দোষীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন
jugantor
গোলাপগঞ্জে স্কুলছাত্রের মৃত্যু
দোষীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

  গোলাপগঞ্জ (সিলেট) প্রতিনিধি  

২৬ জুন ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

গোলাপগঞ্জের ভাদেশ্বর পশ্চিমভাগ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র রাফি আহমদের মৃত্যুর জন্য দায়ী প্রধান শিক্ষক ও নৈশপ্রহরী বিচারের দাবিতে শুক্রবার বিকালে এলাকায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে ভাদেশ্বর মোকামবাজার এলাকাবাসীর উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট মুরব্বি আলা উদ্দিন। ভাদেশ্বর আল খায়ের ইসলামি পরিষদের সভাপতি হাফিজ মো. তোফায়েলের পরিচালনায় এতে বক্তব্য দেন সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সদস্য ও নিহত শিক্ষার্থী রাফির চাচা সহির উদ্দিন শরিফ, মোকাম বাজার বণিক সমিতির সভাপতি কাজী রাজু আহমদ প্রমুখ। ফুটবল খেলে শিক্ষার্থীরা শরীরে লেগে থাকা কাদা স্কুলের ট্যাপে পরিষ্কার করতে না দিয়ে, নদী ও পুকুরে পরিষ্কার করার কথা বলা হয়। নদীতে পরিষ্কার করতে গিয়ে নদীর পানিতে ডুবে মারা যায় রাফি। রাফির চাচা সহির উদ্দিন শরিফ শনিবার যুগান্তরকে বলেন, স্কুলের প্রধান শিক্ষক অনাথ বন্ধু দাস ও নৈশপ্রহরী আকবর আলী ঘটনার পর থেকে স্কুলে আসা বন্ধ করে দিয়েছেন।

গোলাপগঞ্জে স্কুলছাত্রের মৃত্যু

দোষীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

 গোলাপগঞ্জ (সিলেট) প্রতিনিধি 
২৬ জুন ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

গোলাপগঞ্জের ভাদেশ্বর পশ্চিমভাগ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র রাফি আহমদের মৃত্যুর জন্য দায়ী প্রধান শিক্ষক ও নৈশপ্রহরী বিচারের দাবিতে শুক্রবার বিকালে এলাকায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে ভাদেশ্বর মোকামবাজার এলাকাবাসীর উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট মুরব্বি আলা উদ্দিন। ভাদেশ্বর আল খায়ের ইসলামি পরিষদের সভাপতি হাফিজ মো. তোফায়েলের পরিচালনায় এতে বক্তব্য দেন সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সদস্য ও নিহত শিক্ষার্থী রাফির চাচা সহির উদ্দিন শরিফ, মোকাম বাজার বণিক সমিতির সভাপতি কাজী রাজু আহমদ প্রমুখ। ফুটবল খেলে শিক্ষার্থীরা শরীরে লেগে থাকা কাদা স্কুলের ট্যাপে পরিষ্কার করতে না দিয়ে, নদী ও পুকুরে পরিষ্কার করার কথা বলা হয়। নদীতে পরিষ্কার করতে গিয়ে নদীর পানিতে ডুবে মারা যায় রাফি। রাফির চাচা সহির উদ্দিন শরিফ শনিবার যুগান্তরকে বলেন, স্কুলের প্রধান শিক্ষক অনাথ বন্ধু দাস ও নৈশপ্রহরী আকবর আলী ঘটনার পর থেকে স্কুলে আসা বন্ধ করে দিয়েছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন