৭৪ নম্বর ওয়ার্ড: মডেল ওয়ার্ড করতে চান প্রার্থীরা

নাজুক স্যুয়ারেজ ব্যবস্থা : ঘিঞ্জি ও নোংরা পরিবেশ

  মো. আরমান ভূঁইয়া ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

৭৪ নম্বর ওয়ার্ড: মডেল ওয়ার্ড করতে চান প্রার্থীরা
ফাইল ছবি

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) নবসৃষ্ট ৭৪ নম্বর ওয়ার্ডকে একটি মডেল ওয়ার্ডে রূপ দিতে চান কাউন্সিলর প্রার্থীরা।

উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা, কর্মসংস্থান তৈরি, খাদ্য নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন নিশ্চিত করে এলাকাবাসীর কল্যাণে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন তারা। এছাড়াও মাদকমুক্ত সমাজ গড়ার মধ্য দিয়ে সবার জন্য শিক্ষার সুযোগ তৈরির লক্ষ্যে কাজ করতে চান প্রার্থীরা।

পুরো ওয়ার্ডের বেশিরভাগ রাস্তা-ঘাট ভাঙাচোরা। স্যুয়ারেজ ব্যবস্থা একেবারে নাজুক। অধিকাংশ রাস্তা সরু, ঘিঞ্জি ও নোংরা পরিবেশ। যত্রতত্র ময়লার স্তূপ, বিদ্যুৎ ও তীব্র গ্যাস সংকট রয়েছে।

এছাড়া রাস্তার পাশে অবৈধ দোকানপাট, অবৈধ দখল ও দূষণের কবলে খাল, সন্ত্রাস-চাঁদাবাজি ও মাদকের করাল গ্রাসসহ নানান সমস্যায় জর্জরিত এই ওয়ার্ডের বাসিন্দারা। ওয়ার্ডে ক্রমেই দীর্ঘ হচ্ছে নাগরিক দুর্ভোগ।

এছাড়াও নেই কমিউনিটি সেন্টার, শিশুপার্ক, স্টেডিয়াম, লাইব্রেরিসহ কোনো বিনোদন কেন্দ্র। আজও গড়ে ওঠেনি কোনো কলেজ, ডাকঘর, সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র।

তাই এখানকার ভোটাররা এমন প্রার্থীকে কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচিত করতে চান, যিনি সৎ, ন্যায় ও নিষ্ঠাবান হবেন। যিনি এসব সমস্যা সমাধান করে নাগরিক সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করবেন।

দক্ষিণগাঁও ইউনিয়ন এলাকা ভেঙে ডিএসসিসির ৭৪ নম্বর ওয়ার্ড গঠন করা হয়। নন্দিপাড়া ১নং ওয়ার্ড অংশ (পশ্চিম নন্দিপাড়া, রসুলবাগ, উত্তর নন্দিপাড়া, নন্দিপাড়া ২নং ওয়ার্ড অংশ (মধ্য নন্দিপাড়া), নন্দিপাড়া স্কুল রোড, ইমামবাগ, নন্দিপাড়া ৩নং ওয়ার্ড অংশ (নন্দিপাড়া, পূর্ব নন্দিপাড়া, নেওয়াজবাগ, ব্যাংক কলোনি) নিয়ে ডিএসসিসির এই ওয়ার্ড গঠিত। ওয়ার্ডটিতে ভোটার রয়েছেন প্রায় ১৯ হাজার।

আটজন কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। প্রার্থীরা হলেন- দক্ষিণগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ফজর আলী (রেডিও), ৭৪ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মো. আবুল কালাম আজাদ (ট্রাক্টর), মোহাম্মদ আবদুল লতিফ (করাত), দক্ষিণগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি মো. হুমায়ূন কবির (ঘুড়ি), দক্ষিণগাঁও ইউনিয়ন বিএনপি নেতা মো. আবদুর রহিম মিলন (ঠেলাগাড়ি), ৭৪ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান সোহাগ (কাঁটা চামচ), মো. আবুল কাসেম (লাঠিম), মো. আজিজুল হক (ঝুড়ি)।

মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, আমার প্রধান কাজ হবে এই ওয়ার্ডে মানুষের নাগরিক সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা। রাস্তা-ঘাট সংস্কার, স্যুয়ারেজ ব্যবস্থা উন্নতকরণ ও রাস্তাগুলো প্রশস্ত করা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা দিয়েছেন মাদকমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার।

তাই সমাজের সবাইকে নিয়ে মাদক নির্মূল করব। আমাদের এলাকায় কোনো খেলার মাঠ নেই। তাই একটা খেলার মাঠ ও একটি বিনোদন কেন্দ্র নির্মাণ করব। সবাইকে নিয়ে ওয়ার্ডটিকে একটি আধুনিক ওয়ার্ড হিসেবে গড়ে তোলার পরিকল্পনা রয়েছে।

মো. আবদুল লতিফ বলেন, নবসৃষ্ট এ ওয়ার্ডের নাগরিকরা অনেক সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত। এখানকার বেশির ভাগ বাসিন্দা নিুআয়ের ও শ্রমিক শ্রেণীর মানুষ।

আমি নির্বাচিত হলে প্রধান সড়কসহ সব রাস্তা প্রশস্ত করে সংস্কার ও স্যুয়ারেজ ব্যবস্থা উন্নত করব। এ ওয়ার্ডের পাশ দিয়ে বয়ে গেছে নন্দিপাড়া খাল। তাই এ খালটি সংস্কার ও খালের দু’পাশে হাঁটা এবং বিনোদনের উপযোগী করে সংস্কার করব।

এছাড়াও স্কুল, কলেজ, মসজিদ ও মাদ্রাসা নির্মাণ করব। ভোটারদের উদ্দেশে লতিফ বলেন, আপনারা যাকে যোগ্য মনে করবেন তাকেই ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত করেন।

মো. ফজর আলী বলেন, ভোটাররা আমাকে কাউন্সিলর নির্বাচিত করলে রাস্তা প্রশস্ত ও সংস্কার করব। এ ওয়ার্ডে শিক্ষার হার খুবই কম।

তাই সরকারি স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা করা হবে। বয়স্কদের জন্য একটি বৃদ্ধাশ্রম, একটি এতিমখানা ও প্রতিবন্ধীদের জন্য একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নির্মাণ করা হবে। এছাড়াও শিশু-কিশোরদের খেলার মাঠ, বিনোদন কেন্দ্র ও সামাজিক অনুষ্ঠানের জন্য একটি কমিউনিটি সেন্টার নির্মাণ করব।

আমি নির্বাচিত হলে সমাজের সবাইকে নিয়ে মাদক নির্মূল করব।

আরও পড়ুন
--
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×