ধর্মীয় উৎসবে বিশৃঙ্খলা বরদাস্ত করা হবে না: নৌ-পরিবহণ প্রতিমন্ত্রী
jugantor
ধর্মীয় উৎসবে বিশৃঙ্খলা বরদাস্ত করা হবে না: নৌ-পরিবহণ প্রতিমন্ত্রী

  দিনাজপুর প্রতিনিধি  

২৭ নভেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নৌ-পরিবহণ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি বলেছেন, বৈশ্বিক করোনা মহামারি পরিস্থিতিতেও একমাত্র বাংলাদেশেই সব ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান চালু ছিল এবং আছে। যেকোনো ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান বা ধর্মীয় উৎসবে কোনো প্রকার বিশৃঙ্খলা কোনোভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। সাম্প্রতিক কান্তজীউ মন্দিরে অনুষ্ঠিত রাস উৎসবে অপ্রীতিকর ঘটনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বিষয়টি সরকারের পক্ষ থেকে তদন্ত চলছে। তদন্তে যারা দোষী প্রমাণিত হবে, তারা কোনোভাবেই ছাড় পাবে না। তবে তদন্ত কার্যক্রম যাতে নির্বিঘ্নে চলে সে ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতা কামনা করেন তিনি। পাশাপাশি যে কোনো উৎসবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি। শুক্রবার দুপুরে কাহারোল উপজেলার কান্তজিউ মন্দির প্রাঙ্গণে দিনাজপুর রাজ দেবোত্তর এস্টেটের দেওয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সংসদ-সদস্য ও বাংলাদেশ হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্টের সহ-সভাপতি মনোরঞ্জন শীল গোপাল। দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ বারিউল করিম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল ইমাম চৌধুরী, কাহারোল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনিরুল হাসান, দিনাজপুর জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি স্বরূপ বক্সী বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক উত্তম কুমার রায় প্রমুখ। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন রাজ দেবোত্তর এস্টেটের এজেন্ট রণজিৎ সিংহ। অনুষ্ঠানে কান্তজীউ মন্দিরে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা স্থাপনের জন্য একটি মনিটর প্রদান করেন নৌ-পরিবহণ প্রতিমন্ত্রী।

ধর্মীয় উৎসবে বিশৃঙ্খলা বরদাস্ত করা হবে না: নৌ-পরিবহণ প্রতিমন্ত্রী

 দিনাজপুর প্রতিনিধি 
২৭ নভেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নৌ-পরিবহণ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি বলেছেন, বৈশ্বিক করোনা মহামারি পরিস্থিতিতেও একমাত্র বাংলাদেশেই সব ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান চালু ছিল এবং আছে। যেকোনো ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান বা ধর্মীয় উৎসবে কোনো প্রকার বিশৃঙ্খলা কোনোভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। সাম্প্রতিক কান্তজীউ মন্দিরে অনুষ্ঠিত রাস উৎসবে অপ্রীতিকর ঘটনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বিষয়টি সরকারের পক্ষ থেকে তদন্ত চলছে। তদন্তে যারা দোষী প্রমাণিত হবে, তারা কোনোভাবেই ছাড় পাবে না। তবে তদন্ত কার্যক্রম যাতে নির্বিঘ্নে চলে সে ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতা কামনা করেন তিনি। পাশাপাশি যে কোনো উৎসবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি। শুক্রবার দুপুরে কাহারোল উপজেলার কান্তজিউ মন্দির প্রাঙ্গণে দিনাজপুর রাজ দেবোত্তর এস্টেটের দেওয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সংসদ-সদস্য ও বাংলাদেশ হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্টের সহ-সভাপতি মনোরঞ্জন শীল গোপাল। দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ বারিউল করিম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল ইমাম চৌধুরী, কাহারোল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনিরুল হাসান, দিনাজপুর জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি স্বরূপ বক্সী বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক উত্তম কুমার রায় প্রমুখ। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন রাজ দেবোত্তর এস্টেটের এজেন্ট রণজিৎ সিংহ। অনুষ্ঠানে কান্তজীউ মন্দিরে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা স্থাপনের জন্য একটি মনিটর প্রদান করেন নৌ-পরিবহণ প্রতিমন্ত্রী।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন