মিরপুরে বাধার মুখে সড়ক সংস্কার বন্ধ

  মিরপুর প্রতিনিধি ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সাইনবোর্ড

সংস্কার চলা সড়কের এক পাশে সাইনবোর্ডে লেখা রয়েছে- ‘ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক অবকাঠামো উন্নয়নসহ নর্দমা ও ফুটপাত নির্মাণ প্রকল্প’ বাস্তবায়নকারী সংস্থা ডিএনসিসি।

সাইনবোর্ডে প্রকল্পের নাম থেকে শুরু করে কাজ সমাপ্তির তারিখও লেখা রয়েছে। সে হিসেবে ডিসেম্বরেই সড়ক সংস্কার কাজ শেষ হওয়ার কথা। অথচ অবৈধ স্থাপনা থাকায় মিরপুর ১১ নম্বরের অ্যাভিনিউ ১, ৩, ৪, ৭ ও বাউনিয়াবাঁধের ডি ব্লকের বিভিন্ন সড়কের সংস্কার কাজ বাধার মুখে বন্ধ রয়েছে।

সরেজমিন দেখা যায়, মিরপুর ১১নং বাজার (রাব্বানি হোটেল সংলগ্ন) ভাসানী মোড় থেকে উত্তরদিকে কালশী রোড ও পূর্বদিকে লালমাটিয়া রোড পর্যন্ত সড়কের সংস্কার কাজ শুরু করে বন্ধ রাখা হয়েছে। কাজ বন্ধ রাখা সড়কে বিভিন্ন দোকানপাট, ক্যাম্প, মার্কেট, স্কুলসহ অবৈধ স্থাপনা রয়েছে। এ সড়কের কিছু অংশে নিউ সোসাইটি মার্কেটের শতাধিক দোকান রয়েছে। দোকানের উচ্ছেদ ঠেকাতে মার্কেট কমিটি ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে তহবিল সংগ্রহ করেছে বলে অভিযোগ রয়েছে। অবশ্য নিউ সোসাইটি মার্কেট পরিচালনা কমিটির সভাপতি সানাউল্লাহ মিয়া তহবিল সংগ্রহের কথা অস্বীকার করেছেন। সড়কে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কয়েকটি দোকান রয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

স্থানীয় বাসিন্দা রাকিব চৌধুরী বলেন, স্থানীয় প্রভাবশালীদের বাধার মুখে সড়কটির সংস্কার কাজ বন্ধ রয়েছে। এতে লোকজন সীমাহীন দুর্ভোগ নিয়ে চলাচল করছেন। খানাখন্দে ভরা সড়কটিতে হরহামেশাই যানবাহন উল্টে ঘটছে দুর্ঘটনা। সামান্য বৃষ্টিতেই সড়কটি জলাবদ্ধ হয়ে পড়ে। তখন বড় বড় গর্তে জমে থাকা বৃষ্টির পানি যানবাহনের চাকার সঙ্গে ধাক্কা লেগে চলাচলকারীদের নাজেহাল করে। এ ব্লক বাড়ির মালিক কল্যাণ সমিতির সহ-সম্পাদক শেখ হারুন বলেন, চলাচলের দিক থেকে এ সড়কটি মিরপুর ১১ নম্বরের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক। লালমাটিয়া, বাউনিয়াবাঁধ, কালশী, পলাশনগর, সবুজবাংলা, এভিনিউ ৫ এলাকার কয়েক হাজার মানুষ প্রতিনিয়ত এ সড়কে চলাচল করেন। সংস্কার শুরু করে কাজ বন্ধ থাকায় এবড়োখেবড়ো এ সড়কে এখন চলাই দায়।

পথচারী লিটন মাহমুদ বলেন, ৬ মাস আগে রাস্তা ঠিক করবে বলে সিটি কর্পোরেশন খুঁড়ে রেখেছে। এখন সড়কে হাঁটাও যায় না। সড়কের পাশের এক ব্যবসায়ী বলেন, সংস্কারের জন্য এ সড়কে অনেক বালু ছিটানো হয়েছে। কাজ বন্ধ থাকায় প্রচুর ধুলা উড়ছে। এ নিয়ে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

স্থানীয় বাসিন্দা রাব্বি দাবি করে বলেন, সংস্কার কাজ যতটুকু হয়েছে তা অত্যন্ত নিুমানের। ড্রেনে বালুর লেভেল ঠিকমতো দেয়া হয়নি। সড়কটির সংস্কারের দায়িত্বে থাকা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জেভিসিএ’র প্রতিনিধি লেলিন বলেন, অবৈধ স্থাপনার কারণে নির্দিষ্ট সময়ে সংস্কার কাজ সম্পন্ন হয়নি। কাজের সময় বাড়ানো হয়েছে। খুব তাড়াতাড়ি কাজ শুরু হবে।

ডিএনসিসির ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুর রউফ নান্নু বলেন, আপনাকে কে বলেছে কাজ বন্ধ। কাজ চালু আছে। ২-১ দিনের মধ্যে উচ্ছেদ হবে। যদি নির্বাচনের আগে উচ্ছেদ করতাম ভোট কি পেতাম। ডিএনসিসির অঞ্চল ২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী ইনামুল কবির বলেন, নির্বাচনকালীন আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখার জন্য উচ্ছেদ অভিযান হয়নি। তাই নির্দিষ্ট সময়ে সংস্কার কাজ করা যাচ্ছে না। তিনি স্বীকার করেন সংস্কার কাজ বন্ধ রয়েছে এবং খুব দ্রুত তা শুরু হবে। তিনি বলেন, রাস্তা পুরোপুরি দখলমুক্ত করেই কাজ শুরু হবে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×