বগুড়ায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাসহ ১০ জনের নামে চাঁদাবাজি মামলা

  বগুড়া ব্যুরো ২৩ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বগুড়ার শিবগঞ্জে কাজী কোল্ড স্টোরেজের ম্যানেজারের কাছে দেড় লাখ টাকা চাঁদা না পেয়ে মারধর ও ছুরিকাঘাত করার অভিযোগে বিহার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিদুল ইসলামসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে থানায় চাঁদাবাজির মামলা হয়েছে। সোমবার রাতে এ মামলার পরপরই পুলিশ দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে। এরা হল হোসেন ও রিপন মিয়া। শিবগঞ্জ উপজেলার ধামাহার এলাকার কাজী কোল্ড স্টোরেজের ম্যানেজার ও সিংগারগাড়ি গ্রামের ফকির উদ্দিনের ছেলে তাহেরুল ইসলাম এজাহারে উল্লেখ করেন, চেয়ারম্যান ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মহিদুল একমাস আগে থেকে তার কাছে দেড় লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছেন। রোববার বিকালে তিনি ধান কেনার জন্য শিবগঞ্জ থেকে এক লাখ টাকা নিয়ে মোটরসাইকেলে ধামাহারে কোল্ড স্টোরেজে যাচ্ছিলেন। লালদহ এলাকায় পৌঁছলে মহিদুল ইসলাম মাইক্রোবাস দিয়ে তার পথরোধ করে। এরপর গ্রামপুলিশ দিয়ে তাকে আটক করে ইউপি কার্যালয়ের একটি কক্ষে বন্দি করা হয়। পরে চেয়ারম্যান মহিদুলের ফোনে বিভিন্ন অস্ত্রে সজ্জিত সন্ত্রাসী বাহিনী সেখানে আসে। তারা হকিস্টিক দিয়ে বেদম মারধর ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাত করে। পকেট থেকে এক লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয়া হয়। খবর পেয়ে তার (তাহেরুল) চাচাতো ভাই ইসমাইল হোসেন এগিয়ে এলে তাকেও হাঁসুয়া দিয়ে আঘাত করা হয়। স্ত্রী ববিতা বেগম এলে তাকেও সন্ত্রাসীরা ধাওয়া করে তাড়িয়ে দেয়। ইউপি চেয়ারম্যান ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মহিদুল ইসলাম কোল্ড স্টোরেজের ম্যানেজারের কাছে চাঁদা দাবি ও তাকে তুলে নিয়ে মারধরের অভিযোগ দৃঢতার সাথে অস্বীকার করেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×