তিন স্থানে হামলা-সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

  কিশোরগঞ্জ ব্যুরো, হবিগঞ্জ ও বেনাপোল প্রতিনিধি ২২ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বাজিতপুর উপজেলার হিলচিয়া ইউনিয়নের পুড্ডার মসজিদপাড়া গ্রামে সোমবার এমদাদুল হক টিটুসহ ৩-৪ জন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মোজাম্মেল হক মিস্টুর বাড়িঘর ভাংচুর, লুটপাট ও ৩ জনকে আহত করেছে। আহতদের মধ্যে গুরুতর মনির মিয়াকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। জানা গেছে, শনিবার থেকে শুরু করে দফায় দফায় সোমবার পর্যন্ত এমদাদুল হক টিটুর লোকজন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মোজাম্মেল হক মিস্টুর বাড়িতে হামলা ভাংচুর করে প্রায় ২ লাখ টাকার ক্ষতিসাধন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে মোজাম্মেল হক মিস্টু মিয়া বাদী হয়ে থানায় বিকালে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এদিকে হবিগঞ্জে গরুর খড় খাওয়া নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে দু’দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে অন্তত অর্ধশত লোক আহত হয়েছেন। তাদের বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। এদিকে হাসপাতাল থেকে পুলিশ ১৩ দাঙ্গাবাজকে আটক করেছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, সোমবার সকালে সদর উপজেলার হুরগাঁও গ্রামের আয়াত আলীর ধানের খর খায় একই গ্রামের শামীম মিয়ার গরু। এ নিয়ে তাদের মাঝে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে সকাল ৮টার দিকে উভয়পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।

অপরদিকে দেড় শতক জমি নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরে বেনাপোলের গয়ড়া গ্রামে রোববার রাত ১১টার দিকে তিন বসতঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর, লুটপাট ও পিটিয়ে দু’জনকে আহত করেছে প্রতিপক্ষ।

এলাকাবাসী জানান, গয়ড়া গ্রামের আহাদ আলীর কাছে ওই গ্রামের মাসুদ সরদার দেড় শতক জমি পাবে বলে দাবি করে আসছে। এ ঘটনায় দীর্ঘদিন ধরে আদালতে মামলা চলছে। এর জের ধরে সরদার বাড়ির কতিপয় সন্ত্রাসী ইশারুল, আহাদ ও রেজাইলের বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় তিনটি বাড়িতে সন্ত্রাসীরা তাণ্ডব চালিয়ে ভাংচুর ও মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এ সময় ইশারুল ও তার স্ত্রী রহিমাকে পিটিয়ে আহত করা হয়। ইশরুলের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

শার্শা থানার ওসি মশিউর রহমান জানান, ভাংচুরের ঘটনা শুনেছি। তবে কোনো পক্ষই এখন পর্যন্ত থানায় কোনো অভিযোগ করেনি।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
bestelectronics

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.