পরিদর্শনকালে ডিএনসিসি মেয়র

খাল দখলকারী কেউ ছাড় পাবেন না

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৩ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

খাল দখলকারী কেউ ছাড় পাবেন না
বাড্ডার সুতি খাল পরিদর্শনে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। ছবি: যুগান্তর

জলাবদ্ধতা নিরসনে খাল ও পানি নিষ্কাশন নালার অবৈধ দখলকারীরা কেউ ছাড় পাবেন না। আগামী সপ্তাহে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। মঙ্গলবার নগরের জলাবদ্ধতাপ্রবণ বেশকিছু এলাকা পরিদর্শন শেষে ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা জানান।

মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, তুরাগ, বুড়িগঙ্গা তীরে যেভাবে অভিযান পরিচালিত হচ্ছে সেভাবে ডিএনসিসি এলাকার খাল, পানিপ্রবাহ এলাকার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান পরিচালিত হবে।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত নগরের জলাবদ্ধতাপ্রবণ কসাইবাড়ি, শায়েস্তাখাঁ এভিনিউ, উত্তরা, আশকোনা, বনানী, মাছরাঙা টিভি ভবনের সামনের সড়ক এবং সুতিখাল, উত্তর বাড্ডা এলাকা পরিদর্শন করেন।

উত্তরার শায়েস্তাখাঁ এভিনিউতে গিয়ে আতিকুল ইসলাম দেখতে পান যে, কসাইবাড়ি এলাকার ড্রেনের ওপর অবৈধভাবে বিভিন্ন ধরনের স্থাপনা নির্মাণ করায় জলাবদ্ধতা তৈরি হয়। তিনি আগামী ২ দিনের মধ্যে এসব স্থাপনা সরিয়ে ফেলার জন্য সময় দেন। অন্যথায় আগামী সপ্তাহে উচ্ছেদ অভিযান শুরু হবে।

আশকোনা এলাকায় মূল সড়কের জলাবদ্ধতা তিনি স্বচক্ষে দেখতে পান। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এ এলাকার সব ড্রেন পরিষ্কারের জন্য ওয়াসাকে নির্দেশ প্রদান করেন। তাছাড়া ওই এলাকার জলাবদ্ধতা স্থায়ীভাবে নিরসনের লক্ষ্যে সিভিল এভিয়েশন, ওয়াসা ও ডিএনসিসিকে সমন্বিতভাবে কাজ করার নির্দেশ দেন।

বনানী এলাকায় এলিভেটেড এক্সপেসওয়ের নির্মাণ কাজের জন্য যাতে জলাবদ্ধতা তৈরি না হয় মেয়র এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে প্রকল্প পরিচালককে রেললাইন ও মূল সড়কের মাঝের জলাশয় আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ৩০০ ফুট গভীর করার নির্দেশ দেন।

এছাড়া বাড্ডা সুবাস্তু টাওয়ারের সামনে গিয়ে ড্রেনের আবর্জনা অপসারণের পদ্ধতি দেখে তিনি অসন্তোষ প্রকাশ করেন। পরিদর্শন শেষে ব্রিফিংয়ে মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, আমি সবাইকে নিয়ে কাজ করতে চাই। তিনি আরও বলেন, আমি নগরবাসীর সেবায় সব প্রোটোকল ভেঙে সর্বাত্মক কাজ করতে চাই। ওয়াসার এমডিকে আমি নিজে কল করে জলবদ্ধতা নিরসনে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছি। আর আজ (মঙ্গলবার) খাল পরিদর্শনে আসার সময় ওয়াসা প্রধান প্রকৌশলী আমাদের সঙ্গে এসেছেন। আমরা সবাই মিলে চেষ্টা করছি জলবদ্ধতা থেকে কিছুটা হলেও নগরবাসীকে মুক্তি দিতে। যদিও বর্ষা মৌসুম প্রায় চলে এসেছে, এ অল্প সময়ের মধ্যে শর্টটার্মে কী কী করা যায় তা নিয়ে আমরা আলোচনার মাধ্যমে কাজ করছি।

ঘটনাপ্রবাহ : ঢাকা উত্তর সিটি নির্বাচন

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×