উপকূলের ২৯০ গ্রামে কমিউনিটি সেভিং গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করছে সরকার
jugantor
সামুদ্রিক মৎস্য সম্পদ উন্নয়ন
উপকূলের ২৯০ গ্রামে কমিউনিটি সেভিং গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করছে সরকার

  বরিশাল ব্যুরো  

০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সামুদ্রিক মৎস্য সম্পদ উন্নয়নে বরিশালে উপকূলের ২৯০টি গ্রামে কমিউনিটি সেভিং গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করতে যাচ্ছে সরকার। এর আওতায় বিভাগের ২৯ উপজেলার ৩৪ হাজার জেলে সুবিধাভোগী হবেন। এ লক্ষ্যে সারাদেশে ১ হাজার ৮৯০ কোটি টাকা ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে। রোববার বরিশালে কর্মশালায় মৎস্য অধিদপ্তর এ তথ্য জানিয়েছে। সাসটেইনেবল কোস্টাল অ্যান্ড মেরিন ফিশারিজ প্রকল্পের আওতায় অনুষ্ঠিত অবহিতকরণ কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মো. আব্দুর রাজ্জাক। সভাপতিত্ব করেন প্রকল্পের উপপ্রকল্প পরিচালক কামরুল ইসলাম। তিনি জানান, প্রকল্পের আওতায় বরিশালে উপকূলের ২৯০টি গ্রামে কমিউনিটি সেভিং গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করা হবে। এর মধ্যে ১০০ জেলে গ্রাম প্রতিষ্ঠা করা হবে। বরিশাল বিভাগের ২৯টি উপজেলা এ প্রকল্পের আওতায় রয়েছে। প্রধান অতিথি মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আমাদের সমুদ্রসীমা বেড়েছে। ব্লু-ইকোনোমির সুবিধা নিতে সামদ্রিক মাছের আহরণে সচেষ্ট হতে হবে। কর্মশালায় বাংলাদেশ গ্রিন ইউনিভার্সিটির প্রশিক্ষক ড. মো. ওয়ালিউর রহমান, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান, সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সঞ্জিব সন্যামত, মৎস্য কর্মকর্তা বিমল চন্দ্র দাস, বরিশাল প্রেস ক্লাব সম্পাদক কাজী মিরাজ মাহমুদ উপস্থিত ছিলেন।

সামুদ্রিক মৎস্য সম্পদ উন্নয়ন

উপকূলের ২৯০ গ্রামে কমিউনিটি সেভিং গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করছে সরকার

 বরিশাল ব্যুরো 
০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সামুদ্রিক মৎস্য সম্পদ উন্নয়নে বরিশালে উপকূলের ২৯০টি গ্রামে কমিউনিটি সেভিং গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করতে যাচ্ছে সরকার। এর আওতায় বিভাগের ২৯ উপজেলার ৩৪ হাজার জেলে সুবিধাভোগী হবেন। এ লক্ষ্যে সারাদেশে ১ হাজার ৮৯০ কোটি টাকা ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে। রোববার বরিশালে কর্মশালায় মৎস্য অধিদপ্তর এ তথ্য জানিয়েছে। সাসটেইনেবল কোস্টাল অ্যান্ড মেরিন ফিশারিজ প্রকল্পের আওতায় অনুষ্ঠিত অবহিতকরণ কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মো. আব্দুর রাজ্জাক। সভাপতিত্ব করেন প্রকল্পের উপপ্রকল্প পরিচালক কামরুল ইসলাম। তিনি জানান, প্রকল্পের আওতায় বরিশালে উপকূলের ২৯০টি গ্রামে কমিউনিটি সেভিং গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করা হবে। এর মধ্যে ১০০ জেলে গ্রাম প্রতিষ্ঠা করা হবে। বরিশাল বিভাগের ২৯টি উপজেলা এ প্রকল্পের আওতায় রয়েছে। প্রধান অতিথি মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আমাদের সমুদ্রসীমা বেড়েছে। ব্লু-ইকোনোমির সুবিধা নিতে সামদ্রিক মাছের আহরণে সচেষ্ট হতে হবে। কর্মশালায় বাংলাদেশ গ্রিন ইউনিভার্সিটির প্রশিক্ষক ড. মো. ওয়ালিউর রহমান, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান, সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সঞ্জিব সন্যামত, মৎস্য কর্মকর্তা বিমল চন্দ্র দাস, বরিশাল প্রেস ক্লাব সম্পাদক কাজী মিরাজ মাহমুদ উপস্থিত ছিলেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন