গুরুদাসপুরে নববধূ নিহতের ঘটনায় মামলা নেয়নি পুলিশ

  গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি ২৩ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

যৌতুক দিয়ে ৪ মাস আগে বাবু আকন্দের একমাত্র মেয়েকে বিয়ে দেন সদর উপজেলার আবদুল কুদ্দুসের ছেলে হাফিজের সঙ্গে। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের দাবিতে নির্যাতনের শিকার হন ওই নববধূ। মঙ্গলবার হত্যার দ্বিতীয় দিনে পেরুলেও এখনও মামলা নিচ্ছে না নাটোরের সদর থানা পুলিশ। উল্টো ওই পরিবারকে মামলা না করার জন্য দফায় দফায় হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ স্বজনদের।

জানা যায়, গুরুদাসপুর উপজেলার চাপিলা ইউনিয়নের বৃ-চাপিলা গ্রামের বাবু আকন্দের মেয়ে আনেছা বেগমের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী নাটোর সদর উপজেলার হালসা ইউনিয়নের অর্জুনপুর গ্রামের আবদুল কুদ্দুসের ছেলে হাফিজুল ইসলামের সঙ্গে ৪ মাস আগে বিয়ে হয়। সোমবার ভোরে তাকে হত্যা করে শয়ন ঘরে গলায় রশি বেঁধে ঝুলিয়ে রেখে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়িসহ অন্যরা।

নিহতের বাবা বাবু আকন্দ জানান, তার মেয়ের বাম গালসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের দাগ রয়েছে। বারবার থানায় ধরনা দিলেও ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত কোনো মামলা নেয়া হবে না বলে পুলিশের পক্ষ থেকে তাকে জানানো হয়েছে। নাটোর সদর থানার ওসি মশিউর রহমান জানান, মৃতের বাবা ইউডি মামলা করেছে। ময়নাতদন্ত করানো হয়েছে। রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত হত্যা কি আত্মহত্যা সেটা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। তবে ছুরতহাল রিপোর্টে সন্দেহের কারণে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
bestelectronics

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.