলে চিকিৎসক। চাটমোহর উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল ধানকুনিয়া গ্রামের এ সফল শিক্ষক মায়ের স্বপ্ন পূরণ করতে পেরে খুব খুশি। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা প্রতিকূলতাকে পেছনে ফেলে ১৯৮৪ সালে মাস্টার্স সম্পন্ন করেন শাহজাহান জাব্বারী। মেধাবী শাহাজাহান জাব্বারীর বরাবরই ইচ্ছা ছিল কোনো কলেজে অধ্যাপনা বা উচ্চপদস্থ কোনো কর্মকর্তা হয়ে শহরে বসবাস করা। কিন্তু মায়ের ইচ্ছাকে প্রাধান্য দিয়ে শাহজাহান জাব্বারী চলে আসেন গ্রামের বাড়িতে।

মায়ের স্বপ্ন পূরণে শিক্ষক

 পবিত্র তালুকদার, চাটমোহর (পাবনা) 
০৫ অক্টোবর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিশ্ববিদ্যালয় জীবন শেষ করে ইচ্ছা ছিল উচ্চপদস্থ কোনো কর্মকর্তা হয়ে শহরে জীবনযাপন করবেন। কিন্তু মায়ের ইচ্ছা ছিল গ্রামের নিরক্ষর ও হতদরিদ্র মানুষের মধ্যে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে ছেলে করবে শিক্ষকতা। শেষ পর্যন্ত মায়ের সেই স্বপ্ন পূরণ করতে এসএম শাহজাহান জাব্বারী বেছে নিয়েছিলেন শিক্ষকতা পেশা। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসাবে যোগদান করার পর কর্মজীবনে নিজ এলাকায় ছড়িয়েছেন শিক্ষার আলো। তার হাতে গড়া অনেক শিক্ষার্থীই আজ প্রতিষ্ঠিত। অবসরে গেলেও এলাকায় আজ তিনি ব্যাপক জনপ্রিয় একজন শিক্ষক। শুধু কী তাই, নিজের ছেলেমেয়েকে করেছেন উচ্চশিক্ষিত। এর মধ্যে বড় ছেলে কৃষিবিদ, একমাত্র মেয়ে শিক্ষক ও ছোট ছেলে চিকিৎসক। চাটমোহর উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল ধানকুনিয়া গ্রামের এ সফল শিক্ষক মায়ের স্বপ্ন পূরণ করতে পেরে খুব খুশি। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা প্রতিকূলতাকে পেছনে ফেলে ১৯৮৪ সালে মাস্টার্স সম্পন্ন করেন শাহজাহান জাব্বারী। মেধাবী শাহাজাহান জাব্বারীর বরাবরই ইচ্ছা ছিল কোনো কলেজে অধ্যাপনা বা উচ্চপদস্থ কোনো কর্মকর্তা হয়ে শহরে বসবাস করা। কিন্তু মায়ের ইচ্ছাকে প্রাধান্য দিয়ে শাহজাহান জাব্বারী চলে আসেন গ্রামের বাড়িতে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : বিশ্ব শিক্ষক দিবস

০৫ অক্টোবর, ২০২১