ধামরাইয়ে জন্ম সনদের টাকা আত্মসাতের তদন্ত শুরু
jugantor
ধামরাইয়ে জন্ম সনদের টাকা আত্মসাতের তদন্ত শুরু

  ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি  

২৬ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকার ধামরাইয়ের রোয়ালইল ইউনিয়ন পরিষদের জন্মনিবন্ধন সনদের ৩৫ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। তা-ও আবার সাবেক চেয়ারম্যান মো. আবুল কালাম সামসুদ্দিন মিন্টুর বিরুদ্ধে। তিনি ৫ বছরে সচিবের কাউন্টার সই না নিয়েই জন্মনিবন্ধনের সনদ প্রদান করে সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে ৩৫ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন। ১নং ওয়ার্ড সদস্য নেপাল চন্দ্র সাহা লিখিতভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগে করেন। তিনি উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. মোখলেসুর রহমানের ওপর তদন্তভার ন্যস্ত করেন।

জানা যায়, সাবেক চেয়ারম্যান মো. আবুল কালাম সামসুদ্দিন মিন্টুর ৫ বছরে সচিবের কাউন্টার সই ছাড়াই জন্মনিবন্ধন সনদ প্রদান করতেন। আদায়কৃত টাকা সচিব কিংবা সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে তিনি তা আত্মসাৎ করেন। মো. আবুল কালাম সামসুদ্দিন মিন্টু বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

ধামরাইয়ে জন্ম সনদের টাকা আত্মসাতের তদন্ত শুরু

 ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি 
২৬ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকার ধামরাইয়ের রোয়ালইল ইউনিয়ন পরিষদের জন্মনিবন্ধন সনদের ৩৫ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। তা-ও আবার সাবেক চেয়ারম্যান মো. আবুল কালাম সামসুদ্দিন মিন্টুর বিরুদ্ধে। তিনি ৫ বছরে সচিবের কাউন্টার সই না নিয়েই জন্মনিবন্ধনের সনদ প্রদান করে সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে ৩৫ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন। ১নং ওয়ার্ড সদস্য নেপাল চন্দ্র সাহা লিখিতভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগে করেন। তিনি উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. মোখলেসুর রহমানের ওপর তদন্তভার ন্যস্ত করেন।

জানা যায়, সাবেক চেয়ারম্যান মো. আবুল কালাম সামসুদ্দিন মিন্টুর ৫ বছরে সচিবের কাউন্টার সই ছাড়াই জন্মনিবন্ধন সনদ প্রদান করতেন। আদায়কৃত টাকা সচিব কিংবা সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে তিনি তা আত্মসাৎ করেন। মো. আবুল কালাম সামসুদ্দিন মিন্টু বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন