বড়লেখায় চার প্রধান শিক্ষককে শোকজ
jugantor
শোক দিবসে দায়সারা আয়োজন
বড়লেখায় চার প্রধান শিক্ষককে শোকজ

  বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি  

১৮ আগস্ট ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বড়লেখায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস দায়সারাভাবে পালনের অভিযোগে চারটি প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে উপজেলা শিক্ষা অফিস। উপজেলা ভারপ্রাপ্ত শিক্ষা কর্মকর্তা মীর আব্দুল্লাহ আল মামুন স্বাক্ষরিত চিঠিতে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকদের আগামী তিন কর্মদিবসের মধ্যে শোকজের জবাব দিতে বলা হয়েছে। শোকজপ্রাপ্তরা হলেন বড়লেখা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রণজিত কুমার দাস, ছোটলেখা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রতাপ কুমার দত্ত, বিওসি কেছরিগুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মীর মুহিবুর রহমান ও সোনাতুলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জামিল আহমদ। বুধবার দুপুরে তারা শোকজ লেটার পেয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মীর আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, সরকারি নির্দেশনা থাকা সত্ত্বেও চার প্রতিষ্ঠানপ্রধান দায়সারাভাবে শোক দিবস পালন করেন। বিষয়টি দৃষ্টিগোচর হলে ইউএনও স্যার প্রতিষ্ঠানপ্রধানদের শোকজ করতে নির্দেশ দেন।

শোক দিবসে দায়সারা আয়োজন

বড়লেখায় চার প্রধান শিক্ষককে শোকজ

 বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি 
১৮ আগস্ট ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বড়লেখায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস দায়সারাভাবে পালনের অভিযোগে চারটি প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে উপজেলা শিক্ষা অফিস। উপজেলা ভারপ্রাপ্ত শিক্ষা কর্মকর্তা মীর আব্দুল্লাহ আল মামুন স্বাক্ষরিত চিঠিতে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকদের আগামী তিন কর্মদিবসের মধ্যে শোকজের জবাব দিতে বলা হয়েছে। শোকজপ্রাপ্তরা হলেন বড়লেখা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রণজিত কুমার দাস, ছোটলেখা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রতাপ কুমার দত্ত, বিওসি কেছরিগুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মীর মুহিবুর রহমান ও সোনাতুলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জামিল আহমদ। বুধবার দুপুরে তারা শোকজ লেটার পেয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মীর আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, সরকারি নির্দেশনা থাকা সত্ত্বেও চার প্রতিষ্ঠানপ্রধান দায়সারাভাবে শোক দিবস পালন করেন। বিষয়টি দৃষ্টিগোচর হলে ইউএনও স্যার প্রতিষ্ঠানপ্রধানদের শোকজ করতে নির্দেশ দেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন