বাসযোগ্য ঢাকার জন্য ৯ দফা কর্মসূচি দাবি
jugantor
সাত সংগঠনের নাগরিক ইশতেহার
বাসযোগ্য ঢাকার জন্য ৯ দফা কর্মসূচি দাবি

  যুগান্তর রিপোর্ট  

৩০ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন সামনে রেখে বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে নাগরিক ইশতেহার প্রকাশ করেছে সাতটি সংগঠন। এতে তারা বাসযোগ্য ঢাকা গড়ে তুলতে সম্ভাব্য নতুন মেয়রদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

‘আগামী ঢাকা : নাগরিক ইশতেহার ২০২০’ শীর্ষক এ ইশতেহারে বলা হয়, শুধু ঢাকাকেন্দ্রিক উন্নয়নের এককেন্দ্রিক দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করে অন্যান্য বিভাগীয় ও জেলা শহরে অবকাঠামো উন্নয়ন, নাগরিক পরিষেবা ও নগর অর্থনীতি চাঙ্গা করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে এমন পদক্ষেপ নিতে হবে। শুধু ঢাকাকেন্দ্রিক উন্নয়ন এ শহরকে বসবাসের অযোগ্য করে তুলছে। তাই নয়টি কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। এগুলো হচ্ছে- যথেচ্ছ ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ, ভূমি-খাল দখলমুক্তকরণ ও জলাবদ্ধতা দূরীকরণে পদক্ষেপ নিতে হবে। যানজট, নগর পরিবহন এবং পরিবেশ, নারী ও প্রতিবন্ধীবান্ধব গণপরিবহন ব্যবস্থার প্রচলন করতে হবে। নাগরিক নিরাপত্তা এবং নারীবান্ধব সড়ক ও পাবলিক প্লেস সৃষ্টি করতে হবে। নাগরিকরা আবর্জনা ও দূষণমুক্ত সবুজ ঢাকা দেখতে চায়। এ ব্যাপারে মেয়রদের ভূমিকা দেখতে চাই। শিশু, বয়োজ্যেষ্ঠসহ সব শ্রেণি, লিঙ্গ, প্রজন্মের জন্য উন্মুক্ত স্থান পার্ক খেলার মাঠ ও নগর ঐতিহ্য সংরক্ষণ করতে হবে। উন্নত নাগরিক পরিষেবা ও পরিষেবা ব্যবস্থার বিকেন্দ্রীকরণ করতে হবে। বাড়িভাড়া নিয়ন্ত্রণ ও সবার জন্য সাশ্রয়ী এবং নিরাপদ আবাসন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা সিটি কর্পোরেশনের দায়িত্ব। বাজার মনিটরিং, নিরাপদ খাবার ও বাজার মূল্য নির্ধারণ করতে হবে সিটি কর্পোরেশনকে। সুষম ও প্রগতিশীল কর ব্যবস্থাপনা চাই। অনুষ্ঠানে আরও অংশ নেন, গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলনের জেনারেল সেক্রেটারি মোস্তফা মনোয়ার, কেয়ার বাংলাদেশের ডিরেক্টর আমানুর রহমান, বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব প্ল্যানার্সের সাধারণ সম্পাদক ড. আদিল মুহাম্মাদ খান, কোয়ালিশন ফর আরবান পুওরের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর খন্দকার রেবেকা খান ইয়াত প্রমুখ।

সাত সংগঠনের নাগরিক ইশতেহার

বাসযোগ্য ঢাকার জন্য ৯ দফা কর্মসূচি দাবি

 যুগান্তর রিপোর্ট 
৩০ জানুয়ারি ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন সামনে রেখে বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে নাগরিক ইশতেহার প্রকাশ করেছে সাতটি সংগঠন। এতে তারা বাসযোগ্য ঢাকা গড়ে তুলতে সম্ভাব্য নতুন মেয়রদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

‘আগামী ঢাকা : নাগরিক ইশতেহার ২০২০’ শীর্ষক এ ইশতেহারে বলা হয়, শুধু ঢাকাকেন্দ্রিক উন্নয়নের এককেন্দ্রিক দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করে অন্যান্য বিভাগীয় ও জেলা শহরে অবকাঠামো উন্নয়ন, নাগরিক পরিষেবা ও নগর অর্থনীতি চাঙ্গা করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে এমন পদক্ষেপ নিতে হবে। শুধু ঢাকাকেন্দ্রিক উন্নয়ন এ শহরকে বসবাসের অযোগ্য করে তুলছে। তাই নয়টি কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। এগুলো হচ্ছে- যথেচ্ছ ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ, ভূমি-খাল দখলমুক্তকরণ ও জলাবদ্ধতা দূরীকরণে পদক্ষেপ নিতে হবে। যানজট, নগর পরিবহন এবং পরিবেশ, নারী ও প্রতিবন্ধীবান্ধব গণপরিবহন ব্যবস্থার প্রচলন করতে হবে। নাগরিক নিরাপত্তা এবং নারীবান্ধব সড়ক ও পাবলিক প্লেস সৃষ্টি করতে হবে। নাগরিকরা আবর্জনা ও দূষণমুক্ত সবুজ ঢাকা দেখতে চায়। এ ব্যাপারে মেয়রদের ভূমিকা দেখতে চাই। শিশু, বয়োজ্যেষ্ঠসহ সব শ্রেণি, লিঙ্গ, প্রজন্মের জন্য উন্মুক্ত স্থান পার্ক খেলার মাঠ ও নগর ঐতিহ্য সংরক্ষণ করতে হবে। উন্নত নাগরিক পরিষেবা ও পরিষেবা ব্যবস্থার বিকেন্দ্রীকরণ করতে হবে। বাড়িভাড়া নিয়ন্ত্রণ ও সবার জন্য সাশ্রয়ী এবং নিরাপদ আবাসন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা সিটি কর্পোরেশনের দায়িত্ব। বাজার মনিটরিং, নিরাপদ খাবার ও বাজার মূল্য নির্ধারণ করতে হবে সিটি কর্পোরেশনকে। সুষম ও প্রগতিশীল কর ব্যবস্থাপনা চাই। অনুষ্ঠানে আরও অংশ নেন, গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলনের জেনারেল সেক্রেটারি মোস্তফা মনোয়ার, কেয়ার বাংলাদেশের ডিরেক্টর আমানুর রহমান, বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব প্ল্যানার্সের সাধারণ সম্পাদক ড. আদিল মুহাম্মাদ খান, কোয়ালিশন ফর আরবান পুওরের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর খন্দকার রেবেকা খান ইয়াত প্রমুখ।