নিয়ামতপুরে অধিক ফলনেও হাসি নেই কৃষকের মুখে

  নিয়ামতপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধি ২২ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

চলতি বোরো মৌসুমে বোরোর বাম্পার ফলনেও নিয়ামতপুর উপজেলার কৃষকদের মুখে নেই হাসি। চাষাবাদে বেশি খরচ, বৈরী আবহাওয়ায় ধান ঘরে তুলতে শ্রমিকের অতিরিক্ত মজুরি, ধানের রং নষ্ট ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যসামগ্রীর মূল্যবৃদ্ধিই এর কারণ। সব মিলিয়ে জমিতে বোরোর ভালো ফলন হলেও কৃষকের মুখে নেই হাসি।

সোমবার ছাতড়াহাটে গিয়ে কৃষক ও ধান ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, হাটে ধানের বাজার মূল্য ভালো। প্রতিমণ ভালো ধান বিক্রি হচ্ছে ৮০০ থেকে ৯০০ টাকা। আর যেসব ধান বৃষ্টির পানিতে ডুবে থাকায় রং নষ্ট হয়ে গেছে বা কৃষক এখনও ভালো করে শুকাতে পারেননি এমন ধানের মূল্য তুলনামূলক কম। এসব ধান ৬৫০ থেকে ৮০০ টাকায় কেনাবেচা হচ্ছে।

উপজেলার ধানের সবচেয়ে বড় হাট ছাতড়াহাট। হাটটিতে উপজেলা সদরসহ পার্শ্ববর্তী মান্দা, মহাদেবপুর, পোরশা উপজেলার কৃষকদের উৎপাদিত ধান নিয়ে আসেন কৃষকরা। এছাড়াও বড় বড় অটোরাইস মিলের মালিকপক্ষ চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নওগাঁ ও জয়পুরহাট জেলা থেকেও আসেন ধান কিনতে।

ছাতড়াহাটে ধান বিক্রি করতে আসা উপজেলার চন্দননগর চাঁনপাড়া গ্রামের কৃষক সাদেকুল জানান, তিনি এক বিঘা জমিতে সর্বোচ্চ ফলন পেয়েছেন ২৪ মণ। যার বাজার মূল্য প্রায় ২২ হাজার টাকা। কিন্তু এ ধান ঘরে তুলতে তার সেচ ও অতিরিক্ত শ্রমিক মূল্যে খরচ হয়েছে প্রায় ১৬ থেকে ১৭ হাজার টাকা। এতে নামমাত্র কিছু লাভ থাকলেও পণ্যদ্রব্যের ঊর্ধ্বগতিতে হতাশ তিনি। ধান ব্যবসায়ী (আড়তদার) মামুন জানান, তিনি ভালো দাম দিয়েই ধান কিনছেন। জিরা ধান সর্বোচ্চ ৯০০ টাকা ও যেসব ধান ভেজা বা রং কালছে ধরনের সেরকম ধান আরও ১০০ টাকা কম দামে কিনছেন তিনি। সব মিলে কৃষক ভালো দাম পাচ্ছেন, বলেন তিনি।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আমীর আবদুল্লাহ মোহা ওয়াহিদুজ্জামান জানান, চলতি বোরো মৌসুমে উপজেলার আটটি ইউনিয়নে ২১ হাজার ৪৮৫ হেক্টর জমিতে বোরোর চাষ হয়েছে। বৈরী আবহাওয়ায় ঝড়-বৃষ্টিতে কৃষক একটু বিপদে পড়লেও শেষ পর্যন্ত বোরো ধান ভালোভাবেই ঘরে তুলেছেন কৃষক। ফলনও পেয়েছেন ভালো।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.