কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রতিশ্রুতি
jugantor
কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রতিশ্রুতি

   

৩০ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ডিএসসিসি ১২ নম্বর ওয়ার্ড

অতীতের মতোই সেবক হিসেবে কাজ করব

-গোলাম আশরাফ তালুকদার

যুগান্তর রিপোর্ট

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) ১২ নম্বর ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের প্রার্থী গোলাম আশরাফ তালুকদার বলেছেন, এখানকার নাগরিকরা আমাকে চেনেন। আমি তাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত। সুখে-দুঃখে তাদের পাশে আছি। দীর্ঘদিন এ এলাকায় বসবাস করি। গত ৫ বছর মানুষের সেবা করেছি। কেউ এসে বঞ্চিত হয়েছেন এমন প্রমাণ নেই। বাড়ি-বাড়ি গিয়ে নাগরিকদের কাছে ভোট চাচ্ছি। প্রচুর সাড়া পাচ্ছি। ভোটাররা কেন্দ্রে যেতে পারলে আমি মানুষের ভালোবাসায় বিজয়ী হব ইনশাআল্লাহ।

নির্বাচনী এলাকার ভোটারদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনারা কারও বাধায় ভোট কেন্দ্রে আসা উপেক্ষা করবেন না। কারও মিথ্যা প্ররোচনায় পড়বেন না। ভোট কেন্দ্রে আসুন। আমি নির্বাচিত হলে অতীতের মতো সেবক হিসেবে আপনাদের পাশে থাকব। আমার হাতে কারও সম্মানহানি হবে না। তিনি বলেন, ৫ বছর দলমত নির্বিশেষে সবার সমস্যা সমাধানে কাজ করেছি।

ডিএসসিসি ৫ নম্বর ওয়ার্ড

সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ মুক্ত ওয়ার্ড গড়তে কাজ করব

-লায়ন চিত্তরঞ্জন দাস

যুগান্তর রিপোর্ট

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) সাধারণ ৫ নম্বর ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী লায়ন চিত্তরঞ্জন

দাস বলেছেন, আমি কাউন্সিলর নির্বাচিত হলে ওয়ার্ডটিকে পরিকল্পিতভাবে সাজিয়ে তুলব। এ ওয়ার্ডটিতে সুদূরপ্রসারি কোনো পরিকল্পনা ছিল না। এলাকাটিকে একটি পরিকল্পিত জনপদে রূপান্তরিত করব। আধুনিক স্যুয়ারেজ ব্যবস্থা গড়ে তুলব। এছাড়া এলাকার খাস ডোবা ও মজা পুকুরগুলো সরকারি বিধি অনুযায়ী লিজ নিয়ে চাষাবাদের মাধ্যমে বেকার যুব সমাজের কর্মসংস্থান করব। এছাড়া বর্তমান বর্জ্য অপসারণ ব্যবস্থাকে আরও গতিশীল করে ময়লা বাণিজ্য বন্ধ করা হবে। বর্জ্য অপসারণকারীদের জুলুমবাজি বন্ধ করা হ?বে। পরিকল্পিত কাঁচাবাজার, খেলার মাঠ, শিশুপার্ক, ইকোপার্ক, ভাসমান মুক্তমঞ্চ, শিশুদের সাঁতার শেখার ওয়াটার বডির জন্য জমি ও মুসলিমদের জন্য কবরস্থানের জায়গার ব্যবস্থা কর?ব। এলাকাকে চাঁদাবাজ, সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত ওয়ার্ড গড়া ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার সর্বাত্মক প্রচেষ্টা গ্রহণ করব।

ডিএসসিসির ৪ নম্বর ওয়ার্ড

নির্বাচিত হলে আধুনিক ওয়ার্ড গড়ে তুলব

-জাহাঙ্গীর হোসেন

কাওসার মাহমুদ

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) সাধারণ ৪ নম্বর ওয়ার্ডের আ’ লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন নির্বাচিত হলে ওয়ার্ডটিকে সর্বাধিক নাগরিক সুবিধাস¤‹ন্ন ওয়ার্ড হিসেবে গড়ে তুলবেন বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। পাশাপাশি ওয়ার্ড থেকে মাদক নির্মূলে সর্ব শক্তি প্রয়োগ করার ঘোষণা দিয়েছেন। নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করতে ওয়ার্ডের পয়ঃনিষ্কাশন, ড্রেনেজ ব্যবস্থার আধুনিকায়ন ছাড়াও নাগরিকদের জন্য বিনোদনের ব্যবস্থাসহ শিশু-কিশোর ও যুবকদের জন্য আধুনিক খেলার মাঠ নির্মাণ করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন। এছাড়া ওয়ার্ডে আধুনিক কমিউনিটি সেন্টার স্থাপন করে ইনডোর গেম, জিমনেশিয়াম গড়ে তোলার উদ্যোগ গ্রহণ করবেন। বিদ্যমান কবরস্থানের সুবিধা বাড়িয়ে বাড়িওয়ালা ও যেসব ভাড়াটিয়াদের সমাধিস্থল নেই, তাদের সমাধির ব্যবস্থা করবেন। জনগণের ভোগান্তি লাগবে বাসাবো বিশ্বরোড থেকে মাদারটেক হয়ে নন্দীপাড়া ব্রিজ পর্যন্ত ৬০ ফুট রাস্তা করার সর্বাত্মক সহযোগিতা করছি।

৫৩ নম্বর ওয়ার্ড

শিক্ষা প্রসারে কাজ করব

-মীর হোসেন

গেণ্ডারিয়া প্রতিনিধি

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) ৫৩ নম্বর ওয়ার্ডে বিএনপির সমর্থন নিয়ে ভোটের মাঠে লড়ছেন কদমতলী থানা বিএনপির

সভাপতি মীর হোসেন। প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত তিনি নিরবচ্ছিন্ন গণসংযোগ ও উঠোন বৈঠক করছেন। তিনি বলেন, এই ওয়ার্ডে গ্যাস এবং পানির তীব্র সংকট রয়েছে। তাছাড়া মাদক ও নীরব চাঁদাবাজি এই ওয়ার্ডের ভয়াবহ সমস্যা হয়ে দেখা দিয়েছে। এই ওয়ার্ডের উল্লেখযোগ্য সমস্যা হল বেকারত্ব। আমি কাউন্সিলর হলে বেকারত্ব দূর করতে এবং শিক্ষার প্রসার ঘটাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করব। ওয়ার্ডবাসী যেন নিয়মিত নাগরিক সেবাগুলো সহজে পেতে পারে সেজন্য সবসময় সজাগ থাকব। আমি বিশ্বাস করি, ব্যালট বিপ্লবের মাধ্যমে জনগণ আমাকে কাউন্সিলর নির্বাচিত করবেন।

আমি নির্বাচিত হলে এ ওয়ার্ডকে মডেল হিসেবে গড়ে তুলব। মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের চেষ্টা করব। গরীব দুঃখী মানুষের জন্য বিশেষ ভাতার ব্যবস্থা করব। আশা করি জনগণ আমার পক্ষে রায় দিবেন।

কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রতিশ্রুতি

  
৩০ জানুয়ারি ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ডিএসসিসি ১২ নম্বর ওয়ার্ড

অতীতের মতোই সেবক হিসেবে কাজ করব

-গোলাম আশরাফ তালুকদার

যুগান্তর রিপোর্ট

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) ১২ নম্বর ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের প্রার্থী গোলাম আশরাফ তালুকদার বলেছেন, এখানকার নাগরিকরা আমাকে চেনেন। আমি তাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত। সুখে-দুঃখে তাদের পাশে আছি। দীর্ঘদিন এ এলাকায় বসবাস করি। গত ৫ বছর মানুষের সেবা করেছি। কেউ এসে বঞ্চিত হয়েছেন এমন প্রমাণ নেই। বাড়ি-বাড়ি গিয়ে নাগরিকদের কাছে ভোট চাচ্ছি। প্রচুর সাড়া পাচ্ছি। ভোটাররা কেন্দ্রে যেতে পারলে আমি মানুষের ভালোবাসায় বিজয়ী হব ইনশাআল্লাহ।

নির্বাচনী এলাকার ভোটারদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনারা কারও বাধায় ভোট কেন্দ্রে আসা উপেক্ষা করবেন না। কারও মিথ্যা প্ররোচনায় পড়বেন না। ভোট কেন্দ্রে আসুন। আমি নির্বাচিত হলে অতীতের মতো সেবক হিসেবে আপনাদের পাশে থাকব। আমার হাতে কারও সম্মানহানি হবে না। তিনি বলেন, ৫ বছর দলমত নির্বিশেষে সবার সমস্যা সমাধানে কাজ করেছি।

ডিএসসিসি ৫ নম্বর ওয়ার্ড

সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ মুক্ত ওয়ার্ড গড়তে কাজ করব

-লায়ন চিত্তরঞ্জন দাস

যুগান্তর রিপোর্ট

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) সাধারণ ৫ নম্বর ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী লায়ন চিত্তরঞ্জন

দাস বলেছেন, আমি কাউন্সিলর নির্বাচিত হলে ওয়ার্ডটিকে পরিকল্পিতভাবে সাজিয়ে তুলব। এ ওয়ার্ডটিতে সুদূরপ্রসারি কোনো পরিকল্পনা ছিল না। এলাকাটিকে একটি পরিকল্পিত জনপদে রূপান্তরিত করব। আধুনিক স্যুয়ারেজ ব্যবস্থা গড়ে তুলব। এছাড়া এলাকার খাস ডোবা ও মজা পুকুরগুলো সরকারি বিধি অনুযায়ী লিজ নিয়ে চাষাবাদের মাধ্যমে বেকার যুব সমাজের কর্মসংস্থান করব। এছাড়া বর্তমান বর্জ্য অপসারণ ব্যবস্থাকে আরও গতিশীল করে ময়লা বাণিজ্য বন্ধ করা হবে। বর্জ্য অপসারণকারীদের জুলুমবাজি বন্ধ করা হ?বে। পরিকল্পিত কাঁচাবাজার, খেলার মাঠ, শিশুপার্ক, ইকোপার্ক, ভাসমান মুক্তমঞ্চ, শিশুদের সাঁতার শেখার ওয়াটার বডির জন্য জমি ও মুসলিমদের জন্য কবরস্থানের জায়গার ব্যবস্থা কর?ব। এলাকাকে চাঁদাবাজ, সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত ওয়ার্ড গড়া ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার সর্বাত্মক প্রচেষ্টা গ্রহণ করব।

ডিএসসিসির ৪ নম্বর ওয়ার্ড

নির্বাচিত হলে আধুনিক ওয়ার্ড গড়ে তুলব

-জাহাঙ্গীর হোসেন

কাওসার মাহমুদ

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) সাধারণ ৪ নম্বর ওয়ার্ডের আ’ লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন নির্বাচিত হলে ওয়ার্ডটিকে সর্বাধিক নাগরিক সুবিধাস¤‹ন্ন ওয়ার্ড হিসেবে গড়ে তুলবেন বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। পাশাপাশি ওয়ার্ড থেকে মাদক নির্মূলে সর্ব শক্তি প্রয়োগ করার ঘোষণা দিয়েছেন। নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করতে ওয়ার্ডের পয়ঃনিষ্কাশন, ড্রেনেজ ব্যবস্থার আধুনিকায়ন ছাড়াও নাগরিকদের জন্য বিনোদনের ব্যবস্থাসহ শিশু-কিশোর ও যুবকদের জন্য আধুনিক খেলার মাঠ নির্মাণ করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন। এছাড়া ওয়ার্ডে আধুনিক কমিউনিটি সেন্টার স্থাপন করে ইনডোর গেম, জিমনেশিয়াম গড়ে তোলার উদ্যোগ গ্রহণ করবেন। বিদ্যমান কবরস্থানের সুবিধা বাড়িয়ে বাড়িওয়ালা ও যেসব ভাড়াটিয়াদের সমাধিস্থল নেই, তাদের সমাধির ব্যবস্থা করবেন। জনগণের ভোগান্তি লাগবে বাসাবো বিশ্বরোড থেকে মাদারটেক হয়ে নন্দীপাড়া ব্রিজ পর্যন্ত ৬০ ফুট রাস্তা করার সর্বাত্মক সহযোগিতা করছি।

৫৩ নম্বর ওয়ার্ড

শিক্ষা প্রসারে কাজ করব

-মীর হোসেন

গেণ্ডারিয়া প্রতিনিধি

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) ৫৩ নম্বর ওয়ার্ডে বিএনপির সমর্থন নিয়ে ভোটের মাঠে লড়ছেন কদমতলী থানা বিএনপির

সভাপতি মীর হোসেন। প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত তিনি নিরবচ্ছিন্ন গণসংযোগ ও উঠোন বৈঠক করছেন। তিনি বলেন, এই ওয়ার্ডে গ্যাস এবং পানির তীব্র সংকট রয়েছে। তাছাড়া মাদক ও নীরব চাঁদাবাজি এই ওয়ার্ডের ভয়াবহ সমস্যা হয়ে দেখা দিয়েছে। এই ওয়ার্ডের উল্লেখযোগ্য সমস্যা হল বেকারত্ব। আমি কাউন্সিলর হলে বেকারত্ব দূর করতে এবং শিক্ষার প্রসার ঘটাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করব। ওয়ার্ডবাসী যেন নিয়মিত নাগরিক সেবাগুলো সহজে পেতে পারে সেজন্য সবসময় সজাগ থাকব। আমি বিশ্বাস করি, ব্যালট বিপ্লবের মাধ্যমে জনগণ আমাকে কাউন্সিলর নির্বাচিত করবেন।

আমি নির্বাচিত হলে এ ওয়ার্ডকে মডেল হিসেবে গড়ে তুলব। মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের চেষ্টা করব। গরীব দুঃখী মানুষের জন্য বিশেষ ভাতার ব্যবস্থা করব। আশা করি জনগণ আমার পক্ষে রায় দিবেন।