সাঁথিয়ায় বোনসহ ৩ জনকে পিটিয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ
jugantor
সাঁথিয়ায় বোনসহ ৩ জনকে পিটিয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ

  সাঁথিয়া (পাবনা) প্রতিনিধি  

০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সাঁথিয়ায় বসতঘর ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কায় পুকুরের পাড় বাঁধতে বলায় ভাইয়ের হাতের বোন ও ভাগনেসহ ৩ জনকে মারাত্মকভাবে পিটিয়ে ও পানিতে চুবিয়ে শ্বাসরোধ হত্যার চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার নন্দনপুর ইউনিয়নের রাঙ্গামাটি গ্রামে। এ ঘটনায় তৈয়ব আলীর ছেলে শামীম হোসেন বাদী হয়ে সাঁথিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দেন।

অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার নন্দনপুর ইউনিয়নের রাঙ্গামাটি গ্রামের তৈয়ব আলীর বসতঘর ঘেঁষে পুকুর খনন করে একই গ্রামের তারই স্ত্রীর ভাই নাসির উদ্দিন। বৃহস্পতিবার তৈয়ব আলীর বসতঘর ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কায় পুকুরের পাড় বাঁধতে বলায় পুকুরের মালিক নাসির উদ্দিন পরিবারের লোকজন নিয়ে তার বোন তৈয়ব আলীর স্ত্রী হেনা খাতুন, ছেলে আল আমিন ও বাদশাকে বেদম মারধর করে এবং আহত বোন হেনাকে পুকুরের পানিতে চুবিয়ে এবং ভাগনে আল-আমিনকে গলা টিপে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করে। আল-আমিনকে গলাটিপে ধরায় ছোট ভাই বাদশা এগিয়ে এলে তাকেও মারধর করে। এ সময় স্ব^জনরা আহতদের উদ্ধার করে সাঁথিয়া হাসপাতালে ভর্তি করেন। হেনা খাতুন ও আল আমিনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের পাবনা সদর হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। এ ঘটনায় তৈয়ব আলীর ছেলে শামীম বাদী হয়ে সাঁথিয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেন। সাঁথিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসিফ মোহাম্মদ সিদ্দিকুল ইসলাম জানান, তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সাঁথিয়ায় বোনসহ ৩ জনকে পিটিয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ

 সাঁথিয়া (পাবনা) প্রতিনিধি 
০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সাঁথিয়ায় বসতঘর ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কায় পুকুরের পাড় বাঁধতে বলায় ভাইয়ের হাতের বোন ও ভাগনেসহ ৩ জনকে মারাত্মকভাবে পিটিয়ে ও পানিতে চুবিয়ে শ্বাসরোধ হত্যার চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার নন্দনপুর ইউনিয়নের রাঙ্গামাটি গ্রামে। এ ঘটনায় তৈয়ব আলীর ছেলে শামীম হোসেন বাদী হয়ে সাঁথিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দেন।

অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার নন্দনপুর ইউনিয়নের রাঙ্গামাটি গ্রামের তৈয়ব আলীর বসতঘর ঘেঁষে পুকুর খনন করে একই গ্রামের তারই স্ত্রীর ভাই নাসির উদ্দিন। বৃহস্পতিবার তৈয়ব আলীর বসতঘর ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কায় পুকুরের পাড় বাঁধতে বলায় পুকুরের মালিক নাসির উদ্দিন পরিবারের লোকজন নিয়ে তার বোন তৈয়ব আলীর স্ত্রী হেনা খাতুন, ছেলে আল আমিন ও বাদশাকে বেদম মারধর করে এবং আহত বোন হেনাকে পুকুরের পানিতে চুবিয়ে এবং ভাগনে আল-আমিনকে গলা টিপে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করে। আল-আমিনকে গলাটিপে ধরায় ছোট ভাই বাদশা এগিয়ে এলে তাকেও মারধর করে। এ সময় স্ব^জনরা আহতদের উদ্ধার করে সাঁথিয়া হাসপাতালে ভর্তি করেন। হেনা খাতুন ও আল আমিনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের পাবনা সদর হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। এ ঘটনায় তৈয়ব আলীর ছেলে শামীম বাদী হয়ে সাঁথিয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেন। সাঁথিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসিফ মোহাম্মদ সিদ্দিকুল ইসলাম জানান, তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন